ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র শহর উন্মোচন করল ইরান
jugantor
ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র শহর উন্মোচন করল ইরান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:১২:৫৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর (আইআরজিসি) প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি শুক্রবার পারস্য উপসাগরের উপকূলে একটি ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র শহর উন্মোচন করেছেন।

এসময় আইআরজিসি’র নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আলিরেজা তাংসিরিসহ উচ্চ পদস্থ সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। খবর আরব নিউজ ও আনাদোলুর।

সামরিক ঘাঁটির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেন, আঞ্চলিক অখণ্ডতা, দেশের স্বাধীনতা এবং ইসলামি বিপ্লবের সাফল্যকে ধরে রাখাই আমাদের সামরিক কর্মসূচির উদ্দেশ্য।

আমরা বিশ্বাস করি যে, আমাদের শত্রুরা যুক্তির চেয়ে শক্তির ভাষাকে বেশি গুরুত্ব দেয়। তাই তাদের আধিপত্যবাদী চক্রান্তের বিরুদ্ধে আমাদের আক্রমণাত্মক এবং প্রতিরক্ষামূলক সামরিক শক্তি বৃদ্ধি ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

হোসেইন সালামি জানান, আইআরজিসি বেশ কয়েকটি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপনা নির্মাণ করেছে। সেখানে মজুদ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পাল্লা কয়েকশ’ কিলোমিটার এবং সেগুলোর সুনির্দিষ্ট স্থানে আঘাত হানতে পারে।

উপসাগরীয় উপকূলে প্রায় দুই হাজার ২০০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শহর অবস্থিত।

ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র শহর উন্মোচন করল ইরান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ জানুয়ারি ২০২১, ০১:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর (আইআরজিসি) প্রধান কমান্ডার মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি শুক্রবার পারস্য উপসাগরের উপকূলে একটি ভূগর্ভস্থ ক্ষেপণাস্ত্র শহর উন্মোচন করেছেন।

এসময় আইআরজিসি’র নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আলিরেজা তাংসিরিসহ উচ্চ পদস্থ সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। খবর আরব নিউজ ও আনাদোলুর।

সামরিক ঘাঁটির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেন, আঞ্চলিক অখণ্ডতা, দেশের স্বাধীনতা এবং ইসলামি বিপ্লবের সাফল্যকে ধরে রাখাই আমাদের সামরিক কর্মসূচির উদ্দেশ্য।

আমরা বিশ্বাস করি যে, আমাদের শত্রুরা যুক্তির চেয়ে শক্তির ভাষাকে বেশি গুরুত্ব দেয়। তাই তাদের আধিপত্যবাদী চক্রান্তের বিরুদ্ধে আমাদের আক্রমণাত্মক এবং প্রতিরক্ষামূলক সামরিক শক্তি বৃদ্ধি ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই।

হোসেইন সালামি জানান, আইআরজিসি বেশ কয়েকটি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপনা নির্মাণ করেছে। সেখানে মজুদ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর পাল্লা কয়েকশ’ কিলোমিটার এবং সেগুলোর সুনির্দিষ্ট স্থানে আঘাত হানতে পারে।

উপসাগরীয় উপকূলে প্রায় দুই হাজার ২০০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র শহর অবস্থিত।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট

আরও খবর