সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে হত্যা করল ইথিওপীয় বাহিনী
jugantor
সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে হত্যা করল ইথিওপীয় বাহিনী

  অনলাইন ডেস্ক  

১৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৪:৫২:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে হত্যা করল ইথিওপীয় বাহিনী

তাইগ্রে পিপলস লিবারেশন ফ্রন্টের (টিপিএলএফ) তিন প্রখ্যাত সদস্যকে হত্যা করেছে ইথিওপিয়ার সেনাবাহিনী। দেশটির উত্তরাঞ্চলের তাইগ্রে অঞ্চলে সেনা অভিযানের মূল লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়েছে টিপিএলএফকে।

নিহতদের মধ্যে প্রায় দুই দশক ধরে ইথিওপিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী সেইয়ুম মেসফিনও আছেন। এ ছাড়া সাবেক ফেডারেল অ্যাফেয়াস মন্ত্রী আবেই টিসেহায়া ও সাবেক সংসদীয় প্রধান চিফ হুইপ অসমেলাশ ওয়াল্ডসেলোসি।

সরকারের এক বিবৃতির বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য দেওয়া হয়েছে।

নোবেলজয়ী প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের সরকারের সঙ্গে আগ থেকেই বিরোধ চলছিল তাইগ্রে নেতাদের। গত নভেম্বরে সেখানে সেনাবাহিনী অভিযানে নামে, ফলে এ বিরোধ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে গড়ায়।

সংঘাত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মেসফিনসহ কয়েকজন তাইগ্রে নেতাকে গ্রেফতার নির্দেশ দেয় সরকার। এমনকি তাদের গ্রেফতারের জন্য আড়াই লাখ ডলারের বেশি অর্থ পুরস্কার ঘোষণাও করা হয়।

সেনাবাহিনী জানায়, তাইগ্রে নেতাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছিল, কিন্তু তারা রাজি হননি। সর্বশেষ অভিযানে কয়েক ডজন টিপিএলএফ সদস্য নিহত ও গ্রেফতার হয়েছে বলে আরও জানানো হয়।

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে হত্যা করল ইথিওপীয় বাহিনী

 অনলাইন ডেস্ক 
১৪ জানুয়ারি ২০২১, ০২:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে হত্যা করল ইথিওপীয় বাহিনী
ছবি: সংগৃহীত

তাইগ্রে পিপলস লিবারেশন ফ্রন্টের (টিপিএলএফ) তিন প্রখ্যাত সদস্যকে হত্যা করেছে ইথিওপিয়ার সেনাবাহিনী। দেশটির উত্তরাঞ্চলের তাইগ্রে অঞ্চলে সেনা অভিযানের মূল লক্ষ্যবস্তু বানানো হয়েছে টিপিএলএফকে।

নিহতদের মধ্যে প্রায় দুই দশক ধরে ইথিওপিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনকারী সেইয়ুম মেসফিনও আছেন। এ ছাড়া সাবেক ফেডারেল অ্যাফেয়াস মন্ত্রী আবেই টিসেহায়া ও সাবেক সংসদীয় প্রধান চিফ হুইপ অসমেলাশ ওয়াল্ডসেলোসি।

সরকারের এক বিবৃতির বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে এমন তথ্য দেওয়া হয়েছে।

নোবেলজয়ী প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের সরকারের সঙ্গে আগ থেকেই বিরোধ চলছিল তাইগ্রে নেতাদের। গত নভেম্বরে সেখানে সেনাবাহিনী অভিযানে নামে, ফলে এ বিরোধ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে গড়ায়।

সংঘাত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মেসফিনসহ কয়েকজন তাইগ্রে নেতাকে গ্রেফতার নির্দেশ দেয় সরকার। এমনকি তাদের গ্রেফতারের জন্য আড়াই লাখ ডলারের বেশি অর্থ পুরস্কার ঘোষণাও করা হয়।

সেনাবাহিনী জানায়, তাইগ্রে নেতাদের আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছিল, কিন্তু তারা রাজি হননি। সর্বশেষ অভিযানে কয়েক ডজন টিপিএলএফ সদস্য নিহত ও গ্রেফতার হয়েছে বলে আরও জানানো হয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন