ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার
jugantor
ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:৪৮:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার

ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপ করা যায় এমন নতুন ধরনের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের প্রদর্শনী করেছে উত্তর কোরিয়া।

এ ক্ষেপণাস্ত্রকে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র বলেও অভিহিত করেছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

বিবিসির খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার পিয়ংইয়ংয়ের কিম ইল সুং চত্বরে হওয়া কুচকাওয়াজে নতুন ধরনের এ ক্ষেপণাস্ত্রের কয়েকটি দেখানো হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের অভিষেকের কয়েকদিন আগে উত্তর কোরিয়া কুচকাওয়াজের মাধ্যমে তাদের সামরিক শক্তি দেখিয়েছে।

কয়েকদিন আগে উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির কংগ্রেসে যুক্তরাষ্ট্রকে তার দেশের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে অভিহিত করেছিলেন কিম।

এদিনের কুচকাওয়াজে পিয়ংইয়ং তাদের সর্ববৃহৎ আন্তঃমহাদেশীয় দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হাজির করেনি। অক্টোবরে হওয়া তুলনামূলক বড় কুচকাওয়াজে ওই ক্ষেপণাস্ত্রটির প্রদর্শনী হয়েছিল।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম কেসিএনএ-র ছবিতে বৃহস্পতিবারের কুচকাওয়াজে সাবমেরিন থেকে নিক্ষেপ করা যায় এমন ৪টি ক্ষেপণাস্ত্র দেখানো হয়।

এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো আগে কখনো দেখানো হয়নি বলে নিশ্চিত করেছেন সামরিক বিশ্লেষকরা।

ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক জেমস মার্টিন সেন্টার ফর ননফ্রলিফারেশন স্টাডিজের (সিএনএস) গবেষক মাইকেল ডুইটসম্যান বলেন, নতুন ক্ষেপণাস্ত্র নির্দিষ্টভাবে দেখতে দীর্ঘ।

ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:৪৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার
ছবি: সংগৃহীত

ডুবোজাহাজ থেকে নিক্ষেপ করা যায় এমন নতুন ধরনের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের প্রদর্শনী করেছে উত্তর কোরিয়া।

এ ক্ষেপণাস্ত্রকে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী অস্ত্র বলেও অভিহিত করেছে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।

বিবিসির খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার পিয়ংইয়ংয়ের কিম ইল সুং চত্বরে হওয়া কুচকাওয়াজে নতুন ধরনের এ ক্ষেপণাস্ত্রের কয়েকটি দেখানো হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের অভিষেকের কয়েকদিন আগে উত্তর কোরিয়া কুচকাওয়াজের মাধ্যমে তাদের সামরিক শক্তি দেখিয়েছে।

কয়েকদিন আগে উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন দল ওয়ার্কার্স পার্টির কংগ্রেসে যুক্তরাষ্ট্রকে তার দেশের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে অভিহিত করেছিলেন কিম।

এদিনের কুচকাওয়াজে পিয়ংইয়ং তাদের সর্ববৃহৎ আন্তঃমহাদেশীয় দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হাজির করেনি। অক্টোবরে হওয়া তুলনামূলক বড় কুচকাওয়াজে ওই ক্ষেপণাস্ত্রটির প্রদর্শনী হয়েছিল।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম কেসিএনএ-র ছবিতে বৃহস্পতিবারের কুচকাওয়াজে সাবমেরিন থেকে নিক্ষেপ করা যায় এমন ৪টি ক্ষেপণাস্ত্র দেখানো হয়।

এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলো আগে কখনো দেখানো হয়নি বলে নিশ্চিত করেছেন সামরিক বিশ্লেষকরা।

ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক জেমস মার্টিন সেন্টার ফর ননফ্রলিফারেশন স্টাডিজের (সিএনএস) গবেষক মাইকেল ডুইটসম্যান বলেন, নতুন ক্ষেপণাস্ত্র নির্দিষ্টভাবে দেখতে দীর্ঘ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন