তুরস্ককে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ দেবে না যুক্তরাজ্য
jugantor
তুরস্ককে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ দেবে না যুক্তরাজ্য

  অনলাইন ডেস্ক  

১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৪:০০:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

নগোরনো-কারাবাখ যুদ্ধে তুরস্কের নির্মিত ড্রোনের সাফল্য দেখে আতঙ্কে আছে পশ্চিমা দেশগুলো।

এ কারণে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ তুরস্কের কাছে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ বিক্রি না করার দাবি জানিয়েছে ব্রিটিশ এরোস্পেস কোম্পানির কাছে। খবর আরব নিউজের।

তুর্কি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বায়কারের তৈরি ড্রোন কারাবাখ যুদ্ধে ব্যবহার করে আজারবাইজান কল্পনাতীত সাফল্য পেয়েছে।

ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান এডায়ার লিমিটেড সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, তারা আর তুর্কি প্রতিষ্ঠান বায়কারের কাছে ড্রোনের যন্ত্রাংশ বিক্রি করবে না।

লন্ডনে আর্মেনিয়ার দূতাবাস প্রথমে ওই ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানের কাছে তুর্কি প্রতিষ্ঠান বায়কারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে।

বায়রাকরাত নামে তুর্কি ওই ড্রোনটি দেশটির সেনাবাহিনী ছাড়াও আজারবাইজান, ইউক্রেন, কাতার ও লিবিয়ায় রফতানি করা হয়।

ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তুরর্স্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের জামাতা সেলকুক বায়রাকরাত।

এর আগে গত বছরের অক্টোবরে কানাডা তুরস্কে সামরিক ড্রোনের প্রযুক্তি বিক্রি বন্ধ করে দেয়। কারাবাখে মনুষ্যবিহীন এ তুর্কি ড্রোন নিখুঁতভাবে আর্মেনিয়ার সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে বোমা হামলা চালানোর পর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নজরে আসে তুরস্কের এ সামরিক ড্রোনটি।

তুরস্ককে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ দেবে না যুক্তরাজ্য

 অনলাইন ডেস্ক 
১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০২:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নগোরনো-কারাবাখ যুদ্ধে তুরস্কের নির্মিত ড্রোনের সাফল্য দেখে আতঙ্কে আছে পশ্চিমা দেশগুলো।

এ কারণে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ তুরস্কের কাছে ড্রোন নির্মাণের যন্ত্রাংশ বিক্রি না করার দাবি জানিয়েছে ব্রিটিশ এরোস্পেস কোম্পানির কাছে।  খবর আরব নিউজের।

তুর্কি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বায়কারের তৈরি ড্রোন কারাবাখ যুদ্ধে ব্যবহার করে আজারবাইজান কল্পনাতীত সাফল্য পেয়েছে।
    
ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান এডায়ার লিমিটেড সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, তারা আর তুর্কি প্রতিষ্ঠান বায়কারের কাছে ড্রোনের যন্ত্রাংশ বিক্রি করবে না।

লন্ডনে আর্মেনিয়ার দূতাবাস প্রথমে ওই ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানের কাছে তুর্কি প্রতিষ্ঠান বায়কারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে।

বায়রাকরাত নামে তুর্কি ওই ড্রোনটি দেশটির সেনাবাহিনী ছাড়াও আজারবাইজান, ইউক্রেন, কাতার ও লিবিয়ায় রফতানি করা হয়।

ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তুরর্স্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের জামাতা সেলকুক বায়রাকরাত।   

এর আগে গত বছরের অক্টোবরে কানাডা তুরস্কে সামরিক ড্রোনের প্রযুক্তি বিক্রি বন্ধ করে দেয়।  কারাবাখে মনুষ্যবিহীন এ তুর্কি ড্রোন নিখুঁতভাবে আর্মেনিয়ার সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে বোমা হামলা চালানোর পর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নজরে আসে তুরস্কের এ সামরিক ড্রোনটি।  

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : যুক্তরাষ্ট্র-তুরস্ক সঙ্কট

২৬ নভেম্বর, ২০২০