ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি
jugantor
ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ জানুয়ারি ২০২১, ২২:৩৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি

ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি মাউন্ট সেমেরু ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে।

বিবিসি জানিয়েছে, আকাশে প্রায় ৫ দশমিক ৬ কিলোমিটার উচ্চতা পর্যন্ত উঠে যায় আগ্নেয়গিরির ধোঁয়া। এতে স্থানীয় মানুষের মধ্যে প্রবল আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় সময় শনিবার ১৭:২৪ মিনিটে মাউন্ট সেমেরুর জ্বালামুখ দিয়ে ধোঁয়া বের হওয়া শুরু হয়।

আগ্নেয়গিরি জেগে উঠার পর এখনো কোনো মৃত্যুর খবর মেলেনি। তবে কর্তৃপক্ষ স্থানীয়দের সতর্ক করে বলেছে, অগ্ন্যুৎপাতের আশঙ্কা রয়েছে।

এমনকি নেমে আসতে পারে লাভাস্রোতও। কুরাহ কোবোকান নদী অববাহিকার বাসিন্দাদের সম্ভাব্য কোল্ড লাভা কাদা প্রবাহের দিকে নজর রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ‍নানা ছবিতে ১২ হাজার ৬০ ফুট উঁচু পাহাড়ের জ্বালামুখ থেকে বেরিয়ে আসা ছাইয়ে বাড়ি ঘর ঢেকে যেতে দেখা যাচ্ছে।

ইন্দোনেশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ‘রিং অব ফায়ার’ এ অবস্থিত। যে কারণে দেশটিতে মাঝেমধ্যেই নানা সক্রিয় আগ্নেয়গিরি জেগে উঠে। এছাড়া দেশটি বেশ ভূমিকম্প প্রবণ।

ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ জানুয়ারি ২০২১, ১০:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি
ছবি: বিবিসি

ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি মাউন্ট সেমেরু ভয়ঙ্করভাবে জেগে উঠেছে। 

বিবিসি জানিয়েছে, আকাশে প্রায় ৫ দশমিক ৬ কিলোমিটার উচ্চতা পর্যন্ত উঠে যায় আগ্নেয়গিরির ধোঁয়া। এতে স্থানীয় মানুষের মধ্যে প্রবল আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। 

স্থানীয় সময় শনিবার ১৭:২৪ মিনিটে মাউন্ট সেমেরুর জ্বালামুখ দিয়ে ধোঁয়া বের হওয়া শুরু হয়।

আগ্নেয়গিরি জেগে উঠার পর এখনো কোনো মৃত্যুর খবর মেলেনি। তবে কর্তৃপক্ষ স্থানীয়দের সতর্ক করে বলেছে, অগ্ন্যুৎপাতের আশঙ্কা রয়েছে। 

এমনকি নেমে আসতে পারে লাভাস্রোতও। কুরাহ কোবোকান নদী অববাহিকার বাসিন্দাদের সম্ভাব্য কোল্ড লাভা কাদা প্রবাহের দিকে নজর রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। 

অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ‍নানা ছবিতে ১২ হাজার ৬০ ফুট উঁচু পাহাড়ের জ্বালামুখ থেকে বেরিয়ে আসা ছাইয়ে বাড়ি ঘর ঢেকে যেতে দেখা যাচ্ছে।

ইন্দোনেশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ‘রিং অব ফায়ার’ এ অবস্থিত। যে কারণে দেশটিতে মাঝেমধ্যেই নানা সক্রিয় আগ্নেয়গিরি জেগে উঠে। এছাড়া দেশটি বেশ ভূমিকম্প প্রবণ।
 

 
আরও খবর