অবৈধপথে ইউরোপে প্রবেশ, মাল্টা থেকে ৪৪ বাংলাদেশিকে ফেরত
jugantor
অবৈধপথে ইউরোপে প্রবেশ, মাল্টা থেকে ৪৪ বাংলাদেশিকে ফেরত

  নাঈম হাসান, যুক্তরাজ্য থেকে  

১৮ জানুয়ারি ২০২১, ২১:৫৮:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউরোপে অবৈধভাবে প্রবেশ করায় দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে মাল্টা থেকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে ৪৪ জন বাংলাদেশি নাগরিককে।

মাল্টায় স্থানীয় সময় ১২ জুন রাতে বিশেষ চাটার্ড ফ্লাইটে করে তাদের ফেরত পাঠানো হয়। সব ধরনের আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদের ফেরত পাঠানোর কথা জানিয়েছে মাল্টা কর্তৃপক্ষ।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে, এই ৪৪ জন বাংলাদেশি বিভিন্ন সময়ে অবৈধ উপায়ে সমুদ্রপথে মাল্টায় প্রবেশ করেছেন। এর আগে লিবিয়া হয়ে মানবপাচারকারীদের সহযোগিতায় তারা সমুদ্রপথে মাল্টায় পাড়ি জমান।

দেশে ফেরত যাওয়া একজন জানান, তাদের সঙ্গে অনেক খারাপ আচরণ করা হয়েছে। গভীর রাতে তাদের ঘুম থেকে জাগ্রত করে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে চার্টার্ড ফ্লাইটে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বাংলাদেশে। অনেকের দাবি, তাদের জোরপূর্বক ফেরত পাঠানো হয়েছে।

মাল্টায় বাংলাদেশের স্থায়ী দূতাবাস নেই, তবে বাংলাদেশ দূতাবাস এথেন্স, গ্রিস ও মাল্টায় বাংলাদেশিদের কনস্যুলার সেবা এবং দ্বিপক্ষীয় কূটনৈতিক বিভিন্ন বিষয় দেখে থাকেন। ৪৪ জন বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০১৭ সালের ইউরোপীয় ইউনিয়ন আর বাংলাদেশ সরকারের মাঝে হওয়া চুক্তি অনুযায়ী সব ধরনের আইনি প্রক্রিয়া শেষে ৪৪ জন বাংলাদেশিকে দেশে পাঠানো হয়েছে।

অবৈধ অভিবাসীদের ফেরত নিতে ২০১৬ সালে ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল ক্রিশ্চিয়ানলেফরারের নেতৃত্বে প্রতিনিধিরা সে সময় বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কার্যালয়ে ইইউ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ওই সময় সাংবাদিকদের বলেন, প্রতিনিধি দল আমাকে জানিয়েছে যে, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে মোট আড়াই লাখ বাংলাদেশি বসবাস করছেন।

উল্লেখ্য, আইনি প্রক্রিয়া শেষে বাংলাদেশ ছাড়াও দক্ষিণ এশীয় বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। তাই এটা শুধু বাংলাদেশি অভিবাসীদের ব্যাপারে একান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নয়।

অবৈধপথে ইউরোপে প্রবেশ, মাল্টা থেকে ৪৪ বাংলাদেশিকে ফেরত

 নাঈম হাসান, যুক্তরাজ্য থেকে 
১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৯:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইউরোপে অবৈধভাবে প্রবেশ করায় দীর্ঘ আইনি প্রক্রিয়া শেষে মাল্টা থেকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে ৪৪ জন বাংলাদেশি নাগরিককে। 

মাল্টায় স্থানীয় সময় ১২ জুন রাতে বিশেষ চাটার্ড ফ্লাইটে করে তাদের ফেরত পাঠানো হয়। সব ধরনের আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদের ফেরত পাঠানোর কথা জানিয়েছে মাল্টা কর্তৃপক্ষ।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেছে, এই ৪৪ জন বাংলাদেশি বিভিন্ন সময়ে অবৈধ উপায়ে সমুদ্রপথে মাল্টায় প্রবেশ করেছেন। এর আগে লিবিয়া হয়ে মানবপাচারকারীদের সহযোগিতায় তারা সমুদ্রপথে মাল্টায় পাড়ি জমান।

দেশে ফেরত যাওয়া একজন জানান, তাদের সঙ্গে অনেক খারাপ আচরণ করা হয়েছে। গভীর রাতে তাদের ঘুম থেকে জাগ্রত করে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে চার্টার্ড ফ্লাইটে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বাংলাদেশে। অনেকের দাবি, তাদের জোরপূর্বক ফেরত পাঠানো হয়েছে। 

মাল্টায় বাংলাদেশের স্থায়ী দূতাবাস নেই, তবে বাংলাদেশ দূতাবাস এথেন্স, গ্রিস ও মাল্টায় বাংলাদেশিদের কনস্যুলার সেবা এবং দ্বিপক্ষীয় কূটনৈতিক বিভিন্ন বিষয় দেখে থাকেন। ৪৪ জন বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর ব্যাপারে দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০১৭ সালের ইউরোপীয় ইউনিয়ন আর বাংলাদেশ সরকারের মাঝে হওয়া চুক্তি অনুযায়ী সব ধরনের আইনি প্রক্রিয়া শেষে ৪৪ জন বাংলাদেশিকে দেশে পাঠানো হয়েছে। 

অবৈধ অভিবাসীদের ফেরত নিতে ২০১৬ সালে ঢাকায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল ক্রিশ্চিয়ানলেফরারের নেতৃত্বে প্রতিনিধিরা সে সময় বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কার্যালয়ে ইইউ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ওই সময় সাংবাদিকদের বলেন, প্রতিনিধি দল আমাকে জানিয়েছে যে, ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোতে মোট আড়াই লাখ বাংলাদেশি বসবাস করছেন। 

উল্লেখ্য, আইনি প্রক্রিয়া শেষে বাংলাদেশ ছাড়াও দক্ষিণ এশীয় বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। তাই এটা শুধু বাংলাদেশি অভিবাসীদের ব্যাপারে একান্ত কোনো সিদ্ধান্ত নয়।