থাই রাজাকে অবমাননা করায় এক নারীর ৪৩ বছর কারাদণ্ড
jugantor
থাই রাজাকে অবমাননা করায় এক নারীর ৪৩ বছর কারাদণ্ড

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ জানুয়ারি ২০২১, ১০:০৭:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

থাইল্যান্ডের রাজাকে অবমাননার দায়ে এক নারীকে ৪৩ বছর ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে রাজাকে অবমাননা করে ভিডিও পোস্ট করায় এনচান নামে ৬৩ বছর বয়সী সাবেক ওই সরকারি কর্মচারীকে এ শাস্তি দেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসির।

ওই নারীর বিরুদ্ধে ২৯টি অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে বলে আদালত দাবি করেছেন। রায় ঘোষণার পর এই দণ্ডের নিন্দা জানিয়েছে থাইল্যান্ডের বিভিন্ন মানবাধিকার গ্রুপ।

থাইল্যান্ডের রাজা অবমাননা আইনটি বিশ্বের সবচেয়ে কঠোর আইন হিসেবে পরিচিত। ঠিক কোন কোন বিষয় অবমাননাকর বিবেচিত হবেন, বিতর্কিত ওই আইনে তা সুনির্দিষ্ট করা হয়নি।

থাই রাজতন্ত্রে যা কিছুই রাজা, রানি, উত্তরাধিকারী কিংবা শাসকের বিরোধিতা হিসেবে চিহ্নিত হয়, তার কারণেই নাগরিকদের সাজা হওয়ার সুযোগ আছে।

থাই আদালত প্রাথমিকভাবে তাকে ৮৭ বছরের কারাদণ্ড দেন। পরে অপরাধ স্বীকার করে নেওয়ায় দণ্ড অর্ধেক কমিয়ে দেওয়া হয়। তার মামলাটি প্রায় ছয় বছরের পুরনো।

থাই রাজাকে অবমাননা করায় এক নারীর ৪৩ বছর কারাদণ্ড

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ জানুয়ারি ২০২১, ১০:০৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

থাইল্যান্ডের রাজাকে অবমাননার দায়ে এক নারীকে ৪৩ বছর ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও ইউটিউবে রাজাকে অবমাননা করে ভিডিও পোস্ট করায় এনচান নামে ৬৩ বছর বয়সী সাবেক ওই সরকারি কর্মচারীকে এ শাস্তি দেওয়া হয়েছে। খবর বিবিসির।

ওই নারীর বিরুদ্ধে ২৯টি অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে বলে আদালত দাবি করেছেন। রায় ঘোষণার পর এই দণ্ডের নিন্দা জানিয়েছে থাইল্যান্ডের বিভিন্ন মানবাধিকার গ্রুপ।  

থাইল্যান্ডের রাজা অবমাননা আইনটি বিশ্বের সবচেয়ে কঠোর আইন হিসেবে পরিচিত। ঠিক কোন কোন বিষয় অবমাননাকর বিবেচিত হবেন, বিতর্কিত ওই আইনে তা সুনির্দিষ্ট করা হয়নি।

থাই রাজতন্ত্রে যা কিছুই রাজা, রানি, উত্তরাধিকারী কিংবা শাসকের বিরোধিতা হিসেবে চিহ্নিত হয়, তার কারণেই নাগরিকদের সাজা হওয়ার সুযোগ আছে।

থাই আদালত প্রাথমিকভাবে তাকে ৮৭ বছরের কারাদণ্ড দেন। পরে অপরাধ স্বীকার করে নেওয়ায় দণ্ড অর্ধেক কমিয়ে দেওয়া হয়। তার মামলাটি প্রায় ছয় বছরের পুরনো।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন