ডেনমার্কে তুর্কি মসজিদে আপত্তিকর লেখা নিয়ে উত্তেজনা
jugantor
ডেনমার্কে তুর্কি মসজিদে আপত্তিকর লেখা নিয়ে উত্তেজনা

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৪ জানুয়ারি ২০২১, ২২:১৯:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

ডেনমার্কে তুর্কি মসজিদের আপত্তিকর লেখা নিয়ে উত্তেজনা

ডেনমার্ক-জার্মানি সীমান্তে তুর্কি একটি মসজিদের দেওয়ালে আপত্তিকর লেখা লিখেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার ফ্যাসিলিটি বিভাগের কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। খবর আনাদোলু ও ডেইলি সাবাহর।

মসজিদের অ্যাসোসিয়েশন প্রেসিডেন্ট হুরসিত টোকা জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি আবেনরা মসজিদে নামাজ পড়তে আসেন।

কিন্তু পরদিন শনিবার সকালে তিনি মসজিদে গিয়ে দেওয়ালে পবিত্র কুরআন শরিফ সম্পর্কে আপত্তিকর লেখা দেখতে পান।

মসজিদটি পরিচালিত হয় ড্যানিশ তার্কিশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অধীনে।

করোনাভাইরাসের কারণে মসজিদটি আংশিক বন্ধ রয়েছে। মসজিদ কর্তৃপক্ষ দেওয়ালে এ ধরনের আপত্তিকর লেখা সম্পর্কে পুলিশকে অবহিত করেছে।

পুলিশ ওই এলাকার সারভাইল্যান্স ক্যামেরা পরীক্ষা ও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

হুরসিত এ ঘটনার নিন্দা জানান এবং ওই আপত্তিকর লেখা মুছে ফেলা হয়েছে বলে জানান।

ডেনমার্কের চরমপন্থী খ্রিস্টানরা প্রায়ই কোরআন পোড়ানোসহ বিভিন্ন বর্ণবাদী আচরণ করে থাকে।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানসহ বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম নেতারা দেশটির এমন ইসলাম বিদ্বেষের নিন্দা জানিয়ে আসছেন।

উত্তর-পশ্চিম ইউরোপের দেশ ডেনমার্কে সংখ্যার দিক দিয়ে মুসলমানরা সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সংখ্যালঘু।

ডেনমার্কে তুর্কি মসজিদে আপত্তিকর লেখা নিয়ে উত্তেজনা

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ডেনমার্কে তুর্কি মসজিদের আপত্তিকর লেখা নিয়ে উত্তেজনা
ছবি: ডেইলি সাবাহ

ডেনমার্ক-জার্মানি সীমান্তে তুর্কি একটি মসজিদের দেওয়ালে আপত্তিকর লেখা লিখেছে দুর্বৃত্তরা। 

রোববার ফ্যাসিলিটি বিভাগের কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। খবর আনাদোলু ও ডেইলি সাবাহর। 

মসজিদের অ্যাসোসিয়েশন প্রেসিডেন্ট হুরসিত টোকা জানান, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি আবেনরা মসজিদে নামাজ পড়তে আসেন। 

কিন্তু পরদিন শনিবার সকালে তিনি মসজিদে গিয়ে দেওয়ালে পবিত্র কুরআন শরিফ সম্পর্কে আপত্তিকর লেখা দেখতে পান। 

মসজিদটি পরিচালিত হয় ড্যানিশ তার্কিশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অধীনে। 

করোনাভাইরাসের কারণে মসজিদটি আংশিক বন্ধ রয়েছে। মসজিদ কর্তৃপক্ষ দেওয়ালে এ ধরনের আপত্তিকর লেখা সম্পর্কে পুলিশকে অবহিত করেছে। 

পুলিশ ওই এলাকার সারভাইল্যান্স ক্যামেরা পরীক্ষা ও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। 

হুরসিত এ ঘটনার নিন্দা জানান এবং ওই আপত্তিকর লেখা মুছে ফেলা হয়েছে বলে জানান। 

ডেনমার্কের চরমপন্থী খ্রিস্টানরা প্রায়ই কোরআন পোড়ানোসহ বিভিন্ন বর্ণবাদী আচরণ করে থাকে। 

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানসহ বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম নেতারা দেশটির এমন ইসলাম বিদ্বেষের নিন্দা জানিয়ে আসছেন। 

উত্তর-পশ্চিম ইউরোপের দেশ ডেনমার্কে সংখ্যার দিক দিয়ে মুসলমানরা সবচেয়ে বড় ধর্মীয় সংখ্যালঘু।