নাভালনির সমর্থকদের ‘সন্ত্রাসী’ বললেন পুতিন
jugantor
নাভালনির সমর্থকদের ‘সন্ত্রাসী’ বললেন পুতিন

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:১১:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

নাভালনির সমর্থকদের ‘সন্ত্রাসী’ বললেন পুতিন

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার দেশের বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভের আয়োজকদের ‘সন্ত্রাসী’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বিক্ষোভকে অবৈধ বলে আখ্যা দিয়েছেন। খবর আলজাজিরার।

শনিবার রাজধানী মস্কোসহ রাশিয়ার বেশ কয়েকটি শহরে একযোগে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এই বিক্ষোভ থেকে তিন হাজার ৫০০ বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়। নাভালনির স্ত্রীকে আটকের পর ছেড়ে দেওয়া হয়। এ নিয়ে পুতিন সরকারের সমালোচনা চলছে পশ্চিমা বিশ্বে।

পুতিন সোমবার তার দফতর থেকে অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপচারিতায় বিক্ষোভ আয়োজনকে ‘বেআইনি’ উল্লেখ করে বলেন, আয়োজকরা ছিল ‘এমন সন্ত্রাসী’ যারা নারী ও শিশুদের সামনে এগিয়ে দিয়েছিল।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, আইনের আওতায় কথা বলার অধিকার সবার আছে। কিন্তু ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে’ আইন লঙ্ঘন শুধু ‘অগঠনমূলকই’ নয়, ‘বিপজ্জনকও’ বটে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশে ইতিহাসে এমন ঘটনা বহু ঘটেছে যে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে।

‘কাউকে অন্যায়ভাবে তার রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির সুযোগ দেওয়া হবে না। রাজনীতির মাঠ বিক্ষোভকারীদের জন্য ছেড়ে দেওয়া হবে না।’

রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনিকে গত সপ্তাহে জার্মানি থেকে মস্কোয় ফেরার সঙ্গে সঙ্গে বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়। তার মুক্তির দাবিতে শনিবার দেশজুড়ে বিক্ষোভ হয়। এতে ব্যাপক দমনপীড়ন চালায় রুশ সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

নাভালনির সমর্থকদের ‘সন্ত্রাসী’ বললেন পুতিন

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ জানুয়ারি ২০২১, ০১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাভালনির সমর্থকদের ‘সন্ত্রাসী’ বললেন পুতিন
ভ্লাদিমির পুতিন। ফাইল ছবি

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তার দেশের বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভের আয়োজকদের ‘সন্ত্রাসী’ বলে আখ্যায়িত করেছেন।  তিনি বিক্ষোভকে অবৈধ বলে আখ্যা দিয়েছেন। খবর আলজাজিরার।

শনিবার রাজধানী মস্কোসহ রাশিয়ার বেশ কয়েকটি শহরে একযোগে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এই বিক্ষোভ থেকে তিন হাজার ৫০০ বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়। নাভালনির স্ত্রীকে আটকের পর ছেড়ে দেওয়া হয়। এ নিয়ে পুতিন সরকারের সমালোচনা চলছে পশ্চিমা বিশ্বে।

পুতিন সোমবার তার দফতর থেকে অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলাপচারিতায় বিক্ষোভ আয়োজনকে ‘বেআইনি’ উল্লেখ করে বলেন, আয়োজকরা ছিল ‘এমন সন্ত্রাসী’ যারা নারী ও শিশুদের সামনে এগিয়ে দিয়েছিল।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, আইনের আওতায় কথা বলার অধিকার সবার আছে। কিন্তু ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে’ আইন লঙ্ঘন শুধু ‘অগঠনমূলকই’ নয়, ‘বিপজ্জনকও’ বটে।  

তিনি বলেন, আমাদের দেশে ইতিহাসে এমন ঘটনা বহু ঘটেছে যে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সরকার সব ধরনের ব্যবস্থা নেবে।

‘কাউকে অন্যায়ভাবে তার রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির সুযোগ দেওয়া হবে না।  রাজনীতির মাঠ বিক্ষোভকারীদের জন্য ছেড়ে দেওয়া হবে না।’ 

রাশিয়ার বিরোধী নেতা নাভালনিকে গত সপ্তাহে জার্মানি থেকে মস্কোয় ফেরার সঙ্গে সঙ্গে বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়। তার মুক্তির দাবিতে শনিবার দেশজুড়ে বিক্ষোভ হয়। এতে ব্যাপক দমনপীড়ন চালায় রুশ সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।