লাল কেল্লায় পতাকা ওড়ানো সেই লোক বিজেপি কর্মী!
jugantor
লাল কেল্লায় পতাকা ওড়ানো সেই লোক বিজেপি কর্মী!

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:৪৭:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

লাল কেল্লায় পতাকা ওড়ানো সেই লোক বিজেপি কর্মী!

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভে ঐতিহাসিক লাল কেল্লায় শিখ ধর্মের প্রতীক খালসা পতাকা ওড়ানো ব্যক্তি বিজেপি কর্মী বলে দাবি করেছেন কৃষক নেতারা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ওই লোকের ছবি রয়েছে বলেও দাবি করেছেন তারা। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

লালকেল্লায় ওই কাণ্ডের নেপথ্যে যে পাঞ্জাবি সমাজকর্মী আছেন, তার নাম দীপ সিধু। কৃষক নেতাদের দেয়া তথ্যমতে, তিনি সরাসরি ক্ষমতাসীন বিজেপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের মুখপাত্র রাকেশ তিকাইত বলেন, দীপ সিধু শিখ নয়, সে বিজেপির কর্মী। মোদির সঙ্গে সিধুর ছবিও রয়েছে। এটা চাষীদের আন্দোলন, সেটিই থাকবে। যারা অশান্তি করেছে তারা আন্দোলনের অংশ কখনো ছিল না।

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, প্রথমে পাঞ্জাব-হরিয়ানার শম্ভু সীমান্তে প্রতিবাদ করেন দীপ সিধু। তারপর বিগত কয়েকদিন ধরে দিল্লির সিন্ধু সীমান্তে অবস্থান করেছেন এই অভিনেতা।

তার প্রতিবাদ সভায় অনেক সময় খালিস্তানপন্থীরা অংশ নিয়েছে বলে বারবার অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে হাজার হাজার কৃষক পায়ে হেঁটে এবং ট্রাক্টর চালিয়ে শহরে প্রবেশ করেন।

কয়েকটি জায়গায় কৃষকরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে এবং তাদের জন্য নির্ধারিত রুটে না গিয়ে অন্যদিকে এগিয়ে যায়।

বিক্ষোভরত কৃষকরা পুলিশের লাঠি আর কাঁদানে গ্যাস উপেক্ষা করেই ঢুকে পড়েছে দিল্লির প্রাণকেন্দ্রে এবং ঐতিহাসিক লাল কেল্লায়। সেখানে তারা উড়িয়ে দিয়েছেন শিখ ধর্মের প্রতীক খালসা পতাকা।

তাদের কার্যকলাপকে সমর্থন করেননি ৪১টি কৃষক ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা।আন্দোলনকারী কৃষকদের শান্ত থাকার আবেদন জানিয়ে মঙ্গলবারই তারা একটি বিবৃতি প্রকাশ করেন।

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ফের দিল্লির সংসদ ভবন অভিযান হবে বলেও জানিয়েছে সংগঠনটি।


লাল কেল্লায় পতাকা ওড়ানো সেই লোক বিজেপি কর্মী!

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৫:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লাল কেল্লায় পতাকা ওড়ানো সেই লোক বিজেপি কর্মী!
ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভে ঐতিহাসিক লাল কেল্লায় শিখ ধর্মের প্রতীক খালসা পতাকা ওড়ানো ব্যক্তি বিজেপি কর্মী বলে দাবি করেছেন কৃষক নেতারা।  

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে ওই লোকের ছবি রয়েছে বলেও দাবি করেছেন তারা।  খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।  

লালকেল্লায় ওই কাণ্ডের নেপথ্যে যে পাঞ্জাবি সমাজকর্মী আছেন, তার নাম দীপ সিধু।  কৃষক নেতাদের দেয়া তথ্যমতে, তিনি সরাসরি ক্ষমতাসীন বিজেপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।  

ভারতীয় কিষান ইউনিয়নের মুখপাত্র রাকেশ তিকাইত বলেন, দীপ সিধু শিখ নয়, সে বিজেপির কর্মী। মোদির সঙ্গে সিধুর ছবিও রয়েছে। এটা চাষীদের আন্দোলন, সেটিই থাকবে। যারা অশান্তি করেছে তারা আন্দোলনের অংশ কখনো ছিল না। 

হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, প্রথমে পাঞ্জাব-হরিয়ানার শম্ভু সীমান্তে প্রতিবাদ করেন দীপ সিধু। তারপর বিগত কয়েকদিন ধরে দিল্লির সিন্ধু সীমান্তে অবস্থান করেছেন এই অভিনেতা। 

তার প্রতিবাদ সভায় অনেক সময় খালিস্তানপন্থীরা অংশ নিয়েছে বলে বারবার অভিযোগ উঠেছে। 

মঙ্গলবার ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে হাজার হাজার কৃষক পায়ে হেঁটে এবং ট্রাক্টর চালিয়ে শহরে প্রবেশ করেন।

কয়েকটি জায়গায় কৃষকরা পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে এবং তাদের জন্য নির্ধারিত রুটে না গিয়ে অন্যদিকে এগিয়ে যায়।

বিক্ষোভরত কৃষকরা পুলিশের লাঠি আর কাঁদানে গ্যাস উপেক্ষা করেই ঢুকে পড়েছে দিল্লির প্রাণকেন্দ্রে এবং ঐতিহাসিক লাল কেল্লায়। সেখানে তারা উড়িয়ে দিয়েছেন শিখ ধর্মের প্রতীক খালসা পতাকা।

তাদের কার্যকলাপকে সমর্থন করেননি ৪১টি কৃষক ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। আন্দোলনকারী কৃষকদের শান্ত থাকার আবেদন জানিয়ে মঙ্গলবারই তারা একটি বিবৃতি প্রকাশ করেন। 

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি ফের দিল্লির সংসদ ভবন অভিযান হবে বলেও জানিয়েছে সংগঠনটি।


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতে কৃষক আন্দোলন