ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন না বাইডেন
jugantor
ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন না বাইডেন

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৯:৩৩:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ওপর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জারি করা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন না বলে জানিয়েছেন বর্তমন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

রোববার তিনি মার্কিন গণমাধ্যম সিবিএস নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন। বাইডেন বলেন, ২০১৫ সালে সম্পাদিত পরমাণু সমঝোতার সব শর্ত পূরণ করলে তবেই যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবে। খবর সিবিএস নিউজের।

ট্রাম্প ২০১৮ সালে একতরফাভাবে ওই চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে গেলে ইরান এর শর্ত মানা বন্ধ করে দেয়।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিলে ইরান পরমাণু সমঝোতায় দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো পূর্ণভাবে মানা শুরু করবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

রোববার ইরানের বিমানবাহিনী ও অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ও পাইলটদের এক সমাবেশে তিনি এ ঘোষণা দেন বলে ইরনা জানিয়েছে।

খামেনি বলেন, ইরান তখনই পরমাণু সমঝোতায় দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো পূর্ণভাবে মানতে শুরু করবে যখন যুক্তরাষ্ট্র মুখে বা কাগজে নয়; বরং বাস্তবে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেবে। এটিই ইরানের চূড়ান্ত ও অলঙ্ঘনীয় নীতি। এ বিষয়ে দেশের সব কর্মকর্তা একমত। কেউ এই নীতি লঙ্ঘন করবে না।

পরমাণু সমঝোতা ও নিষেধাজ্ঞা নিয়ে মার্কিন ও ইউরোপীয় নেতাদের প্রতি ইঙ্গিত করে খামেনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বা ইউরোপ কোনো ধরনের শর্তারোপের অধিকার রাখে না। কারণ তারা পরমাণু সমঝোতায় প্রতিশ্রুতি দিয়ে সেগুলো লঙ্ঘন করেছেন।

এখন যে পক্ষ শর্তারোপ করতে পারে সেটি হলো ইরান। কারণ ইরান প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা করেছে।

এদিকে তেল নিষেধাজ্ঞাসহ বড় ধরনের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাগুলো তুলে না নিয়ে তেহরানের ওপর আর্থিক চাপ কমিয়ে আনার উপায় নিয়ে ভাবছে বাইডেন প্রশাসন।

ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন না বাইডেন

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৯:৩৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরানের ওপর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জারি করা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবেন না বলে জানিয়েছেন বর্তমন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

রোববার তিনি মার্কিন গণমাধ্যম সিবিএস নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন। বাইডেন বলেন, ২০১৫ সালে সম্পাদিত পরমাণু সমঝোতার সব শর্ত পূরণ করলে তবেই যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবে। খবর সিবিএস নিউজের।

ট্রাম্প ২০১৮ সালে একতরফাভাবে ওই চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে গেলে ইরান এর শর্ত মানা বন্ধ করে দেয়।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নিলে ইরান পরমাণু সমঝোতায় দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো পূর্ণভাবে মানা শুরু করবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

রোববার ইরানের বিমানবাহিনী ও অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ও পাইলটদের এক সমাবেশে তিনি এ ঘোষণা দেন বলে ইরনা জানিয়েছে।

খামেনি বলেন, ইরান তখনই পরমাণু সমঝোতায় দেওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো পূর্ণভাবে মানতে শুরু করবে যখন যুক্তরাষ্ট্র মুখে বা কাগজে নয়; বরং বাস্তবে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেবে। এটিই ইরানের চূড়ান্ত ও অলঙ্ঘনীয় নীতি। এ বিষয়ে দেশের সব কর্মকর্তা একমত। কেউ এই নীতি লঙ্ঘন করবে না।
 
পরমাণু সমঝোতা ও নিষেধাজ্ঞা নিয়ে মার্কিন ও ইউরোপীয় নেতাদের প্রতি ইঙ্গিত করে খামেনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বা ইউরোপ কোনো ধরনের শর্তারোপের অধিকার রাখে না। কারণ তারা পরমাণু সমঝোতায় প্রতিশ্রুতি দিয়ে সেগুলো লঙ্ঘন করেছেন।

এখন যে পক্ষ শর্তারোপ করতে পারে সেটি হলো ইরান। কারণ ইরান প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রক্ষা করেছে।

এদিকে তেল নিষেধাজ্ঞাসহ বড় ধরনের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞাগুলো তুলে না নিয়ে তেহরানের ওপর আর্থিক চাপ কমিয়ে আনার উপায় নিয়ে ভাবছে বাইডেন প্রশাসন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট