ফিলিস্তিনে বিপুল অর্থ সহায়তা কমালো আমিরাত-বাহরাইন
jugantor
ফিলিস্তিনে বিপুল অর্থ সহায়তা কমালো আমিরাত-বাহরাইন

  অনলাইন ডেস্ক  

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৬:৫৬:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনে বিপুল অর্থ সহায়তা কমালো আমিরাত-বাহরাইন

ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ সহায়তা বিপুল পরিমাণে কমিয়ে দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন।

আল জাজিরা জানিয়েছে, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে প্রতিবছর জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থী সহায়তা সংস্থায় আমিরাত ৫ কোটি ১৮ লাখ ডলার অনুদান দিলেও ২০২০ সালে মাত্র ১০ লাখ ডলার দিয়েছে।

একইভাবে বাহরাইনও ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য সহযোগিতা কমিয়ে দিয়েছে বলে ইরনার খবরে বলা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের মধ্যস্ততায় ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে আরব আমিরাত। এরপরই জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের জন্য বরাদ্দ কমিয়ে দিয়েছে দেশটি।

১৯৪৮ সালে আরব-ইসরাইল যুদ্ধের সময় মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পালিয়ে যাওয়া ৫৭ লাখ নিবন্ধিত ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিয়ে আসছে জাতিসংঘের ইউএনআরডব্লিউএ।

সংস্থাটির অন্যতম দাতা দেশ হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে আমিরাত।

শুক্রবার ইউএনআরডব্লিউএ’র মুখপাত্র সামি মাসাশা জানান, ২০২১ আমিরাত মাত্র ১০ লাখ ডলার বরাদ্দ দিয়েছে। তবে ২০২১ সালে আবারও আগের বছরগুলোর মতো অনুদান দেবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য অর্থ সহায়তা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিলেন।

বর্তমানে প্রায় ৫০ লাখ ফিলিস্তিনি শরণার্থী হিসেবে জাতিসংঘে নিবন্ধিত। তাদের বেশিরভাগই বাস করে জর্ডান, গাজা ভূখণ্ড, পশ্চিমতীর, সিরিয়া, লেবানন এবং পূর্ব জেরুজালেমে। তাদের এক-তৃতীয়াংশ বসবাস করে শরণার্থী শিবিরগুলোয়।

ফিলিস্তিনে বিপুল অর্থ সহায়তা কমালো আমিরাত-বাহরাইন

 অনলাইন ডেস্ক 
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৪:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফিলিস্তিনে বিপুল অর্থ সহায়তা কমালো আমিরাত-বাহরাইন
ছবি: সংগৃহীত

ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ সহায়তা বিপুল পরিমাণে কমিয়ে দিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন।

আল জাজিরা জানিয়েছে, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে প্রতিবছর জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থী সহায়তা সংস্থায় আমিরাত ৫ কোটি ১৮ লাখ ডলার অনুদান দিলেও ২০২০ সালে মাত্র ১০ লাখ ডলার দিয়েছে। 

একইভাবে বাহরাইনও ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য সহযোগিতা কমিয়ে দিয়েছে বলে ইরনার খবরে বলা হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের মধ্যস্ততায় ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে আরব আমিরাত। এরপরই জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের জন্য বরাদ্দ কমিয়ে দিয়েছে দেশটি। 

১৯৪৮ সালে আরব-ইসরাইল যুদ্ধের সময় মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পালিয়ে যাওয়া ৫৭ লাখ নিবন্ধিত ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিয়ে আসছে জাতিসংঘের ইউএনআরডব্লিউএ। 

সংস্থাটির অন্যতম দাতা দেশ হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে আমিরাত। 

শুক্রবার ইউএনআরডব্লিউএ’র মুখপাত্র সামি মাসাশা জানান, ২০২১ আমিরাত মাত্র ১০ লাখ ডলার বরাদ্দ দিয়েছে। তবে ২০২১ সালে আবারও আগের বছরগুলোর মতো অনুদান দেবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে,  ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ফিলিস্তিনি উদ্বাস্তুদের জন্য অর্থ সহায়তা বন্ধের  ঘোষণা দিয়েছিলেন।

বর্তমানে প্রায় ৫০ লাখ ফিলিস্তিনি শরণার্থী হিসেবে জাতিসংঘে নিবন্ধিত। তাদের বেশিরভাগই বাস করে জর্ডান, গাজা ভূখণ্ড, পশ্চিমতীর, সিরিয়া, লেবানন এবং পূর্ব জেরুজালেমে। তাদের এক-তৃতীয়াংশ বসবাস করে শরণার্থী শিবিরগুলোয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আরব আমিরাত-ইসরাইল সম্পর্ক