ইতালিতে আগ্নেগিরির ভয়ংকর অগ্ন্যুৎপাত (ভিডিও)
jugantor
ইতালিতে আগ্নেগিরির ভয়ংকর অগ্ন্যুৎপাত (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক  

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৭:০২:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

ইতালিতে আগ্নেগিরির অগ্ন্যুৎপাত

ইতালিতে মাউন্ট এটনা নামে সক্রিয় একটিআগ্নেগিরিতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে এ আগ্নেগিরি থেকে লাভা বের হতে থাকে। এটি ইতালির দক্ষিণের সিসিলি শহরের কাতানিয়ায় অবস্থিত। এর উচ্চতা ৩ হাজার ৩৫০ মিটার। পৃথিবীর কয়েকটি সক্রিয় আগ্নেগিরির এটি একটি।

অগ্ন্যুৎপাতের পর থেকে আকাশে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। এর পর নিরাপত্তার স্বার্থে নিকটস্থ বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে কর্তৃপক্ষ কোনো হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতির কথা জানায়নি।

স্কাই নিউজ জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের পর কাটানিয়ার বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আকাশে এক কিলোমিটারের বেশি ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে।

দেশটির বেসামরিক সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের কারণে কোনো ঝুঁকির সম্ভাবনা নেই।

ইতালির কেন্দ্রীয় জরুরি বিভাগ জানিয়েছে, লিংগুয়াগ্লোসা, ফোরনাজো ও মিলো শহর থেকে এটি দেখা যাচ্ছে।

ভয়াবহতা থাকলেও সৌন্দর্যও কম নয় এর। স্থানীয় নাগরিকদের কাছে এটি সৌন্দর্যের আধার।

কাতানিয়া শহর থেকে বহু দূরে পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত এই আগ্নেয়গিরি। ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সক্রিয় এই আগ্নেয়গিরি দেখতে বহু পর্যটকের সমাগম ঘটে। গ্রীষ্মকালে পর্যটকদের কাছাকাছি যাতায়াত বন্ধ থাকলেও, শীতকালে খুলে দেয়া হয়।

ইতালিতে তিনটি প্রধান সক্রিয় আগ্নেয়গিরির মধ্যে এটি অন্যতম। প্রায় ১০ হাজার ফুট উঁচু এই আগ্নেয়গিরি। এটি আফ্রিকা প্লেট ও ইউরোশিয়া প্লেটের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। ২০১৩ সালে ইউনেস্কো এটিকে বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের স্বীকৃতি দিয়েছে।

ইতালিতে আগ্নেগিরির ভয়ংকর অগ্ন্যুৎপাত (ভিডিও)

 অনলাইন ডেস্ক 
১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৫:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইতালিতে আগ্নেগিরির অগ্ন্যুৎপাত
মাউন্ট এটনা। ছবি: স্কাই নিউজ।

ইতালিতে মাউন্ট এটনা নামে সক্রিয় একটি আগ্নেগিরিতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে এ আগ্নেগিরি থেকে লাভা বের হতে থাকে। এটি ইতালির দক্ষিণের সিসিলি শহরের কাতানিয়ায় অবস্থিত।  এর উচ্চতা ৩ হাজার ৩৫০ মিটার।  পৃথিবীর কয়েকটি সক্রিয় আগ্নেগিরির এটি একটি।

অগ্ন্যুৎপাতের পর থেকে আকাশে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। এর পর নিরাপত্তার স্বার্থে নিকটস্থ বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে কর্তৃপক্ষ কোনো হতাহত বা ক্ষয়ক্ষতির কথা জানায়নি। 

স্কাই নিউজ জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের পর কাটানিয়ার বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আকাশে এক কিলোমিটারের বেশি ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়তে দেখা গেছে। 

দেশটির বেসামরিক সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের কারণে কোনো ঝুঁকির সম্ভাবনা নেই।

ইতালির কেন্দ্রীয় জরুরি বিভাগ জানিয়েছে, লিংগুয়াগ্লোসা, ফোরনাজো ও মিলো শহর থেকে এটি দেখা যাচ্ছে।  

ভয়াবহতা থাকলেও সৌন্দর্যও কম নয় এর। স্থানীয় নাগরিকদের কাছে এটি সৌন্দর্যের আধার।

কাতানিয়া শহর থেকে বহু দূরে পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত এই আগ্নেয়গিরি। ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সক্রিয় এই আগ্নেয়গিরি দেখতে বহু পর্যটকের সমাগম ঘটে। গ্রীষ্মকালে পর্যটকদের কাছাকাছি যাতায়াত বন্ধ থাকলেও, শীতকালে খুলে দেয়া হয়।

ইতালিতে তিনটি প্রধান সক্রিয় আগ্নেয়গিরির মধ্যে এটি অন্যতম। প্রায় ১০ হাজার ফুট উঁচু এই আগ্নেয়গিরি। এটি আফ্রিকা প্লেট ও ইউরোশিয়া প্লেটের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। ২০১৩ সালে ইউনেস্কো এটিকে বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের স্বীকৃতি দিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন