কলকাতায় পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
jugantor
কলকাতায় পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

  অনলাইন ডেস্ক  

২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২১:৩৯:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কলকাতায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

কলকাতায় যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। রাজ্য সরকারের উদ্যেগে দেশপ্রিয় পার্কে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর। অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এপর একুশে ফ্রেরুয়ারি নিয়ে কবিতা পাঠ করেন মুখ্যমন্ত্রী। একুশেই খেলা হোক। আমি থাকব গোলরক্ষক। দেখব, কার কত জোর, আমাদের হারায়! যদি জেলে পাঠিয়ে দেয়, তাহলে জেল থেকে আওয়াজ তুলব, জয় বাংলা, জয় বাংলা, জয় বাংলা। ভাষাই আমাকে শিখিয়েছে বাঘের মতো লড়তে, নেংটি ইঁদুরকে দেখে যেন ভয় না পাই।

পশ্চিমবঙ্গ-ভারত সীমান্তের বেনাপোল-পেট্রাপোলে দিনটি পালিত হয় নানা আয়োজনে। এখানে দুই দেশের ভাষাপ্রেমিকেরা আয়োজন করেন একুশের অনুষ্ঠান। পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুরের বালুরঘাট সীমান্তে এবং আলীপুরদুয়ারে দিনটি পালন করা হয়।

ভাষাসৈনিক বরকতের গ্রাম মুর্শিদাবাদের বাবলা গ্রামেও দিনটি পালিত হয় সাড়ম্বরে। সকালে অনুষ্ঠিত হয় প্রভাতফেরি। বিকালে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া ত্রিপুরা, বিহার, ঝাড়খন্ড, ওডিশা, ছত্রিশগড়সহ বিভিন্ন রাজ্যের বাংলাভাষী অঞ্চলে দিনটি পালিত হয়।

ভাষা আন্দোলনের ৬৯ বছর

কলকাতায় পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

 অনলাইন ডেস্ক 
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৯:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কলকাতায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
ছবি: সংগৃহীত

কলকাতায় যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। রাজ্য সরকারের উদ্যেগে দেশপ্রিয় পার্কে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তর।  অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এপর একুশে ফ্রেরুয়ারি নিয়ে কবিতা পাঠ করেন মুখ্যমন্ত্রী।  একুশেই খেলা হোক। আমি থাকব গোলরক্ষক। দেখব, কার কত জোর, আমাদের হারায়! যদি জেলে পাঠিয়ে দেয়, তাহলে জেল থেকে আওয়াজ তুলব, জয় বাংলা, জয় বাংলা, জয় বাংলা। ভাষাই আমাকে শিখিয়েছে বাঘের মতো লড়তে, নেংটি ইঁদুরকে দেখে যেন ভয় না পাই।

পশ্চিমবঙ্গ-ভারত সীমান্তের বেনাপোল-পেট্রাপোলে দিনটি পালিত হয় নানা আয়োজনে। এখানে দুই দেশের ভাষাপ্রেমিকেরা আয়োজন করেন একুশের অনুষ্ঠান। পশ্চিমবঙ্গের দিনাজপুরের বালুরঘাট সীমান্তে এবং আলীপুরদুয়ারে দিনটি পালন করা হয়।

ভাষাসৈনিক বরকতের গ্রাম মুর্শিদাবাদের বাবলা গ্রামেও দিনটি পালিত হয় সাড়ম্বরে। সকালে অনুষ্ঠিত হয় প্রভাতফেরি। বিকালে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া ত্রিপুরা, বিহার, ঝাড়খন্ড, ওডিশা, ছত্রিশগড়সহ বিভিন্ন রাজ্যের বাংলাভাষী অঞ্চলে দিনটি পালিত হয়।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ভাষা আন্দোলনের ৬৯ বছর