মাতৃভাষা দিবসে ফ্রান্সে প্রথম স্থায়ী শহিদ মিনার উদ্বোধন
jugantor
মাতৃভাষা দিবসে ফ্রান্সে প্রথম স্থায়ী শহিদ মিনার উদ্বোধন

  মোহা. আব্দুল মালেক হিমু, ফ্রান্স থেকে  

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৫৪:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ফ্রান্সে উদ্বোধন করা হলো ভাষা শহিদের স্মরণে স্থায়ী শহিদ মিনার। দক্ষিণ ফ্রান্সের পিংক সিটি খ্যাত তুলুজ শহরে রোববার স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় স্থায়ী শহিদ মিনারের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন শহরের মেয়র জন লুক মুদানক।

এ সময় মেয়র বলেন, এই ভাষা স্মৃতিস্তম্ভটি শুধু বাংলাদেশিদের নয়, এটি আমাদেরও। ভাষার জন্য বাংলাদেশিদের যে আত্মত্যাগ, তা পৃথিবীতে বিরল। এই স্মৃতিস্তম্ভটি স্থাপনের ফলে ফ্রান্স ও বাংলাদেশিদের মধ্যে সাংস্কৃতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হলো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শহিদ মিনারের উদ্যোক্তা তুলুজ বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিম, আয়েবা মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ, বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান, ফ্রান্স বাংলাদেশ ইকোনমি চেম্বারের পরিচালক জানা মার্টিনসহ স্থানীয় সিটি করপোরেশনের সহকারী মেয়ররা।

পরে প্রশাসনের বিশেষ অনুমতির মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শহিদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় ফ্রান্সের বাংলাদেশ দূতাবাস, তুলুজ সিটি করপোরেশন, বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন, আয়েবা, ফ্রান্স বাংলাদেশ ইকোনমি চেম্বার, বাংলাদেশি প্রবাসী খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন ও তুলুজ প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এছাড়াও সকাল ১০টায় ফ্রান্সের বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও অর্ধনমিতকরণ, দূতাবাসের আঙিনায় অস্থায়ী শহিদ মিনার স্থাপন করে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

মাতৃভাষা দিবসে ফ্রান্সে প্রথম স্থায়ী শহিদ মিনার উদ্বোধন

 মোহা. আব্দুল মালেক হিমু, ফ্রান্স থেকে 
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ফ্রান্সে উদ্বোধন করা হলো ভাষা শহিদের স্মরণে স্থায়ী শহিদ মিনার। দক্ষিণ ফ্রান্সের পিংক সিটি খ্যাত তুলুজ শহরে রোববার স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় স্থায়ী শহিদ মিনারের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন শহরের মেয়র জন লুক মুদানক। 

এ সময় মেয়র বলেন, এই ভাষা স্মৃতিস্তম্ভটি  শুধু বাংলাদেশিদের নয়, এটি আমাদেরও। ভাষার জন্য বাংলাদেশিদের যে আত্মত্যাগ, তা পৃথিবীতে বিরল। এই স্মৃতিস্তম্ভটি স্থাপনের ফলে ফ্রান্স ও বাংলাদেশিদের মধ্যে সাংস্কৃতিক সম্পর্ক আরও দৃঢ় হলো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শহিদ মিনারের উদ্যোক্তা তুলুজ বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফখরুল আকম সেলিম, আয়েবা মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ, বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর মাহবুবুর রহমান, ফ্রান্স বাংলাদেশ ইকোনমি চেম্বারের পরিচালক জানা মার্টিনসহ স্থানীয় সিটি করপোরেশনের সহকারী মেয়ররা।

পরে প্রশাসনের বিশেষ অনুমতির মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শহিদ বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় ফ্রান্সের বাংলাদেশ দূতাবাস, তুলুজ সিটি করপোরেশন, বাংলাদেশি কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন, আয়েবা, ফ্রান্স বাংলাদেশ ইকোনমি চেম্বার, বাংলাদেশি প্রবাসী খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশন ও তুলুজ প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এছাড়াও সকাল ১০টায় ফ্রান্সের বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও অর্ধনমিতকরণ, দূতাবাসের আঙিনায় অস্থায়ী শহিদ মিনার স্থাপন করে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।