জামিন পেলেন সেই দিশা রবি
jugantor
জামিন পেলেন সেই দিশা রবি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:০৩:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

জামিন পেলেন সেই দিশা রবি

কৃষক আন্দোলনকে কেন্দ্র করে গ্রেফতারের ১১ দিন পর জামিন পেলেন ভারতের নারী পরিবেশকর্মী দিশা রবি। মঙ্গলবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে তার জামিন আবেদন মঞ্জুর হয়েছে।

এদিন দিশার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে বিচারক বলেন, সামান্য এবং ভাসাভাসা প্রমাণ থাকার বিষয়টি বিবেচনা করে ২২ বছরের মেয়ের জামিনের অধিকার ভঙ্গ করার কোনো উপযুক্ত কারণ পেলাম না। যার অপরাধের কোনো ইতিহাস নেই।

দিল্লির কৃষক আন্দোলনের টুলকিট সংক্রান্ত মামলায় ১৩ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গালুরু থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল দিশা রবিকে। প্রাথমিকভাবে তাকে পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।

তারপর তিনদিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে কাটিয়েছিলেন। সোমবার তাকে একদিনের পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হয়েছিল।

সে সময় দিল্লি পুলিশের তরফে দাবি করা হয়েছিল, অপর দুই অভিযুক্ত শান্তনু মুকুল এবং নিকিতা জ্যাকবের মুখোমুখি বসিয়ে দিশাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, কৃষি আইনের বিরুদ্ধে গত তিন মাস ধরে বিক্ষোভরত কৃষকদের সহায়তার উদ্দেশ্যে একটি দলিল তৈরি এবং বিতরণ করেছেন তিনি।

খালিস্তানি আন্দোলনকারীদের তৈরি ওই টুলকিট সম্পাদনা করে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন দিশা।

পুলিশ বলছে, ‘প্রটেস্ট টুলকিট’ নামে পরিচিতি পাওয়া ওই দলিলটি তৈরি এবং বিতরণের পেছনের মূল ষড়যন্ত্রকারীদের অন্যতম হচ্ছেন দিশা রবি।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে এনডিটিভিকে দিশা বলেছেন, টুলকিট তিনি তৈরি করেননি। শুধু দুটি লাইন সম্পাদনা করেছিলেন।

জামিন পেলেন সেই দিশা রবি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৬:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
জামিন পেলেন সেই দিশা রবি
ছবি: হিন্দুস্তান টাইমস

কৃষক আন্দোলনকে কেন্দ্র করে গ্রেফতারের ১১ দিন পর জামিন পেলেন ভারতের নারী পরিবেশকর্মী দিশা রবি। মঙ্গলবার দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্টে তার জামিন আবেদন মঞ্জুর হয়েছে।

এদিন দিশার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে বিচারক বলেন, সামান্য এবং ভাসাভাসা প্রমাণ থাকার বিষয়টি বিবেচনা করে ২২ বছরের মেয়ের জামিনের অধিকার ভঙ্গ করার কোনো উপযুক্ত কারণ পেলাম না। যার অপরাধের কোনো ইতিহাস নেই।

দিল্লির কৃষক আন্দোলনের টুলকিট সংক্রান্ত মামলায় ১৩ ফেব্রুয়ারি বেঙ্গালুরু থেকে গ্রেফতার করা হয়েছিল দিশা রবিকে। প্রাথমিকভাবে তাকে পাঁচদিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। 

তারপর তিনদিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে কাটিয়েছিলেন। সোমবার তাকে একদিনের পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হয়েছিল। 

সে সময় দিল্লি পুলিশের তরফে দাবি করা হয়েছিল, অপর দুই অভিযুক্ত শান্তনু মুকুল এবং নিকিতা জ্যাকবের মুখোমুখি বসিয়ে দিশাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, কৃষি আইনের বিরুদ্ধে গত তিন মাস ধরে বিক্ষোভরত কৃষকদের সহায়তার উদ্দেশ্যে একটি দলিল তৈরি এবং বিতরণ করেছেন তিনি। 

খালিস্তানি আন্দোলনকারীদের তৈরি ওই টুলকিট সম্পাদনা করে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন দিশা।

পুলিশ বলছে, ‘প্রটেস্ট টুলকিট’ নামে পরিচিতি পাওয়া ওই দলিলটি তৈরি এবং বিতরণের পেছনের মূল ষড়যন্ত্রকারীদের অন্যতম হচ্ছেন দিশা রবি।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে এনডিটিভিকে দিশা বলেছেন, টুলকিট তিনি তৈরি করেননি। শুধু দুটি লাইন সম্পাদনা করেছিলেন।