মুসলিমবিরোধী আইনের প্রতিবাদ, পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব ফ্রান্সের
jugantor
মুসলিমবিরোধী আইনের প্রতিবাদ, পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব ফ্রান্সের

  অনলাইন ডেস্ক  

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৫২:০০  |  অনলাইন সংস্করণ

ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো ও পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি

ফ্রান্সে মুসলিমদের কঠোরভাবে দমন করতে নতুন আইন প্রণয়ন করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এই আইনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভি। এ ঘটনায় দেশটিতে থাকা পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে ফ্রান্স। খবর- ডন অনলাইনের।

এর আগে শনিবার প্রেসিডেন্ট আলভি বলেন, যখন আপনি দেখবেন কিছু আইন বৃহত্তর গোষ্ঠী থেকে কিছু মানুষকে বিচ্ছিন্ন করছে, তখন এটি বিপজ্জনক নজির।

বিশ্বনবীর ব্যঙচিত্র আঁকার বিষয়টি উদাহরণ হিসেবে টেনে তিনি বলেন, যখন আপনি মহানবীকে অপমান করবেন, তখন আপনি সব মুসলিমকে অপমান করেছেন।

এ সময় তিনি ফ্রান্সের রাজনৈতিক নেতাদের এসব আইন থেকে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানান।

গত বছরের অক্টোবরে ইসলামের বিশ্বনবীকে নিয়ে ব্যঙচিত্র প্রকাশ করে ফ্রান্সের এক শিক্ষক। সেই সময় ওই শিক্ষকের পক্ষে অবস্তান নেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো। এ সময় অন্যান্য মুসলিমদেশগুলোর মতো পাকিস্তানও প্রতিবাদ জানায়।

ফ্রান্সে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত নেই। তবে সেখানে চার্জ ডি'অ্যাপেয়ার্স রয়েছে। সোমবার ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেখানে প্রেসিডেন্ট আলভির বক্তব্যে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, দেশটির তাদের বিলটিতে কোনো বৈষম্য নেই।

মুসলিমবিরোধী আইনের প্রতিবাদ, পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব ফ্রান্সের

 অনলাইন ডেস্ক 
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৭:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো ও পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি
ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো ও পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। ছবি: সংগ্রহীত

ফ্রান্সে মুসলিমদের কঠোরভাবে দমন করতে নতুন আইন প্রণয়ন করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। এই আইনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভি।  এ ঘটনায় দেশটিতে থাকা পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে ফ্রান্স।  খবর- ডন অনলাইনের।

এর আগে শনিবার প্রেসিডেন্ট আলভি বলেন, যখন আপনি দেখবেন কিছু আইন বৃহত্তর গোষ্ঠী থেকে কিছু মানুষকে বিচ্ছিন্ন করছে, তখন এটি বিপজ্জনক নজির। 

বিশ্বনবীর ব্যঙচিত্র আঁকার বিষয়টি উদাহরণ হিসেবে টেনে তিনি বলেন, যখন আপনি মহানবীকে অপমান করবেন, তখন আপনি সব মুসলিমকে অপমান করেছেন।  

এ সময় তিনি ফ্রান্সের রাজনৈতিক নেতাদের এসব আইন থেকে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানান। 

গত বছরের অক্টোবরে ইসলামের বিশ্বনবীকে নিয়ে ব্যঙচিত্র প্রকাশ করে ফ্রান্সের এক শিক্ষক। সেই সময় ওই শিক্ষকের পক্ষে অবস্তান নেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁক্রো।  এ সময় অন্যান্য মুসলিমদেশগুলোর মতো পাকিস্তানও প্রতিবাদ জানায়।  

ফ্রান্সে পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত নেই। তবে সেখানে চার্জ ডি'অ্যাপেয়ার্স রয়েছে। সোমবার ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেখানে প্রেসিডেন্ট আলভির বক্তব্যে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। বলা হয়েছে, দেশটির তাদের বিলটিতে কোনো বৈষম্য নেই।