খাসোগির খুনিদের ব্যবহৃত বিমান জব্দ করলেন সৌদি যুবরাজ
jugantor
খাসোগির খুনিদের ব্যবহৃত বিমান জব্দ করলেন সৌদি যুবরাজ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৪:২০:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

খাসোগির খুনিদের ব্যবহৃত বিমান জব্দ করলেন সৌদি যুবরাজ

সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় খুনিরা যে দুটি প্রাইভেট বিমান ব্যবহার করেছে, তা জব্দ করে নিয়েছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। বুধবার আদালতের নথির বরাতে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন এমন খবর দিয়েছে।

চলতি বছরের শুরুতে কানাডায় একটি দেওয়ানি মামলার অংশ হিসেবে এসব নথি জমা দেওয়া হয়েছিল। মামলাটি করা হয়েছে সৌদির সাবেক গোয়েন্দা প্রধান সাদ আলসাবরির বিরুদ্ধে।

অতিগোপনীয় আখ্যায়িত করা এসব নথিতে সই করেছিলেন সৌদি আরবের একজন মন্ত্রী। এতে দেখা যায়, ২০১৭ সালের শেষ দিকে দেশটির ৪০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিল স্কাই প্রাইম এভিয়েশনের মালিকানা গ্রহণ করে।

আর ওই বিমান দুটি স্বত্বাধিকারী ছিল স্কাই প্রাইম এভিয়েশন। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত অ্যাগনেস কালামার্ড বলেন, গালফস্ট্রিম কর্পোরেটের বিমান দুটি স্কাই প্রাইম এভিয়েশন পরিচালনা করে। খাসোগি হত্যকারীদের ইস্তানবুলে আনা-নেওয়া করেছিল এই দুটি বিমান।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে খাসোগিকে নির্মমভাবে হত্যা করে খুনিরা এই বিমানে করে পালিয়ে যায়।

এর আগে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, খাসোগিকে যারা হত্যা করেছে, তারা সৌদি যুবরাজের নিয়ন্ত্রণাধীন কোম্পানির বিমানে সেদিন যাতায়াত করেছিল।

খাসোগি হত্যার সঙ্গে যুবরাজের আরেকটি সম্ভাব্য যোগসাজশের সূত্র বেরিয়ে এসেছে এই প্রতিবেদনে। তবে এ নিয়ে ওয়াশিংটনের সৌদি দূতাবাসের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

খাসোগির খুনিদের ব্যবহৃত বিমান জব্দ করলেন সৌদি যুবরাজ

 অনলাইন ডেস্ক 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০২:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খাসোগির খুনিদের ব্যবহৃত বিমান জব্দ করলেন সৌদি যুবরাজ
ছবি: সংগৃহীত

সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় খুনিরা যে দুটি প্রাইভেট বিমান ব্যবহার করেছে, তা জব্দ করে নিয়েছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। বুধবার আদালতের নথির বরাতে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন এমন খবর দিয়েছে।

চলতি বছরের শুরুতে কানাডায় একটি দেওয়ানি মামলার অংশ হিসেবে এসব নথি জমা দেওয়া হয়েছিল। মামলাটি করা হয়েছে সৌদির সাবেক গোয়েন্দা প্রধান সাদ আলসাবরির বিরুদ্ধে।

অতিগোপনীয় আখ্যায়িত করা এসব নথিতে সই করেছিলেন সৌদি আরবের একজন মন্ত্রী। এতে দেখা যায়, ২০১৭ সালের শেষ দিকে দেশটির ৪০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিল স্কাই প্রাইম এভিয়েশনের মালিকানা গ্রহণ করে।

আর ওই বিমান দুটি স্বত্বাধিকারী ছিল স্কাই প্রাইম এভিয়েশন। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত অ্যাগনেস কালামার্ড বলেন, গালফস্ট্রিম কর্পোরেটের বিমান দুটি স্কাই প্রাইম এভিয়েশন পরিচালনা করে। খাসোগি হত্যকারীদের ইস্তানবুলে আনা-নেওয়া করেছিল এই দুটি বিমান।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে খাসোগিকে নির্মমভাবে হত্যা করে খুনিরা এই বিমানে করে পালিয়ে যায়। 

এর আগে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, খাসোগিকে যারা হত্যা করেছে, তারা সৌদি যুবরাজের নিয়ন্ত্রণাধীন কোম্পানির বিমানে সেদিন যাতায়াত করেছিল।

খাসোগি হত্যার সঙ্গে যুবরাজের আরেকটি সম্ভাব্য যোগসাজশের সূত্র বেরিয়ে এসেছে এই প্রতিবেদনে। তবে এ নিয়ে ওয়াশিংটনের সৌদি দূতাবাসের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : সাংবাদিক জামাল খাসোগি নিখোঁজ