মুখোমুখি অবস্থানে তুরস্ক-ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব
jugantor
মুখোমুখি অবস্থানে তুরস্ক-ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব

  অনলাইন ডেস্ক  

০১ মার্চ ২০২১, ১৬:৩৮:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মুখোমুখি অবস্থানে তুরস্ক-ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব

কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র অবস্থান নিয়ে দেওয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র করে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে ইরান-তুরস্ক।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লুর একটি বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাতে তেহরানে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে। খবর আল জাজিরা ও ইরনার।

রোববার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটিতে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত দারিয়া উরুসকে তলব করে। এরপরই আঙ্কারায় নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূতকেও ডেকে পাঠিয়েছে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তুরস্কের কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র গেরিলারা ইরানের মাটিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লু এক বক্তব্যে দাবি করেছেন।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ইরান। একইসঙ্গে ইরাকে নিযুক্তি তুর্কি রাষ্ট্রদূতের এ সংক্রান্ত বক্তব্যকে অগ্রহণযোগ্য বলে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে তুর্কি সেনাবাহিনীর বিমান হামলার সমালোচনা করে বক্তব্য দেয়ায় ইরানি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে আঙ্কারা।

সম্প্রতি ইরাকের কুর্দিস্তান অঞ্চলের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ইরাকে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত ইরাজ মাসজেদি এ সমালোচনা করেন।

১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত পিকেকে তুরস্কের বিরুদ্ধে বিগত কয়েক দশক ধরে রক্তাক্ত হামলা চালিয়ে আসছে।

তুরস্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন পিকেকেকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসাবে তালিকাভুক্ত করেছে। ২০১৫ সালের জুলাই থেকে সশস্ত্র অভিযান শুরু করে তারা।

মুখোমুখি অবস্থানে তুরস্ক-ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব

 অনলাইন ডেস্ক 
০১ মার্চ ২০২১, ০৪:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মুখোমুখি অবস্থানে তুরস্ক-ইরান, পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব
ছবি: আল জাজিরা

কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র অবস্থান নিয়ে দেওয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র করে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে ইরান-তুরস্ক।  

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লুর একটি বক্তব্যের প্রতিবাদ জানাতে তেহরানে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করা হয়েছে। খবর আল জাজিরা ও ইরনার।   

রোববার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দেশটিতে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূত দারিয়া উরুসকে তলব করে। এরপরই আঙ্কারায় নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূতকেও ডেকে পাঠিয়েছে তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

তুরস্কের কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী পিকেকে’র গেরিলারা ইরানের মাটিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগ্লু এক বক্তব্যে দাবি করেছেন।   

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ইরান। একইসঙ্গে ইরাকে নিযুক্তি তুর্কি রাষ্ট্রদূতের এ সংক্রান্ত বক্তব্যকে অগ্রহণযোগ্য বলে উল্লেখ করা হয়।  

এদিকে ইরাকের উত্তরাঞ্চলে তুর্কি সেনাবাহিনীর বিমান হামলার সমালোচনা করে বক্তব্য দেয়ায় ইরানি রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে আঙ্কারা। 

সম্প্রতি ইরাকের কুর্দিস্তান অঞ্চলের একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ইরাকে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত ইরাজ মাসজেদি এ সমালোচনা করেন।

১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত পিকেকে তুরস্কের বিরুদ্ধে বিগত কয়েক দশক ধরে রক্তাক্ত হামলা চালিয়ে আসছে।

তুরস্ক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন পিকেকেকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসাবে তালিকাভুক্ত করেছে। ২০১৫ সালের জুলাই থেকে সশস্ত্র অভিযান শুরু করে তারা।
 

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন