পশ্চিমাদের সাবধান করল রাশিয়া
jugantor
পশ্চিমাদের সাবধান করল রাশিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

০৪ মার্চ ২০২১, ১১:২৫:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনিকে নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে পশ্চিমা দেশগুলোকে সতর্ক করে রাশিয়া।

বিরোধীদলীয় এ নেতাকে বিষপ্রয়োগের অভিযোগে রাশিয়ার কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। এর তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়ে মস্কো পশ্চিমা দেশগুলোকে বলেছে, আগুন নিয়ে খেলবেন না। খবর স্পুটনিকের।

নাভালনির বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন নতুন করে রাশিয়ার কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলে ওয়াশিংটন ও ব্রাসেলসের ওপর অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ তোলে ক্রেমলিন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক নাভালনির ওপর বিষপ্রয়োগ করা হয়েছিল গত বছরের ২০ আগস্ট। ফলে সাইবেরিয়া থেকে আকাশপথে মস্কো যাওয়ার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি।

তাকে মস্কোর একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে জার্মানিতে নেওয়া হয় চিকিৎসার জন্য। পরে জার্মান সরকার জানায়, নাভালনির ওপর নোভিচক গ্রুপের নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল। যদিও রাশিয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

গত ১৭ জানুয়ারি জার্মানি থেকে সুস্থ হয়ে মস্কোর শেরেমেতিয়েভো বিমানবন্দরে নামার পর ৪৪ বছর বয়সী নাভালনিকে আটক করে রুশ পুলিশ। পরে তাকে ৩০ দিনের আটকাদেশ দেয় রুশ কর্তৃপক্ষ। এর পর এক রায়ে নাভালনির আড়াই বছরের জেল হয়।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, আমরা মনে করি, এ ধরনের পদক্ষেপ সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য। কারণ ইতিমধ্যে ওয়াশিংটন ও ব্রাসেলসের সঙ্গে খারাপ সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ ক্ষতি তারা করে ফেলেছে।

দিমিত্রি পেসকভ নতুন এ নিষেধাজ্ঞাকে রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেন এবং এর উপযুক্ত প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রতিশ্রুতি দেন। অবশ্য ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে নির্দিষ্ট করে তিনি কিছু বলেননি।

পশ্চিমাদের সাবধান করল রাশিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
০৪ মার্চ ২০২১, ১১:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনিকে নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে পশ্চিমা দেশগুলোকে সতর্ক করে রাশিয়া।

বিরোধীদলীয় এ নেতাকে বিষপ্রয়োগের অভিযোগে রাশিয়ার কয়েকজন কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পশ্চিমা দেশগুলো। এর তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়ে মস্কো পশ্চিমা দেশগুলোকে বলেছে, আগুন নিয়ে খেলবেন না। খবর স্পুটনিকের।

নাভালনির বিষয়টি নিয়ে মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন নতুন করে রাশিয়ার কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করলে ওয়াশিংটন ও ব্রাসেলসের ওপর অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের অভিযোগ তোলে ক্রেমলিন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কঠোর সমালোচক নাভালনির ওপর বিষপ্রয়োগ করা হয়েছিল গত বছরের ২০ আগস্ট। ফলে সাইবেরিয়া থেকে আকাশপথে মস্কো যাওয়ার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি।

তাকে মস্কোর একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে জার্মানিতে নেওয়া হয় চিকিৎসার জন্য। পরে জার্মান সরকার জানায়, নাভালনির ওপর নোভিচক গ্রুপের নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল। যদিও রাশিয়া এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

গত ১৭ জানুয়ারি জার্মানি থেকে সুস্থ হয়ে মস্কোর শেরেমেতিয়েভো বিমানবন্দরে নামার পর ৪৪ বছর বয়সী নাভালনিকে আটক করে রুশ পুলিশ। পরে তাকে ৩০ দিনের আটকাদেশ দেয় রুশ কর্তৃপক্ষ। এর পর এক রায়ে নাভালনির আড়াই বছরের জেল হয়।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, আমরা মনে করি, এ ধরনের পদক্ষেপ সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য। কারণ ইতিমধ্যে ওয়াশিংটন ও ব্রাসেলসের সঙ্গে খারাপ সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ ক্ষতি তারা করে ফেলেছে।

দিমিত্রি পেসকভ নতুন এ নিষেধাজ্ঞাকে রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেন এবং এর উপযুক্ত প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রতিশ্রুতি দেন। অবশ্য ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে নির্দিষ্ট করে তিনি কিছু বলেননি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন