রাজকন্যা লতিফা জীবিত কিনা—প্রমাণ দেয়নি আমিরাত
jugantor
রাজকন্যা লতিফা জীবিত কিনা—প্রমাণ দেয়নি আমিরাত

  অনলাইন ডেস্ক  

০৫ মার্চ ২০২১, ১৯:৪৩:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজকন্যা লতিফা জীবিত কিনা—প্রমাণ দেয়নি আমিরাত

দুবাইয়ের রাজকন্যা শেখ লতিফা এখনো জীবিত আছেন—এমন কোনো প্রমাণ এখন পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছ থেকে পায়নি বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

সপ্তাহ দুয়েক আগে এ সংক্রান্ত তথ্যপ্রমাণ চাইলেও শুক্রবার পর্যন্ত তাদের কাছে কোনো জবাব আসেনি।

এর আগে বিবিসি ব্রোডকাস্টের প্রচার করা এক ভিডিওতে লতিফা বলেন, তিনি তার বাবার হাতে বন্দি এবং জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছেন।

পরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে তার খোঁজ চেয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার অফিস।

দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাখতুম সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী ও ভাইস-প্রেসিডেন্ট। ২০১৮ সালের মার্চে তার মেয়ে লতিফা পরিবার থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এরপর থেকে আর তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

জেনেভায় আরব আমিরাতের কূটনৈতিক মিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনের অফিস।

শুক্রবার ওএইচসিএইচআরের মুখপাত্র রুপার্ট কোলভিলি বলেন, এখানে আমিরাতের প্রতিনিধির সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। এ বিষয়ে আর কোনো বিশেষ অগ্রগতি হয়নি।

লতিফা জীবিত আছেন বলে কোনো প্রমাণ পেয়েছেন কিনা; প্রশ্নে তিনি বলেন, না এমন কোনো প্রমাণ মেলেনি।

রাজকন্যা লতিফা জীবিত কিনা—প্রমাণ দেয়নি আমিরাত

 অনলাইন ডেস্ক 
০৫ মার্চ ২০২১, ০৭:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রাজকন্যা লতিফা জীবিত কিনা—প্রমাণ দেয়নি আমিরাত
ছবি: সংগৃহীত

দুবাইয়ের রাজকন্যা শেখ লতিফা এখনো জীবিত আছেন—এমন কোনো প্রমাণ এখন পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছ থেকে পায়নি বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। 

সপ্তাহ দুয়েক আগে এ সংক্রান্ত তথ্যপ্রমাণ চাইলেও শুক্রবার পর্যন্ত তাদের কাছে কোনো জবাব আসেনি।

এর আগে বিবিসি ব্রোডকাস্টের প্রচার করা এক ভিডিওতে লতিফা বলেন, তিনি তার বাবার হাতে বন্দি এবং জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছেন। 

পরে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে তার খোঁজ চেয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার অফিস।  

দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাখতুম সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী ও ভাইস-প্রেসিডেন্ট। ২০১৮ সালের মার্চে তার মেয়ে লতিফা পরিবার থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এরপর থেকে আর তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

জেনেভায় আরব আমিরাতের কূটনৈতিক মিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনের অফিস।

শুক্রবার ওএইচসিএইচআরের মুখপাত্র রুপার্ট কোলভিলি বলেন, এখানে আমিরাতের প্রতিনিধির সঙ্গে আমরা কথা বলেছি। এ বিষয়ে আর কোনো বিশেষ অগ্রগতি হয়নি।

লতিফা জীবিত আছেন বলে কোনো প্রমাণ পেয়েছেন কিনা; প্রশ্নে তিনি বলেন, না এমন কোনো প্রমাণ মেলেনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন