নিষিদ্ধ মাছ আমদানির অভিযোগ চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে
jugantor
নিষিদ্ধ মাছ আমদানির অভিযোগ চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে

  কৌশলী ইমা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে  

০৫ মার্চ ২০২১, ২২:১৪:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে গোঁফযুক্ত-আঁশবিহীন নিষিদ্ধ মাছ আমদানি ও বিক্রয়ের অভিযোগে চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে নিউইয়র্কের একটি আদালতে।

২০১৯ সালের জুলাই মাসে নিউইয়র্কের বাজার থেকে ৭৬ হাজার পাউন্ড আমদানিকৃত নিষিদ্ধ গোঁফযুক্ত-আঁশবিহীন বোয়াল, পাবদা, মাগুর ও শিং মাছ তুলে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছিল ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচারের অধীনস্ত ফুড সেফটি অ্যান্ড ইন্সপেকশন সার্ভিস (এফএসআইএস)।

এ নির্দেশ অমান্য করে নানা কৌশলে এ জাতীয় মাছ আমদানি ও বিক্রয় করে আসছিলেন কতিপয় ব্যবসায়ী। এফএসআইএস দায়ের করা মামলায় চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

১৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশি মালিকানাধীন মাছ আমদানিকারক এশিয়া ফুড ডিস্ট্রিবিউশনের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ গঠন করা হয়। এরা হলেন- মাহমুদ চৌধুরী, বেলায়েত হোসেন, শাকিল আহমেদ ও ফিরোজ আহমেদ।

২০১৪ সাল থেকে এশিয়া ফুড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে মাছ আমদানি করে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে গ্রোসারিগুলোতে পাইকারি দরে সরবরাহ করছে।

নিষিদ্ধ মাছ আমদানির অভিযোগ চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে

 কৌশলী ইমা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে 
০৫ মার্চ ২০২১, ১০:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে গোঁফযুক্ত-আঁশবিহীন নিষিদ্ধ মাছ আমদানি ও বিক্রয়ের অভিযোগে চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছে নিউইয়র্কের একটি আদালতে।

২০১৯ সালের জুলাই মাসে নিউইয়র্কের বাজার থেকে ৭৬ হাজার পাউন্ড আমদানিকৃত নিষিদ্ধ গোঁফযুক্ত-আঁশবিহীন বোয়াল, পাবদা, মাগুর ও শিং মাছ তুলে নেয়ার নির্দেশ দিয়েছিল ইউনাইটেড স্টেটস ডিপার্টমেন্ট অব এগ্রিকালচারের অধীনস্ত ফুড সেফটি অ্যান্ড ইন্সপেকশন সার্ভিস (এফএসআইএস)।

এ নির্দেশ অমান্য করে নানা কৌশলে এ জাতীয় মাছ আমদানি ও বিক্রয় করে আসছিলেন কতিপয় ব্যবসায়ী। এফএসআইএস দায়ের করা মামলায় চার বাংলাদেশির বিরুদ্ধে এ অভিযোগ গঠন করেন আদালত।

১৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশি মালিকানাধীন মাছ আমদানিকারক এশিয়া ফুড ডিস্ট্রিবিউশনের চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ গঠন করা হয়। এরা হলেন- মাহমুদ চৌধুরী, বেলায়েত হোসেন, শাকিল আহমেদ ও ফিরোজ আহমেদ।

২০১৪ সাল থেকে এশিয়া ফুড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে মাছ আমদানি করে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে গ্রোসারিগুলোতে পাইকারি দরে সরবরাহ করছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন