সৌদির তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলে হুতিদের ড্রোন হামলা
jugantor
সৌদির তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলে হুতিদের ড্রোন হামলা

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ মার্চ ২০২১, ১৬:৪১:৪২  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদির তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলে হুতিদের ড্রোন হামলা

ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে সৌদি আরবের তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা।

দেশটির রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর পেট্রলিয়াম রপ্তানির প্রধান বন্দর রাস তানুরসহ আরও কয়েকটি সামরিক ঘাঁটিতেও হামলা চালানো হয়।

রোববারের এসব হামলাকে বৈশ্বিক জ্বালানি নিরাপত্তার ওপর চালানো ব্যর্থ হামলা বলে অভিহিত করেছে রিয়াদ। খবর রয়টার্সের।

হুতি বাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারিয়ী জানান, আরামকোর স্থাপনাগুলোর পাশাপাশি দাম্মাম, আসির ও জাজান শহরে সৌদি সামরিক লক্ষ্যস্থলগুলোতেও হামলা চালানো হয়েছে।

১৪টি ড্রোন ও আটটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে সৌদি আরবের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় এসব হামলা চালানো হয় বলে জানান তিনি।

সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ড্রোনগুলোকে লক্ষ্যে পৌঁছানোর আগেই বাধা দিয়ে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। দাহরানে সৌদি আরামকোর একটি আবাসিক এলাকার কাছে ধ্বংস হয়ে যাওয়া ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের টুকরো এসে পড়েছে।

এসব হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি এবং কোনো ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টি।

হুতিদের এসব হামলা প্রতিবেশী সৌদি আরবের জন্যও বিপত্তির কারণ হয়ে দেখা দেবে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে দেশটিতে প্রায়ই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে দেখা গেছে ইয়েমেনি বিদ্রোহীদের।

এর আগে ২০১৯ সালে একটি বড় ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে আরামকোর তেল স্থাপনাগুলোতে হামলা চালিয়েছিল হুতি বিদ্রোহীরা।

সৌদির তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলে হুতিদের ড্রোন হামলা

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ মার্চ ২০২১, ০৪:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সৌদির তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলে হুতিদের ড্রোন হামলা
ফাইল ছবি

ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে সৌদি আরবের তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা।

দেশটির রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি সৌদি আরামকোর পেট্রলিয়াম রপ্তানির প্রধান বন্দর রাস তানুরসহ আরও কয়েকটি সামরিক ঘাঁটিতেও হামলা চালানো হয়।

রোববারের এসব হামলাকে বৈশ্বিক জ্বালানি নিরাপত্তার ওপর চালানো ব্যর্থ হামলা বলে অভিহিত করেছে রিয়াদ। খবর রয়টার্সের। 

হুতি বাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারিয়ী জানান, আরামকোর স্থাপনাগুলোর পাশাপাশি দাম্মাম, আসির ও জাজান শহরে সৌদি সামরিক লক্ষ্যস্থলগুলোতেও হামলা চালানো হয়েছে।

১৪টি ড্রোন ও আটটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সাহায্যে সৌদি আরবের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় এসব হামলা চালানো হয় বলে জানান তিনি। 

সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ড্রোনগুলোকে লক্ষ্যে পৌঁছানোর আগেই বাধা দিয়ে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে। দাহরানে সৌদি আরামকোর একটি আবাসিক এলাকার কাছে ধ্বংস হয়ে যাওয়া ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের টুকরো এসে পড়েছে।     

এসব হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি এবং কোনো ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টি।

হুতিদের এসব হামলা প্রতিবেশী সৌদি আরবের জন্যও বিপত্তির কারণ হয়ে দেখা দেবে। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে দেশটিতে প্রায়ই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাতে দেখা গেছে ইয়েমেনি বিদ্রোহীদের। 

এর আগে ২০১৯ সালে একটি বড় ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন দিয়ে আরামকোর তেল স্থাপনাগুলোতে হামলা চালিয়েছিল হুতি বিদ্রোহীরা।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ইয়ামেনে সংঘাত