মাহমুদ আব্বাসের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়বেন ডাহলান
jugantor
মাহমুদ আব্বাসের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়বেন ডাহলান

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ মার্চ ২০২১, ১৫:১৫:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের নির্বাচনে মাহমুদ আব্বাসের বিরুদ্ধে লড়বেন গাজার সাবেক ফাতাহ নেতা মোহাম্মেদ ডাহলান।

মধ্যপ্রচ্যের টিভি চ্যানেল আল আরাবিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মোহাম্মেদ ডাহলান তার এ ইচ্ছার কথা জানান।

ডাহলান বলেন, আমি আমার দলের বড় ভাই বর্তমান প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে এটি নিশ্চিত করে বলতে চাই— আসন্ন নির্বাচনে তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে পারবেন না।

গাজায় মাহমুদ আব্বাসের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বেশ পরিচিত ডাহলান। এর আগে তিনি আরব আমিরাতে ছিলেন। এ জন্য তাকে অনেকেই আরব লীগ নেতাদের ঘনিষ্ঠ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

দীর্ঘ ১৫ বছর পর সম্প্রতি ফিলিস্তিনে জাতীয় নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

মাহমুদ আব্বাসের কার্যালয় থেকে এ ব্যাপারে একটি ডিক্রি জারি করে বলা হয়েছে, আগামী ২২ মে পার্লামেন্ট নির্বাচন এবং ৩১ জুলাই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে ২০০৬ সালে দেশটিতে পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই নির্বাচনে সবাইকে অবাক করে দিয়ে হামাস জয়ী হয়।

হামাসের ওই জয়ের পরই ২০০৭ সাল থেকে গাজা অবরোধ করে রাখে ইসরাইল।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের ডিক্রিতে বলা হয়, অধিকৃত পশ্চিমতীর, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেমসহ দেশটির সব এলাকায়ই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে ইসরাইল জেরুজালেমে নির্বাচনসহ ফিলিস্তিনিদের সব ধরনের তৎপরতা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

মাহমুদ আব্বাসের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়বেন ডাহলান

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ মার্চ ২০২১, ০৩:১৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের নির্বাচনে মাহমুদ আব্বাসের বিরুদ্ধে লড়বেন গাজার সাবেক ফাতাহ নেতা মোহাম্মেদ ডাহলান।

মধ্যপ্রচ্যের টিভি চ্যানেল আল আরাবিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মোহাম্মেদ ডাহলান তার এ ইচ্ছার কথা জানান।

ডাহলান বলেন, আমি আমার দলের বড় ভাই বর্তমান প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে এটি নিশ্চিত করে বলতে চাই— আসন্ন নির্বাচনে তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে পারবেন না।

গাজায় মাহমুদ আব্বাসের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বেশ পরিচিত ডাহলান। এর আগে তিনি আরব আমিরাতে ছিলেন। এ জন্য তাকে অনেকেই আরব লীগ নেতাদের ঘনিষ্ঠ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

দীর্ঘ ১৫ বছর পর সম্প্রতি ফিলিস্তিনে জাতীয় নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।

মাহমুদ আব্বাসের কার্যালয় থেকে এ ব্যাপারে একটি ডিক্রি জারি করে বলা হয়েছে, আগামী ২২ মে পার্লামেন্ট নির্বাচন এবং ৩১ জুলাই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে ২০০৬ সালে দেশটিতে পার্লামেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই নির্বাচনে সবাইকে অবাক করে দিয়ে হামাস জয়ী হয়।  
 
হামাসের ওই জয়ের পরই ২০০৭ সাল থেকে গাজা অবরোধ করে রাখে ইসরাইল।

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের ডিক্রিতে বলা হয়, অধিকৃত পশ্চিমতীর, গাজা ও পূর্ব জেরুজালেমসহ দেশটির সব এলাকায়ই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে ইসরাইল জেরুজালেমে নির্বাচনসহ ফিলিস্তিনিদের সব ধরনের তৎপরতা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ

আরও খবর