চিরনিদ্রায় শায়িত মসজিদুল হারামের অতিথি ইমাম শায়খ আলী সাবুনি
jugantor
চিরনিদ্রায় শায়িত মসজিদুল হারামের অতিথি ইমাম শায়খ আলী সাবুনি

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ মার্চ ২০২১, ১৯:৫৯:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চিরনিদ্রায় শায়িত মসজিদুল হারামের অতিথি ইমাম শায়খ আলী সাবুনি

সিরিয়ার বিখ্যাত আলেম ও তাফসিরবিশারদ শায়েখ মুহাম্মাদ আলী আস সাবুনির জানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবারইস্তাম্বুলের সুলতান মুহাম্মাদ ফাতেহ মসজিদ প্রাঙ্গণে জানাজার নামাজের পর তাকে সমাহিত করা হয়। এর আগেশুক্রবার (১৯ মার্চ) জুমার আগে তুরস্কের ইয়ালোভা শহরে ৯১ বছর বয়সে মারা যান বিশ্বখ্যাত এ আলেম।

১৯৩০ সালে সিরিয়ার হালাবে জন্মগ্রহণ করেন আলী আস সাবুনি। তার লিখিত সাফওয়াতুত তাফাসিরকে কোরআনে কারিমের অন্যতম শ্রেষ্ঠ তাফসির গ্রন্থ মনে করা হয়।

এছাড়া শরিয়াহ আইন, ফিকাহ ও তাফসিরসহ ইসলামী জ্ঞানের নানা বিষয়ে গভীর পাণ্ডিত্বের অধিকারী ছিলেন তিনি।

তিনি মক্কার উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শরিয়াহ বিষয়ে দীর্ঘ ২৮ বছর যাবত অধ্যাপনা করেন। এ সময় ১৩৮৫ হিজরির রমজান মাসে পবিত্র মসজিদুল হারামে তারাবি নামাজের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মিসরের বিখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামেয়া আজহার থেকে ১৯৫২ সালে শরিয়া ফ্যাকাল্টি থেকে অনার্স এবং ১৯৫৪ সালে ইসলামি বিচার ব্যবস্থার ওপর উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন এ আলেম।

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের কট্টরবিরোধী ছিলেন মুহাম্মাদ আলী আস সাবুনি। বাশার আল আসাদকে তিনি মিথ্যা নবী দাবিদার মুসায়লামাতুল কাযযাবের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন।

চিরনিদ্রায় শায়িত মসজিদুল হারামের অতিথি ইমাম শায়খ আলী সাবুনি

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ মার্চ ২০২১, ০৭:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
চিরনিদ্রায় শায়িত মসজিদুল হারামের অতিথি ইমাম শায়খ আলী সাবুনি
প্রখ্যাত তাফসিরবিশারদ শায়েখ মুহাম্মাদ আলী আস সাবুনি। ছবি: সংগৃহীত

সিরিয়ার বিখ্যাত আলেম ও তাফসিরবিশারদ শায়েখ মুহাম্মাদ আলী আস সাবুনির জানাজা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে। 

শনিবার ইস্তাম্বুলের সুলতান মুহাম্মাদ ফাতেহ মসজিদ প্রাঙ্গণে জানাজার নামাজের পর তাকে সমাহিত করা হয়। এর আগে শুক্রবার (১৯ মার্চ) জুমার আগে তুরস্কের ইয়ালোভা শহরে ৯১ বছর বয়সে মারা যান বিশ্বখ্যাত এ আলেম।

১৯৩০ সালে সিরিয়ার হালাবে জন্মগ্রহণ করেন আলী আস সাবুনি। তার লিখিত সাফওয়াতুত তাফাসিরকে কোরআনে কারিমের অন্যতম শ্রেষ্ঠ তাফসির গ্রন্থ মনে করা হয়।

এছাড়া শরিয়াহ আইন, ফিকাহ ও তাফসিরসহ ইসলামী জ্ঞানের নানা বিষয়ে গভীর পাণ্ডিত্বের অধিকারী ছিলেন তিনি।

তিনি মক্কার উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শরিয়াহ বিষয়ে দীর্ঘ ২৮ বছর যাবত অধ্যাপনা করেন। এ সময় ১৩৮৫ হিজরির রমজান মাসে পবিত্র মসজিদুল হারামে তারাবি নামাজের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। 

মিসরের বিখ্যাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জামেয়া আজহার থেকে ১৯৫২ সালে শরিয়া ফ্যাকাল্টি থেকে অনার্স এবং ১৯৫৪ সালে ইসলামি বিচার ব্যবস্থার ওপর উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন এ আলেম। 

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের কট্টরবিরোধী ছিলেন মুহাম্মাদ আলী আস সাবুনি। বাশার আল আসাদকে তিনি মিথ্যা নবী দাবিদার মুসায়লামাতুল কাযযাবের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন