যেসব দেশের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা
jugantor
যেসব দেশের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ এপ্রিল ২০২১, ১৮:৫৪:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ফিলিপাইন ও কেনিয়া থেকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আগামী সপ্তাহ থেকে কার্যকর হতে যাচ্ছে। করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের প্রাদুর্ভাবের পর এসব দেশকে ব্রিটেনের কালোতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

যেসব আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারী আগের দশদিন এসব দেশ থেকে কিংবা এসব দেশের মধ্য দিয়ে ভ্রমণ করবেন, তারা আগামী ৯ এপ্রিল থেকে ব্রিটেনে প্রবেশ করতে পারবেন না।

দেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।

ব্রিটিশ ও আইরিশ পাসপোর্টধারী কিংবা ব্রিটিশ অধিবাসীদের ক্ষেত্রে এই নির্দেশের ব্যতিক্রম হবে। কিন্তু সরকারি অনুমোদিত হোটেলে ১০ দিনের কোয়ারিন্টিনের জন্য তাদের অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

তাদের অবস্থানকালে দুটি করোনা পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। একটি পরীক্ষায় নেগিটিভ আসার অর্থ এই নয় যে তাদের কোয়ারিন্টিনের মেয়াদ কমিয়ে দেওয়া হবে।

ব্রিটিশ পরিবহন দফতর জানায়, করোনার দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনসহ বিভিন্ন ধরনের প্রকোপের ঝুঁকি রোধে এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

প্রায় ৪০টি দেশকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় রেখেছে ব্রিটেন। নিষেধাজ্ঞায় তালিকায় দেশগুলো:

মধ্যপ্রাচ্যে— ওমান, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত

আফ্রিকা— এঙ্গোলা, বতসোয়ানা, বুরুন্ডি, কেপ ভারডি, কঙ্গো, ইসোয়াতিনি, ইথিওপিয়া, লেসেথো, মালাউই, মোজাম্বিক, নামিবিয়া, রুয়ান্ডা, সিসিলিস, সোমালিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, তাঞ্জানিয়া, জাম্বিয়া ও জেম্বাবুয়ে

এশিয়া— বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ফিলিপাইন

দক্ষিণ আমেরিকা— আর্জেন্টিনা, বলিভিয়া, ব্রাজিল, চিলি, কলোম্বিয়া, ইকুয়েডর, ফ্রান্স, গিনি, গায়ানা, পানামা, প্যারাগুয়ে, পেরু, সুরিনাম, উরুগুয়ে ও ভেনিজুয়েলা।

কোনো বিশেষ কারণ ছাড়া এসব দেশের নাগরিকরা ব্রিটেনে প্রবেশ করতে পারবে না।

যেসব দেশের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ এপ্রিল ২০২১, ০৬:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ফিলিপাইন ও কেনিয়া থেকে যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আগামী সপ্তাহ থেকে কার্যকর হতে যাচ্ছে। করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের প্রাদুর্ভাবের পর এসব দেশকে ব্রিটেনের কালোতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

যেসব আন্তর্জাতিক ভ্রমণকারী আগের দশদিন এসব দেশ থেকে কিংবা এসব দেশের মধ্য দিয়ে ভ্রমণ করবেন, তারা আগামী ৯ এপ্রিল থেকে ব্রিটেনে প্রবেশ করতে পারবেন না।

দেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি এমন খবর দিয়েছে।

ব্রিটিশ ও আইরিশ পাসপোর্টধারী কিংবা ব্রিটিশ অধিবাসীদের ক্ষেত্রে এই নির্দেশের ব্যতিক্রম হবে। কিন্তু সরকারি অনুমোদিত হোটেলে ১০ দিনের কোয়ারিন্টিনের জন্য তাদের অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

তাদের অবস্থানকালে দুটি করোনা পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে। একটি পরীক্ষায় নেগিটিভ আসার অর্থ এই নয় যে তাদের কোয়ারিন্টিনের মেয়াদ কমিয়ে দেওয়া হবে।

ব্রিটিশ পরিবহন দফতর জানায়, করোনার দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনসহ বিভিন্ন ধরনের প্রকোপের ঝুঁকি রোধে এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

প্রায় ৪০টি দেশকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় রেখেছে ব্রিটেন। নিষেধাজ্ঞায় তালিকায় দেশগুলো: 

মধ্যপ্রাচ্যে— ওমান, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত

আফ্রিকা— এঙ্গোলা, বতসোয়ানা, বুরুন্ডি, কেপ ভারডি, কঙ্গো, ইসোয়াতিনি, ইথিওপিয়া, লেসেথো, মালাউই, মোজাম্বিক, নামিবিয়া, রুয়ান্ডা, সিসিলিস, সোমালিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, তাঞ্জানিয়া, জাম্বিয়া ও জেম্বাবুয়ে

এশিয়া— বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও ফিলিপাইন

দক্ষিণ আমেরিকা— আর্জেন্টিনা, বলিভিয়া, ব্রাজিল, চিলি, কলোম্বিয়া, ইকুয়েডর, ফ্রান্স, গিনি, গায়ানা, পানামা, প্যারাগুয়ে, পেরু, সুরিনাম, উরুগুয়ে ও ভেনিজুয়েলা।

কোনো বিশেষ কারণ ছাড়া এসব দেশের নাগরিকরা ব্রিটেনে প্রবেশ করতে পারবে না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও খবর