কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে’র গোপন ইউনিট বন্ধ করে দিল যুক্তরাষ্ট্র
jugantor
কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে’র গোপন ইউনিট বন্ধ করে দিল যুক্তরাষ্ট্র

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১০:১৬:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে বন্দিশিবিরের এক সময়ের গোপনীয় ইউনিট ‘ক্যাম্প সেভেন’ বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী। সেখান থেকে সব বন্দিকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপির খবরে বলা হয়, বন্দিশিবিরের ওই ইউনিটটি মেরামতের অভাবে বেহাল অবস্থায় ছিল। রোববার মার্কিন সামরিক বাহিনী জানায়, কিউবায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটির অন্য স্থাপনায় বন্দিদের রাখা হয়েছে।

কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই বন্দিদের স্থানান্তর শেষ হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর সাউথ কমান্ড জানায়, কারাগারের ব্যয় কমিয়ে আনার পাশাপাশি পরিচালনার দক্ষতা ও কার্যকারিতা বেড়েছে। এতে কারাগারের ইউনিট তিনটি থেকে কমিয়ে দুটি করা হয়েছে।

ক্যাম্প সেভেনের অবস্থান ও এর নির্মাণকালসহ বিভিন্ন তথ্যের বিস্তারিত প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়েছে পেন্টাগন।

এই ইউনিটটি পরিদর্শনে সাংবাদিকদেরও কোনোদিন সুযোগ দেওয়া হয়নি। আর আইনজীবীরা গোপন স্থানটিতে যেতে চাইলে তাদের আদালতের আদেশ নিতে হতো।

ক্যাম্প সেভেন সংস্কার না করায় অবকাঠামো সমস্যায় ছিল। পয়োনিষ্কাশনের নালা পানিতে ভেরে যেত। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হতো প্রায়ই। অর্থের বরাদ্দ না পাওয়ায় সংস্কারের আশাও ছেড়ে দেওয়া হয়।

তবে কতজন বন্দিকে এখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে তা বলা হয়নি। এর আগে কর্মকর্তারা সেখানে ১৪ বন্দি রয়েছেন বলে জানিয়েছেন। গুয়ান্তানামো বেতে বর্তমানে ৪০ বন্দি রয়েছেন।

কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে’র গোপন ইউনিট বন্ধ করে দিল যুক্তরাষ্ট্র

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ এপ্রিল ২০২১, ১০:১৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুখ্যাত গুয়ানতানামো বে বন্দিশিবিরের এক সময়ের গোপনীয় ইউনিট ‘ক্যাম্প সেভেন’ বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন সেনাবাহিনী। সেখান থেকে সব বন্দিকে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বার্তা সংস্থা এপির খবরে বলা হয়, বন্দিশিবিরের ওই ইউনিটটি মেরামতের অভাবে বেহাল অবস্থায় ছিল। রোববার মার্কিন সামরিক বাহিনী জানায়, কিউবায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটির অন্য স্থাপনায় বন্দিদের রাখা হয়েছে।

কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই বন্দিদের স্থানান্তর শেষ হয়েছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর সাউথ কমান্ড জানায়, কারাগারের ব্যয় কমিয়ে আনার পাশাপাশি পরিচালনার দক্ষতা ও কার্যকারিতা বেড়েছে। এতে কারাগারের ইউনিট তিনটি থেকে কমিয়ে দুটি করা হয়েছে।

ক্যাম্প সেভেনের অবস্থান ও এর নির্মাণকালসহ বিভিন্ন তথ্যের বিস্তারিত প্রকাশে অস্বীকৃতি জানিয়েছে পেন্টাগন। 

এই ইউনিটটি পরিদর্শনে সাংবাদিকদেরও কোনোদিন সুযোগ দেওয়া হয়নি। আর আইনজীবীরা গোপন স্থানটিতে যেতে চাইলে তাদের আদালতের আদেশ নিতে হতো।

ক্যাম্প সেভেন সংস্কার না করায় অবকাঠামো সমস্যায় ছিল। পয়োনিষ্কাশনের নালা পানিতে ভেরে যেত। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হতো প্রায়ই। অর্থের বরাদ্দ না পাওয়ায় সংস্কারের আশাও ছেড়ে দেওয়া হয়।

তবে কতজন বন্দিকে এখান থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে তা বলা হয়নি। এর আগে কর্মকর্তারা সেখানে ১৪ বন্দি রয়েছেন বলে জানিয়েছেন। গুয়ান্তানামো বেতে বর্তমানে ৪০ বন্দি রয়েছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন