অবশেষে বাদশাহর আনুগত্য স্বীকার রাজপুত্র হামজার
jugantor
অবশেষে বাদশাহর আনুগত্য স্বীকার রাজপুত্র হামজার

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১২:৩৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

অবশেষে বাদশাহর আনুগত্য স্বীকার রাজপুত্র হামজার

জর্ডানের ক্ষমতাসীন আল হাশেমি পরিবারের ঐতিহ্য ও বিধিবিধান মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেনরাজপুত্র হামাজ বিন হুসেইন।

সোমবার এক বিবৃতিতে দেশটির রাজকীয় আদালত এমন তথ্য দিয়েছেন।

এতে বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সঙ্গে যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছিল প্রিন্স হামজার, তাও কমে আসবে। প্রিন্স হামাজ বর্তমানে গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছেন।

এক চিঠিতে এই রাজপুত্র বলেন, আমি নিজেকে বাদশাহর হাতে সোপর্দ করে দিলাম। প্রিয় আলহাশেম রাজপরিবারের সংবিধানের প্রতি আমি অঙ্গীকারাবদ্ধ থাকব এবং বাদশাহ ও তার উত্তরসূরিকে সর্বদা সহায়তা করে যাব।

সোমবার বাদশাহর চাচা প্রিন্স হাসান ও অন্যান্য প্রিন্সের সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রিন্স হামজা এ চিঠিতে সই করেন।

চিঠিতে বলা হয়, মাতৃভূমির স্বার্থ যে কোনো বিবেচনায় সবার ওপরে থাকবে। জর্ডান ও জাতীয় স্বার্থরক্ষায় বাদশাহর চেষ্টায় আমি সবসময় তার পাশে থাকব।

এর আগে রাজপরিবারের বিরোধ নিরসনে মধ্যস্থতায় রাজি হয়েছেন বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ। প্রিন্স হামজার বিরুদ্ধে দেশকে অস্থিতিশীল করতে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছিল। এ ঘটনায় তাকেসহ অন্তত ১৬ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছিল জর্ডানের কর্তৃপক্ষ।

অবশেষে বাদশাহর আনুগত্য স্বীকার রাজপুত্র হামজার

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ এপ্রিল ২০২১, ১২:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
অবশেষে বাদশাহর আনুগত্য স্বীকার রাজপুত্র হামজার
ছবি: সংগৃহীত

জর্ডানের ক্ষমতাসীন আল হাশেমি পরিবারের ঐতিহ্য ও বিধিবিধান মেনে চলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন রাজপুত্র হামাজ বিন হুসেইন।

সোমবার এক বিবৃতিতে দেশটির রাজকীয় আদালত এমন তথ্য দিয়েছেন।

এতে বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহর সঙ্গে যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছিল প্রিন্স হামজার, তাও কমে আসবে। প্রিন্স হামাজ বর্তমানে গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছেন।

এক চিঠিতে এই রাজপুত্র বলেন, আমি নিজেকে বাদশাহর হাতে সোপর্দ করে দিলাম। প্রিয় আলহাশেম রাজপরিবারের সংবিধানের প্রতি আমি অঙ্গীকারাবদ্ধ থাকব এবং বাদশাহ ও তার উত্তরসূরিকে সর্বদা সহায়তা করে যাব।

সোমবার বাদশাহর চাচা প্রিন্স হাসান ও অন্যান্য প্রিন্সের সঙ্গে সাক্ষাতের পর প্রিন্স হামজা এ চিঠিতে সই করেন।

চিঠিতে বলা হয়, মাতৃভূমির স্বার্থ যে কোনো বিবেচনায় সবার ওপরে থাকবে। জর্ডান ও জাতীয় স্বার্থরক্ষায় বাদশাহর চেষ্টায় আমি সবসময় তার পাশে থাকব।

এর আগে রাজপরিবারের বিরোধ নিরসনে মধ্যস্থতায় রাজি হয়েছেন বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ। প্রিন্স হামজার বিরুদ্ধে দেশকে অস্থিতিশীল করতে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছিল। এ ঘটনায় তাকেসহ অন্তত ১৬ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছিল জর্ডানের কর্তৃপক্ষ।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন