ইরাকে মার্কিন ঘাঁটির পাশ থেকে ২৪ ক্ষেপণাস্ত্র উদ্ধার
jugantor
ইরাকে মার্কিন ঘাঁটির পাশ থেকে ২৪ ক্ষেপণাস্ত্র উদ্ধার

  অনলাইন ডেস্ক  

১০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৩:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরাকের আল আনবার প্রদেশে অবস্থিত মার্কিন সেনাঘাঁটি আইন আল আসাদের পাশের একটি এলাকা থেকে ২৪টি ক্ষেপণাস্ত্র ও একটি মিসাইল লঞ্চার উদ্ধার করেছে ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনী।

সেখানকার আল-জাজিরা এলাকা থেকে ক্ষেপণাস্ত্রভর্তি গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। খবর আল-আরাবিয়ার।

বৃহস্পতিবার রাতে সড়কে থেমে থাকা একটি গাড়িকে দেখে ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর টহল ইউনিটের সন্দেহ হয়। এরপর তারা গাড়ির ভেতরে ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চারের সন্ধান পায়।

এগুলোকে নিষ্ক্রিয় করতে দ্রুত বিস্ফোরক নিস্ত্রিয়করণ ইউনিটকে ডাকা হয়। ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চার রাখার সঙ্গে জড়িতদের খোঁজে বের করার চেষ্টা চলছে বলে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী জানিয়েছে।

এর আগে গত বুধবার ইরাকের কয়েকটি সশস্ত্র সংগঠন এক বিবৃতিতে আমেরিকার সঙ্গে তার দেশের সরকারের কৌশলগত আলোচনার নিন্দা জানিয়েছে। এসব সংগঠন বলেছে, লুটেরা আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসা চলবে না। আমেরিকার ওপর প্রয়োজনে হামলা চালানো হবে বলে তারা হুমকি দিয়েছে।

ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটি ও সামরিক বহরে হামলার ঘটনা সম্প্রতি বেড়েছে। ইরাকের জনগণ ও রাজনৈতিক দলগুলো সেদেশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির বিরোধিতা করছে। তারা সেদেশ থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার চায়।

ইরাকে মার্কিন ঘাঁটির পাশ থেকে ২৪ ক্ষেপণাস্ত্র উদ্ধার

 অনলাইন ডেস্ক 
১০ এপ্রিল ২০২১, ০৯:৪৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরাকের আল আনবার প্রদেশে অবস্থিত মার্কিন সেনাঘাঁটি আইন আল আসাদের পাশের একটি এলাকা থেকে ২৪টি ক্ষেপণাস্ত্র ও একটি মিসাইল লঞ্চার উদ্ধার করেছে ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনী।

সেখানকার আল-জাজিরা এলাকা থেকে ক্ষেপণাস্ত্রভর্তি গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। খবর আল-আরাবিয়ার।

বৃহস্পতিবার রাতে সড়কে থেমে থাকা একটি গাড়িকে দেখে ইরাকের নিরাপত্তা বাহিনীর টহল ইউনিটের সন্দেহ হয়। এরপর তারা গাড়ির ভেতরে ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চারের সন্ধান পায়।

এগুলোকে নিষ্ক্রিয় করতে দ্রুত বিস্ফোরক নিস্ত্রিয়করণ ইউনিটকে ডাকা হয়। ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চার রাখার সঙ্গে জড়িতদের খোঁজে বের করার চেষ্টা চলছে বলে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী জানিয়েছে।

এর আগে গত বুধবার ইরাকের কয়েকটি সশস্ত্র সংগঠন এক বিবৃতিতে আমেরিকার সঙ্গে তার দেশের সরকারের কৌশলগত আলোচনার নিন্দা জানিয়েছে। এসব সংগঠন বলেছে, লুটেরা আমেরিকার সঙ্গে আলোচনায় বসা চলবে না। আমেরিকার ওপর প্রয়োজনে হামলা চালানো হবে বলে তারা হুমকি দিয়েছে।

ইরাকে অবস্থিত মার্কিন সামরিক ঘাঁটি ও সামরিক বহরে হামলার ঘটনা সম্প্রতি বেড়েছে। ইরাকের জনগণ ও রাজনৈতিক দলগুলো সেদেশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির বিরোধিতা করছে। তারা সেদেশ থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার চায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ইরাকে মার্কিন-ইরান ছায়াযুদ্ধ