ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে রকেট হামলা, ইরানকে দোষারোপ
jugantor
ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে রকেট হামলা, ইরানকে দোষারোপ

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০১:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিস্তান অঞ্চলের রাজধানী এরবিলে মার্কিন বিমানঘাঁটিতে রকেট হামলা হয়েছে।

রয়টার্স ও আরব নিউজসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ড্রোন দিয়ে বুধবার রাতে ওই ঘাঁটিতে হামলার ফলে বড় ধরনের বিস্ফোরণ ও আগুন লেগে যায়।

ইরাকি একটি টিভি চ্যানেলের স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, বিস্ফোরণের পর পরই মার্কিন ঘাঁটিতে আগুন ধরে যায় এবং আগুন লাগার এ দৃশ্য বহুদূর থেকে দেখা গেছে।

মার্কিন কনস্যুলেট ও এরবিল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার সড়ক তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়।

অন্তত একটি রকেট মার্কিন বিমানঘাঁটিতে আঘাত হেনেছে বলে স্থানীয়রা গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। তারা বলছেন, হামলার পর পরই আকাশে বহু বিমানের আনাগোনা দেখা গেছে, যেগুলোকে তারা মার্কিন ড্রোন বলে নিশ্চিত করেছেন।

এরবিলের গভর্নর ওমেদ খোশনাউ দাবি করেছেন, হামলায় কেউ হতাহত হয়নি। এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী এ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি। ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ হামলার ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

গত ফেব্রুয়ারিতেও এ ঘাঁটিতে রকেট হামলা হয়েছে।ওই হামলায় এক মার্কিন ঠিকাদার নিহত হন এবং বেশ কয়েকজন আহত হন।ওই হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ইরানকে দায়ী করলেও তেহরান তা অস্বীকার করে।

এরবিলের এই ঘাঁটির পাশাপাশি ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশের ‘আইন আল-আসাদ’ হচ্ছে ইরাকে আমেরিকার সবচেয়ে বড় দুটি সামরিকঘাঁটি। সম্প্রতি এই দুটি মার্কিন ঘাঁটি বহুবার রকেট হামলার শিকার হয়েছে।

ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে রকেট হামলা, ইরানকে দোষারোপ

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইরাকের উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিস্তান অঞ্চলের রাজধানী এরবিলে মার্কিন বিমানঘাঁটিতে রকেট হামলা হয়েছে।

রয়টার্স ও আরব নিউজসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ড্রোন দিয়ে বুধবার রাতে ওই ঘাঁটিতে হামলার ফলে বড় ধরনের বিস্ফোরণ ও আগুন লেগে যায়।

ইরাকি একটি টিভি চ্যানেলের স্থিরচিত্র ও ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, বিস্ফোরণের পর পরই মার্কিন ঘাঁটিতে আগুন ধরে যায় এবং আগুন লাগার এ দৃশ্য বহুদূর থেকে দেখা গেছে।

মার্কিন কনস্যুলেট ও এরবিল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাওয়ার সড়ক তাৎক্ষণিকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়।

অন্তত একটি রকেট মার্কিন বিমানঘাঁটিতে আঘাত হেনেছে বলে স্থানীয়রা গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। তারা বলছেন, হামলার পর পরই আকাশে বহু বিমানের আনাগোনা দেখা গেছে, যেগুলোকে তারা মার্কিন ড্রোন বলে নিশ্চিত করেছেন।

এরবিলের গভর্নর ওমেদ খোশনাউ দাবি করেছেন, হামলায় কেউ হতাহত হয়নি। এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী এ হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি। ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ হামলার ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

গত ফেব্রুয়ারিতেও এ ঘাঁটিতে রকেট হামলা হয়েছে।ওই হামলায় এক মার্কিন ঠিকাদার নিহত হন এবং বেশ কয়েকজন আহত হন।ওই হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ইরানকে দায়ী করলেও তেহরান তা অস্বীকার করে।

এরবিলের এই ঘাঁটির পাশাপাশি ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশের ‘আইন আল-আসাদ’ হচ্ছে ইরাকে আমেরিকার সবচেয়ে বড় দুটি সামরিকঘাঁটি। সম্প্রতি এই দুটি মার্কিন ঘাঁটি বহুবার রকেট হামলার শিকার হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন