সৌদি পরমাণু কর্মসূচি আটকে দেবে যুক্তরাষ্ট্র
jugantor
সৌদি পরমাণু কর্মসূচি আটকে দেবে যুক্তরাষ্ট্র

  অনলাইন ডেস্ক  

২০ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৮:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি আরবের পরমাণু কর্মসূচি যাতে এগোতে না পারে, সে জন্য মার্কিন কংগ্রেসে একটি বিল আনা হচ্ছে। এরই মধ্যে বিলের খসড়া তৈরি হয়েছে।

মার্কিন আইনপ্রণেতারা মনে করেন, সৌদি পরমাণু কর্মসূচির মূল লক্ষ্য হচ্ছে— পরমাণু অস্ত্র তৈরি করা। এ জন্য সৌদি আরব ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের চেষ্টা করেছে বলে সন্দেহ করা হয়। খবর মিডলইস্ট আইয়ের।

সৌদি আরবের সম্ভাব্য পরমাণু অস্ত্র তৈরি প্রতিহত করতে সিনেটর অ্যাডওয়ার্ড মারকি ও জেফারসন মার্কলি খসড়া বিল জমা দিয়েছেন। সঙ্গে রয়েছেন কংগ্রসেম্যান টেড লিউ ও জোয়াকুইন ক্যাস্ত্রো।

যদি এই বিল পাস হয় তা হলে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে সেসব দেশ ও ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সুপারিশ করবে, যারা সৌদি আরবকে স্পর্শকাতর ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি দিয়েছে। পাশাপাশি সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রিও বন্ধ করতে হবে।

২০২০ সালের আগস্ট মাসে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, চীনের সহায়তায় সৌদি আরব আল-উলাহ শহরে পরমাণু স্থাপনা প্রতিষ্ঠা করেছে।

উল্লেখ্য, বেইজিংয়ের সঙ্গে রিয়াদের ২০১২ ও ২০১৭ সালে পরমাণু শক্তিচালিত একাধিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের চুক্তি হয়। এর মধ্যে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ শুরু করেছে, যাতে ২.৮ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাবে।

সৌদি পরমাণু কর্মসূচি আটকে দেবে যুক্তরাষ্ট্র

 অনলাইন ডেস্ক 
২০ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সৌদি আরবের পরমাণু কর্মসূচি যাতে এগোতে না পারে, সে জন্য মার্কিন কংগ্রেসে একটি বিল আনা হচ্ছে। এরই মধ্যে বিলের খসড়া তৈরি হয়েছে।

মার্কিন আইনপ্রণেতারা মনে করেন, সৌদি পরমাণু কর্মসূচির মূল লক্ষ্য হচ্ছে— পরমাণু অস্ত্র তৈরি করা। এ জন্য সৌদি আরব ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের চেষ্টা করেছে বলে সন্দেহ করা হয়। খবর মিডলইস্ট আইয়ের।

সৌদি আরবের সম্ভাব্য পরমাণু অস্ত্র তৈরি প্রতিহত করতে সিনেটর অ্যাডওয়ার্ড মারকি ও জেফারসন মার্কলি খসড়া বিল জমা দিয়েছেন। সঙ্গে রয়েছেন কংগ্রসেম্যান টেড লিউ ও জোয়াকুইন ক্যাস্ত্রো।

যদি এই বিল পাস হয় তা হলে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে সেসব দেশ ও ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সুপারিশ করবে, যারা সৌদি আরবকে স্পর্শকাতর ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি দিয়েছে। পাশাপাশি সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রিও বন্ধ করতে হবে।

২০২০ সালের আগস্ট মাসে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, চীনের সহায়তায় সৌদি আরব আল-উলাহ শহরে পরমাণু স্থাপনা প্রতিষ্ঠা করেছে।

উল্লেখ্য, বেইজিংয়ের সঙ্গে রিয়াদের ২০১২ ও ২০১৭ সালে পরমাণু শক্তিচালিত একাধিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের চুক্তি হয়। এর মধ্যে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের কাজ শুরু করেছে, যাতে ২.৮ গিগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন