ফ্লয়েড হত্যায় যে সাজা হতে পারে সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার
jugantor
ফ্লয়েড হত্যায় যে সাজা হতে পারে সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

২১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:১৭:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন শ্বেতাঙ্গ সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক চৌভিন।

একদিনেরও কম সময় নিয়ে ফ্লয়েডকে হত্যায় চৌভিনকে দোষী সাব্যস্ত করে মঙ্গলবার মামলার রায় ঘোষণা করে ১২ সদস্যের জুরি।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গণমাধ্যমটি আরো জানিয়েছে, শ্বেতাঙ্গ সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা চৌভিনের বিরুদ্ধে আনা তিনটি অভিযোগই মিনেসোটার হেনেপিন কাউন্টি আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। এগুলো হচ্ছে‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ অনিচ্ছাকৃত খুন, ‘থার্ড ডিগ্রি’ খুন এবং ‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ নরহত্যা। রায় ঘোষণার পরবর্তী আট সপ্তাহের মধ্যে চৌভিনের কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করবে আদালত।ফলে চৌভিন কারাদণ্ডাদেশ পেতে যাচ্ছেন তা নিশ্চিত বলা গেলেও তা কত বছরের হতে পারে তা এখনই জানা সম্ভব হচ্ছে না। তবে ফ্লয়েড হত্যার ঘটনাস্থলে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের আইন অনুযায়ী শাস্তি পাবেন চৌভিন।

মিনেসোটার আইন অনুযায়ী,পূর্বের ক্রিমিনাল রেকর্ড থাকলে অনিচ্ছাকৃত খুনের জন্য সর্বোচ্চ ৪০ বছর কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। আর ক্রিমিনাল রেকর্ড না থাকলে খুনের জন্য সর্বোচ্চ কারাদণ্ড হয় সাড়ে ১২ বছরের। এছাড়া ‘থার্ড ডিগ্রি’খুনের জন্য কারাদণ্ড ২৫ বছরের। আর‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ নরহত্যার দায়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড বা ২০ হাজার ডলার জরিমানা গুণতে হয়।

ফয়েড হত্যার আগে ডেরেক চৌভিনের কোনো ক্রিমিনাল রেকর্ড নেই। সে হিসেবে ৪০ বছর নয়; অনিচ্ছাকৃত খুনের জন্য সাড়ে ১২ বছরের কারাদণ্ডাদেশের সাজা পেতে পারেন চৌভিন।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, রায় ঘোষণার সময় ডেরেক চৌভিনকে আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। চৌভিন দাবি করতে থাকেন, তিনি তার পুলিশ প্রশিক্ষণের ব্যবহার করেছেন।আদালত রায় ঘোষণার পর তাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।

রায় ঘোষণার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছেন। শিগগিরই তিনি হোয়াইট হাউসে এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে করবেন।

এদিকে রায় ঘোষণার পরপর আদালতের বাইরে থাকা ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকারীরা উল্লাস প্রকাশ করেন।

এ রায়কে ন্যায়বিচার আখ্যা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র তথা বিশ্বের বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের ইতিহাসে এটি মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে বলে মন্তব্য করেন তারা। রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

প্রসঙ্গত, মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনেয়াপলিসের সড়কে গত বছর মে মাসে জাল নোট ব্যবহারের অভিযোগে গ্রেফতার ফ্লয়েডের ঘাড়ে চৌভিনের (৪৫) হাঁটু গেড়ে বসলে মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর আগে ফ্লয়েডকে বলতে শোনা যায়, ‌‘আমি আর শ্বাস নিতে পারছি না’।

৯ মিনিটের ওই ভিডিও সাড়া বিশ্বে সমালোচনার ঝড় তুলে। ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে।

নিরস্ত্র এ কৃষ্ণাঙ্গের মৃত্যুর মাসখানেক পর তার পরিবার শহর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করে।

অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর এ মামলায় তিন সপ্তাহের বিচার শেষে মঙ্গলবার রায় আসলো।

ফ্লয়েড হত্যায় যে সাজা হতে পারে সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
২১ এপ্রিল ২০২১, ০৫:১৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন শ্বেতাঙ্গ সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক চৌভিন। 

একদিনেরও কম সময় নিয়ে ফ্লয়েডকে হত্যায় চৌভিনকে দোষী সাব্যস্ত করে মঙ্গলবার মামলার রায় ঘোষণা করে ১২ সদস্যের জুরি।
 
যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে। 

গণমাধ্যমটি আরো জানিয়েছে, শ্বেতাঙ্গ সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা চৌভিনের বিরুদ্ধে আনা তিনটি অভিযোগই মিনেসোটার হেনেপিন কাউন্টি আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। এগুলো হচ্ছে‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ অনিচ্ছাকৃত খুন, ‘থার্ড ডিগ্রি’ খুন এবং ‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ নরহত্যা। রায় ঘোষণার পরবর্তী আট সপ্তাহের মধ্যে চৌভিনের কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করবে আদালত।ফলে চৌভিন কারাদণ্ডাদেশ পেতে যাচ্ছেন তা নিশ্চিত বলা গেলেও তা কত বছরের হতে পারে তা এখনই জানা সম্ভব হচ্ছে না। তবে ফ্লয়েড হত্যার ঘটনাস্থলে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের আইন অনুযায়ী শাস্তি পাবেন চৌভিন।

মিনেসোটার আইন অনুযায়ী,পূর্বের ক্রিমিনাল রেকর্ড থাকলে অনিচ্ছাকৃত খুনের জন্য সর্বোচ্চ ৪০ বছর কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়। আর ক্রিমিনাল রেকর্ড না থাকলে খুনের জন্য সর্বোচ্চ কারাদণ্ড হয় সাড়ে ১২ বছরের। এছাড়া ‘থার্ড ডিগ্রি’খুনের জন্য কারাদণ্ড ২৫ বছরের। আর‘সেকেন্ড ডিগ্রি’ নরহত্যার দায়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড বা ২০ হাজার ডলার জরিমানা গুণতে হয়।

ফয়েড হত্যার আগে ডেরেক চৌভিনের কোনো ক্রিমিনাল রেকর্ড নেই। সে হিসেবে ৪০ বছর নয়; অনিচ্ছাকৃত খুনের জন্য সাড়ে ১২ বছরের কারাদণ্ডাদেশের সাজা পেতে পারেন চৌভিন।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে,  রায় ঘোষণার সময় ডেরেক চৌভিনকে আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেন। চৌভিন দাবি করতে থাকেন, তিনি তার পুলিশ প্রশিক্ষণের ব্যবহার করেছেন।আদালত রায় ঘোষণার পর তাকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।

রায় ঘোষণার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছেন। শিগগিরই তিনি হোয়াইট হাউসে এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে করবেন।

এদিকে রায় ঘোষণার পরপর আদালতের বাইরে থাকা ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকারীরা উল্লাস প্রকাশ করেন। 

এ রায়কে ন্যায়বিচার আখ্যা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র তথা বিশ্বের বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের ইতিহাসে এটি মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে বলে মন্তব্য করেন তারা। রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

প্রসঙ্গত, মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনেয়াপলিসের সড়কে গত বছর মে মাসে জাল নোট ব্যবহারের অভিযোগে গ্রেফতার ফ্লয়েডের ঘাড়ে চৌভিনের (৪৫) হাঁটু গেড়ে বসলে মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর আগে ফ্লয়েডকে বলতে শোনা যায়, ‌‘আমি আর শ্বাস নিতে পারছি না’।

৯ মিনিটের ওই ভিডিও সাড়া বিশ্বে সমালোচনার ঝড় তুলে। ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়ে।

নিরস্ত্র এ কৃষ্ণাঙ্গের মৃত্যুর মাসখানেক পর তার পরিবার শহর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা করে।

অত্যন্ত চাঞ্চল্যকর এ মামলায় তিন সপ্তাহের বিচার শেষে মঙ্গলবার রায় আসলো।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় অগ্নিগর্ভ যুক্তরাষ্ট্র