নাভালনিকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকিকে পাত্তাই দিল না রাশিয়া
jugantor
নাভালনিকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকিকে পাত্তাই দিল না রাশিয়া

  অনলাইন ডেস্ক  

২১ এপ্রিল ২০২১, ০৯:১১:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সরকারবিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির স্বাস্থ্য নিয়ে আমেরিকা যে হুমকি দিয়েছে তাকে বিন্দুমাত্র গুরুত্ব দেয়নি রাশিয়া।

উল্টো রাশিয়ায় নাভালনির সমর্থনে রাজপথে বিক্ষোভ উসকে দেওয়ার জন্য আমেরিকাকে সতর্ক করে দিয়েছে মস্কো।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান গত রোববার সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, ওয়াশিংটন মস্কোকে এ কথা জানিয়ে দিয়েছে যে, নাভালনির মৃত্যু হলে রাশিয়াকে-এর ‘পরিণতি’ ভোগ করতে হবে।

এর জবাবে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, ওয়াশিংটনের হুমকির ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া জানাবে না ক্রেমলিন। তিনি বলেন, অন্য দেশের পক্ষ থেকে এ ধরনের বিবৃতির জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করে না রাশিয়া।

পেসকভ আরও বলেন, নাভালনির শারীরিক অবস্থা নিয়ে পাশ্চাত্য যে ‘উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে, ক্রেমলিন তাকে মোটেই বিবেচনায় নিতে রাজি নয়। তিনি বলেন, রাশিয়ার একজন অভিযুক্তের স্বাস্থ্য নিয়ে পশ্চিমাদের কোনো স্বার্থ থাকা উচিত নয়।

গত আগস্টে বিমানে থাকাবস্থায় হঠাৎ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি। পরে চিকিৎসার জন্য তাকে জার্মানিতে নেওয়া হয়। জার্মান চিকিৎসকরা দাবি করেন, তার শরীরে ‘নোভিচক’ নামের বিষাক্ত রাসায়নিক পাওয়া গেছে। নাভালনি অভিযোগ করেন, তার শরীরে বিষ প্রয়োগে পুতিনের হাত রয়েছে।

জার্মানিতে চিকিৎসা শেষে রাশিয়া ফিরেই গ্রেপ্তারের মুখে পড়েন ৪৪ বছর বয়সি নাভালনি। এর পর কারাগারে সুচিকিৎসার দাবিতে ৩১ মার্চ থেকে অনশন শুরু করলে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন।

গত রোববার তার চিকিৎসকরা জানান, নাভালনি যে কোনো সময় হৃদরোগে কিংবা কিডনি বিকল হয়ে মারা যেতে পারেন। এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আমেরিকা।

নাভালনিকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকিকে পাত্তাই দিল না রাশিয়া

 অনলাইন ডেস্ক 
২১ এপ্রিল ২০২১, ০৯:১১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়ার সরকারবিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির স্বাস্থ্য নিয়ে আমেরিকা যে হুমকি দিয়েছে তাকে বিন্দুমাত্র গুরুত্ব দেয়নি রাশিয়া।

উল্টো রাশিয়ায় নাভালনির সমর্থনে রাজপথে বিক্ষোভ উসকে দেওয়ার জন্য আমেরিকাকে সতর্ক করে দিয়েছে মস্কো।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান গত রোববার সতর্ক করে দিয়ে বলেছিলেন, ওয়াশিংটন মস্কোকে এ কথা জানিয়ে দিয়েছে যে, নাভালনির মৃত্যু হলে রাশিয়াকে-এর ‘পরিণতি’ ভোগ করতে হবে।

এর জবাবে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেন, ওয়াশিংটনের হুমকির ব্যাপারে কোনো প্রতিক্রিয়া জানাবে না ক্রেমলিন। তিনি বলেন, অন্য দেশের পক্ষ থেকে এ ধরনের বিবৃতির জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করে না রাশিয়া।

পেসকভ আরও বলেন, নাভালনির শারীরিক অবস্থা নিয়ে পাশ্চাত্য যে ‘উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে, ক্রেমলিন তাকে মোটেই বিবেচনায় নিতে রাজি নয়। তিনি বলেন, রাশিয়ার একজন অভিযুক্তের স্বাস্থ্য নিয়ে পশ্চিমাদের কোনো স্বার্থ থাকা উচিত নয়।

গত আগস্টে বিমানে থাকাবস্থায় হঠাৎ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন নাভালনি। পরে চিকিৎসার জন্য তাকে জার্মানিতে নেওয়া হয়।  জার্মান চিকিৎসকরা দাবি করেন, তার শরীরে ‘নোভিচক’  নামের বিষাক্ত রাসায়নিক পাওয়া গেছে।  নাভালনি অভিযোগ করেন, তার শরীরে বিষ প্রয়োগে পুতিনের হাত রয়েছে।

জার্মানিতে চিকিৎসা শেষে রাশিয়া ফিরেই গ্রেপ্তারের মুখে পড়েন ৪৪ বছর বয়সি নাভালনি। এর পর কারাগারে সুচিকিৎসার দাবিতে ৩১ মার্চ থেকে অনশন শুরু করলে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন।  

গত রোববার তার চিকিৎসকরা জানান, নাভালনি যে কোনো সময় হৃদরোগে কিংবা কিডনি বিকল হয়ে মারা যেতে পারেন। এ খবর প্রকাশিত হওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আমেরিকা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন