আইফোন-১২ পেতে রোজা ভাঙার লোভ, অতঃপর যা ঘটল (ভিডিও)
jugantor
আইফোন-১২ পেতে রোজা ভাঙার লোভ, অতঃপর যা ঘটল (ভিডিও)

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ এপ্রিল ২০২১, ১৬:৪৪:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মুমিন বান্দার জন্য রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের সুবর্ণ সুযোগ নিয়ে আসে রমজানুল মোবারক। আল্লাহ যাদের তাওফিক দান করেন তারা পবিত্র এ সময়গুলোয় সিয়ামব্রত পালনের পাশাপাশি কুরআন তেলাওয়াত, জিকির-আজকার ও মোনাজাতের মাধ্যমে খোদার সন্তুষ্টি অর্জন করেন।

তওবা-ইসতিগফার ও নফল নামাজের পর খোদার কাছে কেঁদে কেঁদে জাহান্নাম থেকে মুক্তি ও জান্নাতের আবেদন করেন।

যে কারণে এ মাসের প্রতিটি রোজা, প্রতিটি মুহূর্ত-ই মুমিন বান্দার কাছে জীবনের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অনেক লোভ দেখালেও একটি রোজাও ভাঙতে নারাজ মুসলমানরা।

এমন দৃষ্টান্ত দেখা গেল এই রমজান মাসেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ভিডিওতে। ভিডিওটি কোন এলাকায় করা হয়েছে তা সুনির্দিষ্টভাবে না বলা গেলেও এটি ধারণ করা হয়েছে ইউরোপের কোনো একটি দেশে তা নিশ্চিত।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আইফোনের সর্বশেষ মডেলটি উপহারের লোভ দেখিয়ে রোজা ভাঙার কথা বলা হচ্ছে।

সেখানে এক নারী এক মুসলিম পথচারীর পথ আগলে লোভনীয় প্রস্তাব দেন। তিনি বলেন, বোতলের এই পানি পান করলে আমি আপনাকে এই ব্র্যান্ড নিউ আইফোন-১২ প্রো ম্যাক্স উপহার দেব। লোকটি সরাসরি জবাব দেন, আপনি কি পাগল হয়েছেন? যে এমন প্রস্তাব দিচ্ছেন! এটা আমি করতে পারব না। এটা হারাম। আমি রোজাদার। কোনো কিছুর বদলে রোজা ভাঙার প্রশ্নই ওঠে না। আপনি কোনো মুসলমানকে রোজা ভাঙানোর জন্য এমন কৌশল নিতে পারেন না।

এ সময় অন্য আরেক মুসলমান পথচারীকে ডেকে ওই নারী একই প্রস্তাব দেন। তখন ওই ব্যক্তি প্রস্তাবে রাজি হয়ে পানি পান করার জন্য প্রস্তুত হলে প্রথম পথচারী তাকে বাঁধা দেয়। বারবার প্রশ্ন করেন, এই মোবাইল ফোনের জন্য আপনি রোজা ভেঙে ফেলবেন?

জবাবে দ্বিতীয় পথচারী বলেন, একটি রোজাই তো মাত্র। এ সময় তার হাত থেকে বোতল ছিনিয়ে নিয়ে পানি রাস্তায় ফেলে দেন প্রথম পথচারী।

একপর্যায়ে পানি পান করতে যাওয়া পথচারী হেসে দেন। প্রথম পথচারীকে জানান, তিনি আসলে অভিনয় করছিলেন। রোজার প্রতি একজন মুসলমানের কেমন আবেগ তা দেখানোর জন্যই এই ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন তারা।

একটি আইফোন বা দামী কোনো কিছুই বিনিময়ে যে কোনো মুসলমান একটি রোজাও ভাঙার চিন্তা করতে পারেন না, তা দেখানোই ছিল ভিডিওটি মূল উদ্দেশ্য।

ভিডিওটি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। লাখ লাখ নেটিজেন এটি শেয়ার করছেন এখনও।

ভিডিওটি দেখুন -

আইফোন-১২ পেতে রোজা ভাঙার লোভ, অতঃপর যা ঘটল (ভিডিও)

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ এপ্রিল ২০২১, ০৪:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মুমিন বান্দার জন্য রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের সুবর্ণ সুযোগ নিয়ে আসে রমজানুল মোবারক। আল্লাহ যাদের তাওফিক দান করেন তারা পবিত্র এ সময়গুলোয় সিয়ামব্রত পালনের পাশাপাশি কুরআন তেলাওয়াত, জিকির-আজকার ও মোনাজাতের মাধ্যমে খোদার সন্তুষ্টি অর্জন করেন।

তওবা-ইসতিগফার ও নফল নামাজের পর খোদার কাছে কেঁদে কেঁদে জাহান্নাম থেকে মুক্তি ও জান্নাতের আবেদন করেন।

যে কারণে এ মাসের প্রতিটি রোজা, প্রতিটি মুহূর্ত-ই মুমিন বান্দার কাছে জীবনের চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অনেক লোভ দেখালেও একটি রোজাও ভাঙতে নারাজ মুসলমানরা।

এমন দৃষ্টান্ত দেখা গেল এই রমজান মাসেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ভিডিওতে। ভিডিওটি কোন এলাকায় করা হয়েছে তা সুনির্দিষ্টভাবে না বলা গেলেও এটি ধারণ করা হয়েছে ইউরোপের কোনো একটি দেশে তা নিশ্চিত।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, আইফোনের সর্বশেষ মডেলটি উপহারের লোভ দেখিয়ে রোজা ভাঙার কথা বলা হচ্ছে।

সেখানে এক নারী এক মুসলিম পথচারীর পথ আগলে লোভনীয় প্রস্তাব দেন। তিনি বলেন, বোতলের এই পানি পান করলে আমি আপনাকে এই ব্র্যান্ড নিউ আইফোন-১২ প্রো ম্যাক্স উপহার দেব। লোকটি সরাসরি জবাব দেন, আপনি কি পাগল হয়েছেন? যে এমন প্রস্তাব দিচ্ছেন! এটা আমি করতে পারব না। এটা হারাম। আমি রোজাদার। কোনো কিছুর বদলে রোজা ভাঙার প্রশ্নই ওঠে না। আপনি কোনো মুসলমানকে রোজা ভাঙানোর জন্য এমন কৌশল নিতে পারেন না।

এ সময় অন্য আরেক মুসলমান পথচারীকে ডেকে ওই নারী একই প্রস্তাব দেন। তখন ওই ব্যক্তি প্রস্তাবে রাজি হয়ে পানি পান করার জন্য প্রস্তুত হলে প্রথম পথচারী তাকে বাঁধা দেয়। বারবার প্রশ্ন করেন, এই মোবাইল ফোনের জন্য আপনি রোজা ভেঙে ফেলবেন?

জবাবে দ্বিতীয় পথচারী বলেন, একটি রোজাই তো মাত্র। এ সময় তার হাত থেকে বোতল ছিনিয়ে নিয়ে পানি রাস্তায় ফেলে দেন প্রথম পথচারী।

একপর্যায়ে পানি পান করতে যাওয়া পথচারী হেসে দেন। প্রথম পথচারীকে জানান, তিনি আসলে অভিনয় করছিলেন। রোজার প্রতি একজন মুসলমানের কেমন আবেগ তা দেখানোর জন্যই এই ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন তারা।

একটি আইফোন বা দামী কোনো কিছুই বিনিময়ে যে কোনো মুসলমান একটি রোজাও ভাঙার চিন্তা করতে পারেন না, তা দেখানোই ছিল ভিডিওটি মূল উদ্দেশ্য।

ভিডিওটি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। লাখ লাখ নেটিজেন এটি শেয়ার করছেন এখনও।

ভিডিওটি দেখুন -

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন