‘আরবদের ওপর বর্ণবাদী নির্যাতন চালাচ্ছে ইসরাইল’
jugantor
‘আরবদের ওপর বর্ণবাদী নির্যাতন চালাচ্ছে ইসরাইল’

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ এপ্রিল ২০২১, ১৮:১৮:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

‘আরবদের ওপর বর্ণবাদী নির্যাতন চালাচ্ছে ইসরাইল’

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, ইসরাইল তার রাষ্ট্রের মধ্যে এবং অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে আরবদের ওপর রাষ্ট্রীয়ভাবে বর্ণবাদ প্রয়োগ করছে এবং নির্যাতন চালাচ্ছে।

সংস্থাটির নতুন এক রিপোর্টে ইহুদিবাদী ইসরাইলের আচরণকে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। খবর বিবিসির।

এতে বলা হয়, ইসরাইল একটি নীতিমালা গ্রহণ করেছে যেখানে তার নাগরিক হলেও ফিলিস্তিনিদের ওপর ইহুদিদের প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। রাষ্ট্র যখন আনুষ্ঠানিকভাবে জাতিগত বিভেদকে অনুমোদন করে তা বর্ণবাদ হিসেবে বিবেচিত হয় এবং একে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ২১৩-পৃষ্ঠার ওই রিপোর্টে তুলে ধরেছে কিভাবে সুপরিকল্পিতভাবে ইসরাইল দখলকৃত ভূখণ্ডের ফিলিস্তিনিদের ওপর নানা ধরনের নির্যাতন চালাচ্ছে।

এর মধ্যে রয়েছে, ফিলিস্তিনিদের তাদের বাড়িঘর থেকে জোর করে বের করে দেয়া, তাদের বাড়ি নির্মাণের ওপর নিষেধাজ্ঞা, তাদের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা ইত্যাদি।

হাজার হাজার ফিলিস্তিনি যারা নানা দেশে শরণার্থীর জীবনযাপন করছেন তাদের দেশে ফিরতে দেয়া হচ্ছে না বলেও রিপোর্টে তুলে ধরা হয়েছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি সরকারের বর্ণবাদী আচরণ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো তদন্ত করে দেখার জন্য আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

এব্যাপারে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার জন্যও মানবাধিকার সংস্থাটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইসরাইল।

ইহুদিবাদী দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এই রিপোর্টকে প্রত্যাখ্যান করে বলেছে অভিযোগগুলো উদ্ভট এবং বানোয়াট।

তারা বলছে, হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ‘ইসরাইল-বিরোধী এজেন্ডা’ দীর্ঘদিনের।

ইসরাইলে সংখ্যালঘু আরবদের সংখ্যা মোট জনসংখ্যার শতকরা ২০ ভাগের কিছুটা ওপরে। এর বাইরে ইসরাইলের দখলকৃত ওয়েস্ট ব্যাংকে রয়েছেন ২৫ লাখ ফিলিস্তিনি।

ইসরাইলের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে বসবাস করেন সাড়ে তিন লাখ ফিলিস্তিনি। আর গাজা ভূখণ্ড, যেটিও ইসরাইলের দখলে, সেখানে ১৯ লাখ ফিলিস্তিনির বাস।

‘আরবদের ওপর বর্ণবাদী নির্যাতন চালাচ্ছে ইসরাইল’

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
‘আরবদের ওপর বর্ণবাদী নির্যাতন চালাচ্ছে ইসরাইল’
ছবি: বিবিসি

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, ইসরাইল তার রাষ্ট্রের মধ্যে এবং অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে আরবদের ওপর রাষ্ট্রীয়ভাবে বর্ণবাদ প্রয়োগ করছে এবং নির্যাতন চালাচ্ছে। 

সংস্থাটির নতুন এক রিপোর্টে ইহুদিবাদী ইসরাইলের আচরণকে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। খবর বিবিসির। 

এতে বলা হয়, ইসরাইল একটি নীতিমালা গ্রহণ করেছে যেখানে তার নাগরিক হলেও ফিলিস্তিনিদের ওপর ইহুদিদের প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। রাষ্ট্র যখন আনুষ্ঠানিকভাবে জাতিগত বিভেদকে অনুমোদন করে তা বর্ণবাদ হিসেবে বিবেচিত হয় এবং একে মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। 

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ২১৩-পৃষ্ঠার ওই রিপোর্টে তুলে ধরেছে কিভাবে সুপরিকল্পিতভাবে ইসরাইল দখলকৃত ভূখণ্ডের ফিলিস্তিনিদের ওপর নানা ধরনের নির্যাতন চালাচ্ছে।

এর মধ্যে রয়েছে, ফিলিস্তিনিদের তাদের বাড়িঘর থেকে জোর করে বের করে দেয়া, তাদের বাড়ি নির্মাণের ওপর নিষেধাজ্ঞা, তাদের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করা ইত্যাদি।

হাজার হাজার ফিলিস্তিনি যারা নানা দেশে শরণার্থীর জীবনযাপন করছেন তাদের দেশে ফিরতে দেয়া হচ্ছে না বলেও রিপোর্টে তুলে ধরা হয়েছে।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি সরকারের বর্ণবাদী আচরণ এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো তদন্ত করে দেখার জন্য আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

এব্যাপারে জাতিসংঘের তত্ত্বাবধানে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার জন্যও মানবাধিকার সংস্থাটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইসরাইল।

ইহুদিবাদী দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এই রিপোর্টকে প্রত্যাখ্যান করে বলেছে অভিযোগগুলো উদ্ভট এবং বানোয়াট।

তারা বলছে, হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ‘ইসরাইল-বিরোধী এজেন্ডা’ দীর্ঘদিনের।

ইসরাইলে সংখ্যালঘু আরবদের সংখ্যা মোট জনসংখ্যার শতকরা ২০ ভাগের কিছুটা ওপরে। এর বাইরে ইসরাইলের দখলকৃত ওয়েস্ট ব্যাংকে রয়েছেন ২৫ লাখ ফিলিস্তিনি।

ইসরাইলের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে বসবাস করেন সাড়ে তিন লাখ ফিলিস্তিনি। আর গাজা ভূখণ্ড, যেটিও ইসরাইলের দখলে, সেখানে ১৯ লাখ ফিলিস্তিনির বাস।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ