নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেবেন মমতা
jugantor
নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেবেন মমতা

  অনলাইন ডেস্ক  

০৬ মে ২০২১, ১৮:৫৫:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে দুই তৃতীয়াশেংরও বেশি আসন পেয়ে তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নির্বাচনে তার এই অবস্মরণীয় বিজয়ের পর থেকে রাজ্যে বিজেপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ চরম অসৌজন্যের চরম নজির দেখিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থেকেছেন। এদিকে পশ্চিমবঙ্গ আক্রান্ত বিজেপি সদস্যদের বাড়ি যেতে শুরু করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, এতকিছুর পরও মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারকে ২ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছেন নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে দল, মত, বর্ণ, জাত, ধর্ম দেখা হবে না।

বৃহস্পতিবার মমতা বলেন, ‘‌আমরা ক্ষতিপূরণ দিতে চলেছি যাঁরা নির্বাচনের পর হিংসার বলি হয়েছেন তাদের পরিবারকে। দু’‌লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। আর সেখানে কোনও দল, রং, জাত, ধর্ম দেখা হবে না। প্রত্যেক মৃত্যুই দুঃখজনক। ক্ষতিপূরণ দিয়ে সেই দুঃখ মেটানো যায় না। তবু আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’‌

জিনিউজের খবরে বলা হয়, মুখ্যমন্ত্রী যখন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তখন তার প্রশংসা করার পরিবর্তে কেন্দ্রীয় দল রাজ্যে পাঠানো হচ্ছে। তারা পরিস্থিতি দেখে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে রিপোর্ট দেবেন। সেই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলার সরকারের বিরুদ্ধে প্যাঁচ কষবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক কুশীলবরা। কিন্তু আজকের এই ঘোষণা নিঃসন্দেহে মাস্টারস্ট্রোক। কারণ আগে কখনও এমন নজির দেখা যায়নি।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌বিজেপি নেতারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং উসকানি দিচ্ছেন। নতুন সরকার ক্ষমতায় এসেছে ২৪ ঘন্টা হয়নি। তার মধ্যে চিঠি পাঠাচ্ছে, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদল পাঠাচ্ছে, নেতারা আসছেন। আসলে তারা মানুষের রায় মেনে নিতে রাজি নয়। আমি তাদের কাছে অনুরোধ করছি মানুষের রায় মেনে নিন।’‌

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিহতদের ক্ষতিপূরণ দেবেন মমতা

 অনলাইন ডেস্ক 
০৬ মে ২০২১, ০৬:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে দুই তৃতীয়াশেংরও বেশি আসন পেয়ে তৃতীয়বার ক্ষমতায় এসেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নির্বাচনে তার এই অবস্মরণীয় বিজয়ের পর থেকে রাজ্যে বিজেপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। 

এদিকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ চরম অসৌজন্যের চরম নজির দেখিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত থেকেছেন।  এদিকে পশ্চিমবঙ্গ আক্রান্ত বিজেপি সদস্যদের বাড়ি যেতে শুরু করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, এতকিছুর পরও মাস্টারস্ট্রোক দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারকে ২ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা দিয়েছেন নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে দল, মত, বর্ণ, জাত, ধর্ম দেখা হবে না।  

বৃহস্পতিবার মমতা বলেন, ‘‌আমরা ক্ষতিপূরণ দিতে চলেছি যাঁরা নির্বাচনের পর হিংসার বলি হয়েছেন তাদের পরিবারকে। দু’‌লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।  আর সেখানে কোনও দল, রং, জাত, ধর্ম দেখা হবে না।  প্রত্যেক মৃত্যুই দুঃখজনক। ক্ষতিপূরণ দিয়ে সেই দুঃখ মেটানো যায় না। তবু আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’‌

জিনিউজের খবরে বলা হয়, মুখ্যমন্ত্রী যখন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তখন তার প্রশংসা করার পরিবর্তে কেন্দ্রীয় দল রাজ্যে পাঠানো হচ্ছে।  তারা পরিস্থিতি দেখে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে রিপোর্ট দেবেন। সেই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলার সরকারের বিরুদ্ধে প্যাঁচ কষবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক কুশীলবরা। কিন্তু আজকের এই ঘোষণা নিঃসন্দেহে মাস্টারস্ট্রোক। কারণ আগে কখনও এমন নজির দেখা যায়নি।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‌বিজেপি নেতারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং উসকানি দিচ্ছেন।  নতুন সরকার ক্ষমতায় এসেছে ২৪ ঘন্টা হয়নি।  তার মধ্যে চিঠি পাঠাচ্ছে, কেন্দ্রীয় প্রতিনিধিদল পাঠাচ্ছে, নেতারা আসছেন।  আসলে তারা মানুষের রায় মেনে নিতে রাজি নয়।  আমি তাদের কাছে অনুরোধ করছি মানুষের রায় মেনে নিন।’‌

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন ২০২১