সম্পর্ক জোড়া লাগাতে সৌদি সফরে ইমরান খান
jugantor
সম্পর্ক জোড়া লাগাতে সৌদি সফরে ইমরান খান

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ মে ২০২১, ২০:৩৩:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্পর্ক জোড়া লাগাতে সৌদি আরব তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে গেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আমন্ত্রণে শুক্রবার তিনি রিয়াদ পৌঁছেছেন। খবর-আলজাজিরার।

সৌদি আরব ও পাকিস্তানের সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। তবে সম্প্রতি দেশ দুটির সঙ্গে সম্পর্ক অবনতি ঘটে।

ব্রুকিংস ইনিস্টিটিউশনের পররাষ্ট্র নীতি প্রকল্পের ফেলো মাদিহা আফজাল বলেন, চলতি সপ্তাহে সৌদি আরবে প্রধামন্ত্রী খানের সফর তাদের সাবেক ও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ পর্যায়ের মিত্রের সঙ্গে সম্পর্ক ঝালাইয়ের চেষ্টা।

গত বছর পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি কাশ্মীর ইস্যুতে সৌদি আরব যথার্থ ভূমিকা রাখতে পারেনি বলে রিয়াদের কড়া সমালোচনা করেছিলেন। তার এই বক্তব্যের জবাবে সৌদি আরব পাকিস্তানকে সুদমুক্ত ১০০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার বিষয়টি থেকে সরে যায। একই সঙ্গে পাকিস্তানকে বাজারদরের চেয়ে কম দামে তেল সরবরাহ করার একটি চুক্তি নবায়ন করা হবে না বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়।

বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, প্রায় এক বছর পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে রিয়াদে ডেকে নেওয়া দুই দেশের সম্পর্ক ঝালাইয়ের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট মানবাধিকার ইস্যুতে সৌদির বিরুদ্ধে কড়া অবস্থানের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন। তাই এই মুহূর্তে ছোট কিংবা বড় যেটাই হোক না কেন পুরোনো কোনো মিত্রের সঙ্গে বিবাদ জিইয়ে রাখতে চাইছে না সৌদি।

সম্পর্ক জোড়া লাগাতে সৌদি সফরে ইমরান খান

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ মে ২০২১, ০৮:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সম্পর্ক জোড়া লাগাতে সৌদি আরব তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে গেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের আমন্ত্রণে শুক্রবার তিনি রিয়াদ পৌঁছেছেন। খবর-আলজাজিরার।

সৌদি আরব ও পাকিস্তানের সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। তবে সম্প্রতি দেশ দুটির সঙ্গে সম্পর্ক অবনতি ঘটে।

ব্রুকিংস ইনিস্টিটিউশনের পররাষ্ট্র নীতি প্রকল্পের ফেলো মাদিহা আফজাল বলেন, চলতি সপ্তাহে সৌদি আরবে প্রধামন্ত্রী খানের সফর তাদের সাবেক ও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ পর্যায়ের মিত্রের সঙ্গে সম্পর্ক ঝালাইয়ের চেষ্টা। 

গত বছর পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি কাশ্মীর ইস্যুতে সৌদি আরব যথার্থ ভূমিকা রাখতে পারেনি বলে রিয়াদের কড়া সমালোচনা করেছিলেন। তার এই বক্তব্যের জবাবে সৌদি আরব পাকিস্তানকে সুদমুক্ত ১০০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার বিষয়টি থেকে সরে যায। একই সঙ্গে পাকিস্তানকে বাজারদরের চেয়ে কম দামে তেল সরবরাহ করার একটি চুক্তি নবায়ন করা হবে না বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়।

বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন, প্রায় এক বছর পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে রিয়াদে ডেকে নেওয়া দুই দেশের সম্পর্ক ঝালাইয়ের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট মানবাধিকার ইস্যুতে সৌদির বিরুদ্ধে কড়া অবস্থানের ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন। তাই এই মুহূর্তে ছোট কিংবা বড় যেটাই হোক না কেন পুরোনো কোনো মিত্রের সঙ্গে বিবাদ জিইয়ে রাখতে চাইছে না সৌদি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন