গোশালায় যাচ্ছে অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার!
jugantor
গোশালায় যাচ্ছে অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৮ মে ২০২১, ১৭:০৪:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনায় বিপর্যস্ত গোটা ভারত। দেশটিতে একের পর এক আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড হচ্ছে।

একদিকে যখন করোনায় আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছেন, তখনই গরুদের জন্য অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার পাঠাচ্ছে উত্তর প্রদেশের কট্টর হিন্দুত্ববাদী যোগী আদিত্যনাথের সরকার।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের সরকারি গোশালায় এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে বলে এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়। পরে এ নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে মুখ্যমন্ত্রী দফতর থেকে দাবি করা হয়, গোশালায় কর্মরত কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।

যোগী আদিত্যনাথের দফতর জানায়, প্রত্যেক জেলায় সরকারি গোশালায় গরুদের দেখভালের জন্য হেল্পডেস্ক তৈরি করা এবং গরুদের সুরক্ষার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে জেলা প্রশাসনগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিচার করে গরুদের কল্যাণে প্রত্যেক জেলায় ৭০০টি হেল্পডেস্ক তৈরি করা হয়েছে। গরুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ৫১টি অক্সিমিটার, ৩৪১টি থার্মাল স্ক্যানার পাঠানো হয়েছে। রাজ্যের বিপুল সংখ্যক ভবঘুরে গবাদি পশুকে সরকারি গোশালায় আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। গোশালার সংখ্যাও দ্রুত বাড়ানো হচ্ছে।

সরকারি ফরমান অনুযায়ী, প্রতিটি গোশালায় কোভিড বিধি মানতে হবে। সেখানে মাস্ক পরা, থার্মাল স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক। একইসঙ্গে নির্দেশ, গোশালার গরুদের জন্য চিকিৎসা সামগ্রী যেন পর্যাপ্ত থাকে।

রাজ্য সরকারের এমন বিবৃতির পর সমালোচকরা বলছেন, যেখানে মানুষ ঠিকমতো চিকিৎসা সরঞ্জাম পাচ্ছে না, সেখানে গরুর জন্য রীতিমতো তোড়জোড় শুরু করেছে সরকার। মানুষকে উপেক্ষা করে গরুর জন্য অক্সিমিটার, থার্মাল স্ক্যানানের মতো সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে।

পরে সমালোচনার মুখে মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে দাবি করা হয়, গরুর জন্য নয় বরং গোশালার কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বরাবরই কট্টর ধর্মান্ধ ও গোড়া হিন্দুত্ববাদী হিসেবে পরিচিত।

অক্সিজেন সংকট নিয়ে সমালোচনা করে ‘পরিবেশ নষ্টের’ চেষ্টা করলে জাতীয় সুরক্ষা আইনে পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

গোশালায় যাচ্ছে অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৮ মে ২০২১, ০৫:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনায় বিপর্যস্ত গোটা ভারত। দেশটিতে একের পর এক আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড হচ্ছে। 

একদিকে যখন করোনায় আক্রান্ত রোগীরা চিকিৎসার অভাবে মারা যাচ্ছেন, তখনই গরুদের জন্য অক্সিমিটার-থার্মাল স্ক্যানার পাঠাচ্ছে উত্তর প্রদেশের কট্টর হিন্দুত্ববাদী যোগী আদিত্যনাথের সরকার। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের সরকারি গোশালায় এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে বলে এক প্রেস বিবৃতিতে জানানো হয়। পরে এ নিয়ে বিতর্ক শুরু হলে মুখ্যমন্ত্রী দফতর থেকে দাবি করা হয়, গোশালায় কর্মরত কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।
 
যোগী আদিত্যনাথের দফতর জানায়, প্রত্যেক জেলায় সরকারি গোশালায় গরুদের দেখভালের জন্য হেল্পডেস্ক তৈরি করা এবং গরুদের সুরক্ষার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে জেলা প্রশাসনগুলোকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিচার করে গরুদের কল্যাণে প্রত্যেক জেলায় ৭০০টি হেল্পডেস্ক তৈরি করা হয়েছে। গরুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ৫১টি অক্সিমিটার, ৩৪১টি থার্মাল স্ক্যানার পাঠানো হয়েছে। রাজ্যের বিপুল সংখ্যক ভবঘুরে গবাদি পশুকে সরকারি গোশালায় আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। গোশালার সংখ্যাও দ্রুত বাড়ানো হচ্ছে।

সরকারি ফরমান অনুযায়ী, প্রতিটি গোশালায় কোভিড বিধি মানতে হবে। সেখানে মাস্ক পরা, থার্মাল স্ক্রিনিং বাধ্যতামূলক। একইসঙ্গে নির্দেশ, গোশালার গরুদের জন্য চিকিৎসা সামগ্রী যেন পর্যাপ্ত থাকে।

রাজ্য সরকারের এমন বিবৃতির পর সমালোচকরা বলছেন, যেখানে মানুষ ঠিকমতো চিকিৎসা সরঞ্জাম পাচ্ছে না, সেখানে গরুর জন্য রীতিমতো তোড়জোড় শুরু করেছে সরকার। মানুষকে উপেক্ষা করে গরুর জন্য অক্সিমিটার, থার্মাল স্ক্যানানের মতো সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে।

পরে সমালোচনার মুখে মুখ্যমন্ত্রীর দফতর থেকে দাবি করা হয়, গরুর জন্য নয় বরং গোশালার কর্মীদের জন্যই এসব চিকিৎসা সামগ্রী পাঠানো হয়েছে।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বরাবরই কট্টর ধর্মান্ধ ও গোড়া হিন্দুত্ববাদী হিসেবে পরিচিত। 

অক্সিজেন সংকট নিয়ে সমালোচনা করে ‘পরিবেশ নষ্টের’ চেষ্টা করলে জাতীয় সুরক্ষা আইনে পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস