জেরুজালেমে আবারও ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর ইহুদিদের হামলা
jugantor
জেরুজালেমে আবারও ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর ইহুদিদের হামলা

  অনলাইন ডেস্ক  

০৯ মে ২০২১, ১১:০২:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

জেরুজালেমে অবস্থিত পবিত্র মসজিদ আল-আকসায় লাইলাতুল কদরের নামাজ পড়তে যাওয়া মুসল্লিদের ওপর শনিবার রাতেও ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে কট্টরপন্থি ইহুদি ও ইসরাইলি সেনারা।

জেরুজালেমে টানা দ্বিতীয় রাতের মতো ইসরাইলি বাহিনী এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে নারী ও শিশুসহ অনেক ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। খবর বিবিসির।

বিক্ষোভকারীরা এ সময় ইসরাইলি পুলিশকে প্রতিহত করতে ইটপাটকেল ছুড়েছে এবং পুরনো শহরের দামেস্ক গেটের কাছে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। ইসরাইলি বাহিনী ফিলিস্তিনিদের ওপর স্টান গ্রেনেড এবং জলকামান ব্যবহার করেছে।

ফিলিস্তিনি রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, সংঘর্ষে অন্তত ৮০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ১৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ইসরাইলি পুলিশ জানিয়েছে, তাদের এক পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

ইহুদি বসতি স্থাপনের জন্য পূর্ব জেরুজালেমের বাড়িঘর থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করার আশঙ্কায় সেখানে বেশ কয়েক দিন ধরে উত্তেজনা চলছে। তারই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় দিনের মতো এ সহিংসতার ঘটনা ঘটল।

শুক্রবার রাতে আল-আকসা মসজিদের কাছে সহিংসতায় শতাধিক ফিলিস্তিনি এবং অন্তত ১৭ ইসরাইলি পুলিশ আহত হয়েছেন বলে স্বাস্থ্যকর্মী এবং পুলিশ জানিয়েছে।

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের কাছে ইসলামের অন্যতম প্রধান কেন্দ্র, কিন্তু সে এলাকাটি ইহুদি ধর্মাবলম্বীদেরও একটি তীর্থস্থান, যাকে টেম্পল মাউন্ট বলা হয়।

এ এলাকায় প্রায়ই দুপক্ষের মধ্যে সহিংসতার ঘটনা ঘটে। তবে শুক্রবারের সহিংসতা ছিল এই বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি তীব্র।

মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি আলোচনায় ভূমিকা রাখা যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, রাশিয়া এবং জাতিসংঘ এই সহিংসতার ব্যাপারে 'গভীর উদ্বেগ' জানিয়েছে।

জেরুজালেমে আবারও ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর ইহুদিদের হামলা

 অনলাইন ডেস্ক 
০৯ মে ২০২১, ১১:০২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জেরুজালেমে অবস্থিত পবিত্র মসজিদ আল-আকসায় লাইলাতুল কদরের নামাজ পড়তে যাওয়া মুসল্লিদের ওপর শনিবার রাতেও ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে কট্টরপন্থি ইহুদি ও ইসরাইলি সেনারা।

জেরুজালেমে টানা দ্বিতীয় রাতের মতো ইসরাইলি বাহিনী এবং ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে নারী ও শিশুসহ অনেক ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। খবর বিবিসির।

বিক্ষোভকারীরা এ সময় ইসরাইলি পুলিশকে প্রতিহত করতে ইটপাটকেল ছুড়েছে এবং পুরনো শহরের দামেস্ক গেটের কাছে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। ইসরাইলি বাহিনী ফিলিস্তিনিদের ওপর স্টান গ্রেনেড এবং জলকামান ব্যবহার করেছে।

ফিলিস্তিনি রেড ক্রিসেন্ট জানিয়েছে, সংঘর্ষে অন্তত ৮০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ১৪ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ইসরাইলি পুলিশ জানিয়েছে, তাদের এক পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

ইহুদি বসতি স্থাপনের জন্য পূর্ব জেরুজালেমের বাড়িঘর থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করার আশঙ্কায় সেখানে বেশ কয়েক দিন ধরে উত্তেজনা চলছে। তারই ধারাবাহিকতায় দ্বিতীয় দিনের মতো এ সহিংসতার ঘটনা ঘটল।

শুক্রবার রাতে আল-আকসা মসজিদের কাছে সহিংসতায় শতাধিক ফিলিস্তিনি এবং অন্তত ১৭ ইসরাইলি পুলিশ আহত হয়েছেন বলে স্বাস্থ্যকর্মী এবং পুলিশ জানিয়েছে।

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ মুসলমান ধর্মাবলম্বীদের কাছে ইসলামের অন্যতম প্রধান কেন্দ্র, কিন্তু সে এলাকাটি ইহুদি ধর্মাবলম্বীদেরও একটি তীর্থস্থান, যাকে টেম্পল মাউন্ট বলা হয়।

এ এলাকায় প্রায়ই দুপক্ষের মধ্যে সহিংসতার ঘটনা ঘটে। তবে শুক্রবারের সহিংসতা ছিল এই বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি তীব্র।

মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি আলোচনায় ভূমিকা রাখা যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, রাশিয়া এবং জাতিসংঘ এই সহিংসতার ব্যাপারে 'গভীর উদ্বেগ' জানিয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন