গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, খাওয়ানো হচ্ছে দুধ-গোমূত্র!
jugantor
গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, খাওয়ানো হচ্ছে দুধ-গোমূত্র!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৯ মে ২০২১, ১৭:৪০:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, খাওয়ানো হচ্ছে দুধ-গোমূত্র!

গোয়ালঘরেই কোভিড সেন্টার। করোনা সারাতে খাওয়ানো হচ্ছে দুধ আর গোমূত্র। এবার এমন চিত্রই দেখা গেল গুজরাটে।

কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারত। করোনায় আক্রান্তদের প্রাণহানিতে দেশটি মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে উত্তর গুজরাটের বাঁশকাঁথা জেলার তেতোড়া গ্রামের একটি গোয়ালঘরকে কোভিড কেয়ার সেন্টার বানানো হয়েছে। যার নাম দেওয়া হয়েছে 'ভেদালক্ষণ পঞ্চগাব্য আয়ুর্বেদ আইসোলেশন সেন্টার।'

বর্তমানে ওই বিশেষ সেন্টারটিতে সাত জন রোগী রয়েছেন। যাদের আয়ুর্বেদিক ওষুধ, গরুর দুধ আর গোমূত্র খাওয়ানো হচ্ছে নিয়মিত। পাশাপাশি চালানো হচ্ছে অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা।

ইন্ডিয়া টাইমস জানিয়েছে, গত ৫ মে রাজারাম গৌশালা আশ্রমের উদ্যোগে ওই কোভিড কেয়ার সেন্টার খোলা হয়। যেসব রোগীর হালকা উপসর্গ রয়েছে, তাদেরই ভর্তি নেওয়া হচ্ছে সেখানে।

গোধাম মহাতীর্থ পথমেদার বাঁশকাঁথা জেলার প্রতিনিধি মোহন যাদব বলেন, যাদের দেহে বিশেষ উপসর্গ নেই বললেই চলে, অথচ কোভিড আক্রান্ত, তাদের চিকিৎসা করছি আমরা। আট ধরনের আয়ুর্বেদিক ওষুধের উপর ভরসা রাখা হচ্ছে। গরুর দুধ, ঘি এবং গো মূত্র ব্যবহার করেই ওই ওষুধ তৈরি করা হচ্ছে।

মোহন আরও জানান, পঞ্চগাব্য আয়ুর্বেদ থেরাপির পাশাপাশি গুজরাটের ওই কোভিড সেন্টারে 'গৌ তীর্থ' নামের একটি ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে। যা দেশি গোরুর মূত্র ব্যবহার করে তৈরি করা হয়। পাশাপাশি জড়িবুটি এবং গোমূত্র খাওয়ানো হচ্ছে করোনা আক্রান্তদের।

চিকিৎসার জন্য আইসলেশন সেন্টারটিতে দুজন কবিরাজ এবং দুজন এমবিবিএস ডাক্তার রয়েছে। কারো প্রয়োজন হলে তবেই অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

গোয়ালঘরে করোনা চিকিৎসার জন্য স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন জেলাশাসক আনন্দ প্যাটেল। প্রশাসনের তরফ থেকে সেই আবেদন মঞ্জুর করা হয়।


গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, খাওয়ানো হচ্ছে দুধ-গোমূত্র!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৯ মে ২০২১, ০৫:৪০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
গোয়ালঘরে কোভিড সেন্টার, খাওয়ানো হচ্ছে দুধ-গোমূত্র!
এনডিটিভির ফাইল ছবি

গোয়ালঘরেই কোভিড সেন্টার। করোনা সারাতে খাওয়ানো হচ্ছে দুধ আর গোমূত্র। এবার এমন চিত্রই দেখা গেল গুজরাটে। 

কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারত। করোনায় আক্রান্তদের প্রাণহানিতে দেশটি মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে উত্তর গুজরাটের বাঁশকাঁথা জেলার তেতোড়া গ্রামের একটি গোয়ালঘরকে কোভিড কেয়ার সেন্টার বানানো হয়েছে। যার নাম দেওয়া হয়েছে 'ভেদালক্ষণ পঞ্চগাব্য আয়ুর্বেদ আইসোলেশন সেন্টার।' 
 
বর্তমানে ওই বিশেষ সেন্টারটিতে সাত জন রোগী রয়েছেন। যাদের আয়ুর্বেদিক ওষুধ, গরুর দুধ আর গোমূত্র খাওয়ানো হচ্ছে নিয়মিত। পাশাপাশি চালানো হচ্ছে অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা।

ইন্ডিয়া টাইমস জানিয়েছে, গত ৫ মে রাজারাম গৌশালা আশ্রমের উদ্যোগে ওই কোভিড কেয়ার সেন্টার খোলা হয়। যেসব রোগীর হালকা উপসর্গ রয়েছে, তাদেরই ভর্তি নেওয়া হচ্ছে সেখানে।  

গোধাম মহাতীর্থ পথমেদার বাঁশকাঁথা জেলার প্রতিনিধি মোহন যাদব বলেন, যাদের দেহে বিশেষ উপসর্গ নেই বললেই চলে, অথচ কোভিড আক্রান্ত, তাদের চিকিৎসা করছি আমরা। আট ধরনের আয়ুর্বেদিক ওষুধের উপর ভরসা রাখা হচ্ছে। গরুর দুধ, ঘি এবং গো মূত্র ব্যবহার করেই ওই ওষুধ তৈরি করা হচ্ছে।

মোহন আরও জানান, পঞ্চগাব্য আয়ুর্বেদ থেরাপির পাশাপাশি গুজরাটের ওই কোভিড সেন্টারে 'গৌ তীর্থ' নামের একটি ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে। যা দেশি গোরুর মূত্র ব্যবহার করে তৈরি করা হয়। পাশাপাশি জড়িবুটি এবং গোমূত্র খাওয়ানো হচ্ছে করোনা আক্রান্তদের। 

চিকিৎসার জন্য আইসলেশন সেন্টারটিতে দুজন কবিরাজ এবং দুজন এমবিবিএস ডাক্তার রয়েছে। কারো প্রয়োজন হলে তবেই অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। 

গোয়ালঘরে করোনা চিকিৎসার জন্য স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অনুমতি চাওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন জেলাশাসক আনন্দ প্যাটেল। প্রশাসনের তরফ থেকে সেই আবেদন মঞ্জুর করা হয়। 


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস