হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে ইসরাইলের আয়রন ডোম! (ভিডিও)
jugantor
হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে ইসরাইলের আয়রন ডোম! (ভিডিও)

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

১২ মে ২০২১, ০৫:১২:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ফিলিস্তিন-ইসরাইল।

ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর টানা বিমান হামলা চালিয়ে ২৮ জনকে হত্যার পর পাল্টা জবাব দিচ্ছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

ইসরাইলের অভ্যন্তরে দুই শতাধিকের বেশিরকেট হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

হামাসের বরাত দিয়ে ফিলিস্তিন ইনফরমেশন সেন্টার জানিয়েছেন, গাজা থেকে ইসরাইলের আশদোদ এবং আশকেলন শহরে হামাস ব্যাপকভাবে রকেট হামলা চালিয়েছে। মাত্র পাঁচ মিনিটে এই দুই শহরে ১৩৭টি রকেট হামলা চালানো হয়েছে।

ইসরাইলের দুই শহরের বিরুদ্ধে এটি এ যাবৎকালের সবচেয়ে বড় হামলা বলে এক বিবৃতিতে দাবি করেছে হামাস।

এদিকে হামাসের এই লাগাদার রকেট হামলায় বিধ্বস্ত ইসরাইলের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর তেল আবিব। হামাসের লাগাতার নিক্ষেপিত ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে ইসরাইলের আয়রন ডোম।

মঙ্গলবার একের পর এক বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে সেখানে। শহরটিতে বেজেছে সাইরেন সতর্কতা। সাইরেনের শব্দে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ইসরাইলেদের পালাতে দেখা গেছে। হামাসের এই রকেট হামলার কারণে তেল আবিবের সবচেয়ে কাছের বিমানবন্দর বন্ধ ঘোষণা করেছে ইসরাইল।

ইসরাইলি সেনাবাহিনী বলেছে, গাজা থেকে নিক্ষেপিত অগণিত রকেটের মধ্যে ২০০ রকেটকে ঠেকিয়ে দিয়েছে তাদের আইরন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জোনাথন কনরিকাস দাবি করেছেন, রকেটগুলোর বেশিরভাগই আইরন ডোম মিসাইল সিস্টেম প্রতিরোধ করেছে।

তবে মধ্যপ্রাচ্যের গণমাধ্যম ডেইলি সাবা বলেছে, হামাসের রকেট হামলায় ট্রান্স-ইজরাইল পাইপলাইন ও তেল শোধনাগারে বিশাল অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। কয়েকটি অবৈধ বাড়ি ধ্বংস হয়েছে।

চ্যানেল ১২ টেলিভিশনে দেখানো হয়েছে, আশকেলন শহরের পার্শ্ববর্তী স্থান মেডিটেরানিয়ান সিটিতে হঠাৎ আগুনের লেলিহান শিখা দেখা দেয়। চারিদিক দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে। শহরটি তেল আবিবের দক্ষিণে অবস্থিত।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, হামাসের ছোড়া রকেটের আঘাতে ইসরাইলের বেশ কিছু স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে আশকেলন শহরে একটি অ্যাপার্টমেন্ট এবং বেইত নেকোফা এলাকায় একটি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে। ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের আশখেলন শহরে দুই নারী নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া অনন্ত ১০ আহত হয়েছেন।

পাল্টা হামলার বিষয়ে হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাসেম ব্রিগেডস বলেছে, গাজায় ইসরাইলের বিমান হামলায় ১২ তলা ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। এ হামলার প্রতিশোধ নিতে তেল আবিবের দিকে রকেট নিক্ষেপ করেছে তারা।

গত সোমবার থেকে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি দখলদার বাহিনী বিমান হামলা চালায়। সেই হামলা এখনও অব্যাহত রেখেছে তারা।

সোমবার সকালে একদল ইসরাইলি সেনা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আল-আকসায় ঢুকে পড়ে।এসময় ফিলিস্তিনিরা তাদের বাধা দিলে তাদের ওপর গুলিবর্ষণ করে ইসরাইলি বাহিনী। নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস, সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। এতে অনেকে আহত হন।

হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে ইসরাইলের আয়রন ডোম! (ভিডিও)

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
১২ মে ২০২১, ০৫:১২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ফিলিস্তিন-ইসরাইল। 

ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড গাজায়  ইসরাইলি বাহিনীর টানা বিমান হামলা চালিয়ে ২৮ জনকে হত্যার পর পাল্টা জবাব দিচ্ছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

ইসরাইলের অভ্যন্তরে দুই শতাধিকের বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস।

হামাসের বরাত দিয়ে ফিলিস্তিন ইনফরমেশন সেন্টার জানিয়েছেন, গাজা থেকে ইসরাইলের আশদোদ এবং আশকেলন শহরে হামাস ব্যাপকভাবে রকেট হামলা চালিয়েছে। মাত্র পাঁচ মিনিটে এই দুই শহরে ১৩৭টি রকেট হামলা চালানো হয়েছে। 

ইসরাইলের দুই শহরের বিরুদ্ধে এটি এ যাবৎকালের সবচেয়ে বড় হামলা বলে এক বিবৃতিতে দাবি করেছে হামাস। 

এদিকে হামাসের এই লাগাদার রকেট হামলায় বিধ্বস্ত ইসরাইলের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর তেল আবিব। হামাসের লাগাতার নিক্ষেপিত ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে ব্যর্থ হচ্ছে ইসরাইলের আয়রন ডোম।

মঙ্গলবার একের পর এক বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে সেখানে। শহরটিতে বেজেছে সাইরেন সতর্কতা। সাইরেনের শব্দে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে ইসরাইলেদের পালাতে দেখা গেছে। হামাসের এই রকেট হামলার কারণে তেল আবিবের সবচেয়ে কাছের বিমানবন্দর বন্ধ ঘোষণা করেছে ইসরাইল।

ইসরাইলি সেনাবাহিনী বলেছে, গাজা থেকে নিক্ষেপিত অগণিত রকেটের মধ্যে ২০০ রকেটকে ঠেকিয়ে দিয়েছে তাদের আইরন ডোম প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জোনাথন কনরিকাস দাবি করেছেন, রকেটগুলোর বেশিরভাগই আইরন ডোম মিসাইল সিস্টেম প্রতিরোধ করেছে।

তবে মধ্যপ্রাচ্যের গণমাধ্যম ডেইলি সাবা বলেছে, হামাসের রকেট হামলায় ট্রান্স-ইজরাইল পাইপলাইন ও তেল শোধনাগারে বিশাল অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। কয়েকটি অবৈধ বাড়ি ধ্বংস হয়েছে। 

চ্যানেল ১২ টেলিভিশনে দেখানো হয়েছে, আশকেলন শহরের পার্শ্ববর্তী স্থান মেডিটেরানিয়ান সিটিতে হঠাৎ আগুনের লেলিহান শিখা দেখা দেয়। চারিদিক দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে। শহরটি তেল আবিবের দক্ষিণে অবস্থিত।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, হামাসের ছোড়া রকেটের আঘাতে ইসরাইলের বেশ কিছু স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে আশকেলন শহরে একটি অ্যাপার্টমেন্ট এবং বেইত নেকোফা এলাকায় একটি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে। ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলের আশখেলন শহরে দুই নারী নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া অনন্ত ১০ আহত হয়েছেন। 

 

পাল্টা হামলার বিষয়ে হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাসেম ব্রিগেডস বলেছে, গাজায় ইসরাইলের বিমান হামলায় ১২ তলা ভবন ধ্বংস হয়ে গেছে। এ হামলার প্রতিশোধ নিতে তেল আবিবের দিকে রকেট নিক্ষেপ করেছে তারা।

গত সোমবার থেকে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি দখলদার বাহিনী বিমান হামলা চালায়। সেই হামলা এখনও অব্যাহত রেখেছে তারা।

 

সোমবার সকালে একদল ইসরাইলি সেনা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আল-আকসায় ঢুকে পড়ে।এসময় ফিলিস্তিনিরা তাদের বাধা দিলে তাদের ওপর গুলিবর্ষণ করে ইসরাইলি বাহিনী। নামাজরত ফিলিস্তিনিদের ওপর রাবার বুলেট, টিয়ার গ্যাস, সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। এতে অনেকে আহত হন। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন