আলজাজিরার কার্যালয় ধ্বংস করে যা বলল ইসরাইল
jugantor
আলজাজিরার কার্যালয় ধ্বংস করে যা বলল ইসরাইল

  অনলাইন ডেস্ক  

১৫ মে ২০২১, ১৯:৪৫:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ধ্বংস হওয়ার আগে ভবনটির ছবি

ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড গাজায় দুই সেকেন্ডে একটি বহুতল ভবন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। ভবনটি গুড়িয়ে দিয়ে ইসরাইলের বিমানবাহিনী বলছে, এটি হামাসের সম্পতি ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, এটি গোয়েন্দা কাজে ব্যবহার করত হামাস।

শনিবার এই বহুতল ভবনটি ধ্বংস করা হয়।

বিবিসি জানিয়েছে, ওই ভবনটিতে আলজাজিরা ও অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) অফিস ছিল। পাশাপাশি সেটি আবাসিক ভবন হিসেবেও ব্যবহার করা হত।হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেছি কিনা, তা এখনো জানা সম্ভব হয়নি।

ইসরাইলের বিমান বাহিনী টুইট করে জানায়, ওই বহুতল ভবনটি মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করা হত।

ছবিতে দেখা যায়, বোমা হামলার পর ভবনটি মাটিতে ভেঙে পড়ছে। ভবনটির ধ্বংসস্তূপ চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভবনটিতে অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস ব্যুরোও কার্যালয় ছিল। ঘণ্টাখানেক আগে এটি উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল ইসরাইলি সামরিক বাহিনী।

ভবনটিতে অফিস ও অ্যাপার্টমেন্ট থাকার বিষয়ে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ বিবৃতি দিয়েছে, তারা বলছে, সেখানে হামলার আগে সতর্ক করা হয়েছে।

গাজার অফিসটিতে ১১ বছর ধরে কাজ করা আলজাজিরার সাংবাদিক সাফাওয়াত আল খালুত তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলছেন, দুই সেকেন্ডের মধ্যেই ভবনটি মাটির সঙ্গে মিশে যায়। তিনি বলেন, আমি ১১ বছর ধরে সেখানে কাজ করছি। আমি অনেক ঘটনা ভবনটি থেকে কাভার করেছি, আমরা ব্যক্তিগত পেশাদার জীবন যাপন করেছি,দুই সেকেন্ডের মধ্যে এখন সবকিছুই হারিয়ে গেল।

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, টানা ষষ্ঠ দিনের মতো ইসরাইলিহামলায় এ পর্যন্ত ১৪০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া হামলায় আহত হয়েছেন হাজারের বেশি মানুষ। পাশাপাশি বহু ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে শনিবার ১৩ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল। এর মধ্যে এক পরিবারের ১০ সদস্য রয়েছে। যাদের আটজন শিশু ও দুইজন নারী।

অপরদিকে হামাসের রকেট হামলায় এ পর্যন্ত ৯ জন ইসরাইলি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন সেনাবাহিনীর সদস্য রয়েছে।

আলজাজিরার কার্যালয় ধ্বংস করে যা বলল ইসরাইল

 অনলাইন ডেস্ক 
১৫ মে ২০২১, ০৭:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ধ্বংস হওয়ার আগে ভবনটির ছবি
ধ্বংস হওয়ার আগে ভবনটির ছবি। টুইটার থেকে সংগৃহীত

ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে ফিলিস্তিনের ভূখণ্ড গাজায় দুই সেকেন্ডে একটি বহুতল ভবন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছে ইসরাইলি বাহিনী। ভবনটি গুড়িয়ে দিয়ে ইসরাইলের বিমানবাহিনী বলছে, এটি হামাসের সম্পতি ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, এটি গোয়েন্দা কাজে ব্যবহার করত হামাস।

শনিবার এই বহুতল ভবনটি ধ্বংস করা হয়। 
 
বিবিসি জানিয়েছে, ওই ভবনটিতে আলজাজিরা ও অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) অফিস ছিল। পাশাপাশি সেটি আবাসিক ভবন হিসেবেও ব্যবহার করা হত।হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেছি কিনা, তা এখনো জানা সম্ভব হয়নি।

ইসরাইলের বিমান বাহিনী টুইট করে জানায়, ওই বহুতল ভবনটি মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করা হত।

ছবিতে দেখা যায়, বোমা হামলার পর ভবনটি মাটিতে ভেঙে পড়ছে। ভবনটির ধ্বংসস্তূপ চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভবনটিতে অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস ব্যুরোও কার্যালয় ছিল। ঘণ্টাখানেক আগে এটি উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল ইসরাইলি সামরিক বাহিনী।

ভবনটিতে অফিস ও অ্যাপার্টমেন্ট থাকার বিষয়ে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ বিবৃতি দিয়েছে, তারা বলছে, সেখানে হামলার আগে সতর্ক করা হয়েছে।

গাজার অফিসটিতে ১১ বছর ধরে কাজ করা আলজাজিরার সাংবাদিক সাফাওয়াত আল খালুত তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলছেন, দুই সেকেন্ডের মধ্যেই ভবনটি মাটির সঙ্গে মিশে যায়। তিনি বলেন, আমি ১১ বছর ধরে সেখানে কাজ করছি। আমি অনেক ঘটনা ভবনটি থেকে কাভার করেছি, আমরা ব্যক্তিগত পেশাদার জীবন যাপন করেছি, দুই সেকেন্ডের মধ্যে এখন সবকিছুই হারিয়ে গেল।

আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, টানা ষষ্ঠ দিনের মতো ইসরাইলি হামলায় এ পর্যন্ত ১৪০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া হামলায় আহত হয়েছেন হাজারের বেশি মানুষ। পাশাপাশি বহু ফিলিস্তিনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে শনিবার ১৩ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইল। এর মধ্যে এক পরিবারের ১০ সদস্য রয়েছে। যাদের আটজন শিশু ও দুইজন নারী।

অপরদিকে হামাসের রকেট হামলায় এ পর্যন্ত ৯ জন ইসরাইলি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন সেনাবাহিনীর সদস্য রয়েছে। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ