পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে তুলে নিয়ে গেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী
jugantor
পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে তুলে নিয়ে গেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী

  অনলাইন ডেস্ক  

১৭ মে ২০২১, ১১:১৮:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিরহাদ হাকিম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পরিবহন মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমকে তুলে নিয়ে গেছে দেশটির কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী। সোমবার সকালে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী তুলে নিয়ে যায়। নারদা কেলেঙ্কারি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

কেন্দ্রীয় বাহিনী আজ সকালে হাকিমের বাড়িতে গিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যায়।

এর আগে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, প্রতিমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য সিবিআইকে অনুমোদন দেন পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়। তারা সবাই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। এবারের নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূমিধস জয়ে সবারই অবদান রয়েছে।

কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে একটি ইফতার পার্টিতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ছবি: বিবিসি

ভারতের স্বাধীনতার পর কলকাতার প্রথম মেয়র হন ফিরহাদ হাকিম। ২০১৮ সালে তিনিকলকাতার মেয়র হিসেবে মনোনীত হন। ১৯৪৭ সালের আগে যে মুসিলম নেতারা মেয়র ছিলেন তাদের মধ্যে ছিলেন শেরেবাংলা এ কে ফজলুল হক। ফলে ফিরহান হাকিমকে শেরেবাংলার উত্তরসূরি হিসেবে দেখছেন তার ভক্তরা।

ফিরহাদ হাকিম দক্ষিণ কলকাতার চেতলা এলাকার মানুষ। তিনি দীর্ঘদিন কংগ্রেস রাজনীতির সঙ্গে রয়েছেন। ইতিপূর্বে তিনি কলকাতা কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বিধানসভায় নির্বাচনে জিতে মন্ত্রী হয়েছেন।

ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন, তার দাদা বিহারের গয়া জেলা থেকে কলকাতায় এসে ব্যবসা শুরু করেন। আর বাবা কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের আইন কর্মকর্তা ছিলেন। মা কলকাতার একটি স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন।

পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে তুলে নিয়ে গেছে কেন্দ্রীয় বাহিনী

 অনলাইন ডেস্ক 
১৭ মে ২০২১, ১১:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফিরহাদ হাকিম
ফিরহাদ হাকিম। ফাইল ছবি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পরিবহন মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমকে তুলে নিয়ে গেছে দেশটির কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী। সোমবার সকালে কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী তুলে নিয়ে যায়। নারদা কেলেঙ্কারি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

কেন্দ্রীয় বাহিনী আজ সকালে হাকিমের বাড়িতে গিয়ে তাকে তুলে নিয়ে যায়।

এর আগে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, প্রতিমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য সিবিআইকে অনুমোদন দেন পশ্চিমবঙ্গের গভর্নর জগদীপ ধনখড়। তারা সবাই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। এবারের নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভূমিধস জয়ে সবারই অবদান রয়েছে। 

কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গে একটি ইফতার পার্টিতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। ছবি: বিবিসি

ভারতের স্বাধীনতার পর কলকাতার প্রথম মেয়র হন ফিরহাদ হাকিম। ২০১৮ সালে তিনি কলকাতার মেয়র হিসেবে মনোনীত হন। ১৯৪৭ সালের আগে যে মুসিলম নেতারা মেয়র ছিলেন তাদের মধ্যে ছিলেন শেরেবাংলা এ কে ফজলুল হক। ফলে ফিরহান হাকিমকে শেরেবাংলার উত্তরসূরি হিসেবে দেখছেন তার ভক্তরা।

ফিরহাদ হাকিম দক্ষিণ কলকাতার চেতলা এলাকার মানুষ। তিনি দীর্ঘদিন কংগ্রেস রাজনীতির সঙ্গে রয়েছেন। ইতিপূর্বে তিনি কলকাতা কর্পোরেশনের ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বিধানসভায় নির্বাচনে জিতে মন্ত্রী হয়েছেন। 

ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছিলেন, তার দাদা বিহারের গয়া জেলা থেকে কলকাতায় এসে ব্যবসা শুরু করেন। আর বাবা কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের আইন কর্মকর্তা ছিলেন। মা কলকাতার একটি স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষিকা ছিলেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পশ্চিমবঙ্গ নির্বাচন ২০২১