আমাকেও গ্রেফতার করুন: মমতা
jugantor
আমাকেও গ্রেফতার করুন: মমতা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

১৭ মে ২০২১, ১৩:৪২:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নারদা কেলেঙ্কারি ইস্যুতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পরিবহন মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমসহ তৃণমূল নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার সকালে তাদের তুলে নিয়ে যায় সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই)।

ঘটনার পর পরই সিবিআই দফতরে গিয়ে হাজির হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাকেও গ্রেফতারের কথা বলেন তিনি।

ভারতের সংবাদমাধ্যম জি নিউজে প্রকাশ, সকালে নিরাপত্তারক্ষীদের নিয়ে মমতা সোজা উঠে যান সিবিআই দফতরের নিজাম প্যালেসের ১৪ তলায়। পৌঁছে যান সিবিআইয়ের ডিআইজির ঘরের সামনে। সেখানেই তিনি চেয়ার নিয়ে বসেই তিনি বলেন, আমাকেও গ্রেফতার করুণ।

মমতার দাবি, রাজ্য সরকারকে না জানিয়ে যখন তৃণমূলের তিন নেতাকে গ্রেফতার বেআইনি। এটা যখন করা হয়েছে, তখন তৃণমূল প্রধান বাদ যাবেন কেন। তাকেও গ্রেফতার করতে হবে।

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, সোমবার সকালে নবান্নে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন মমতা। তবে তিন নেতার গ্রেফতারের খবরে বাড়ি থেকে সোজা চলে আসেন নিজাম প্যালেসে।

তৃণমূল নেতা আইনজীবী অনিন্দ্য রাউত ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানান, ‘বেআইনিভাবে’ গ্রেফতারের প্রতিবাদে তাকেও গ্রেফতার করতে হবে বলে দাবি তুলেছেন মমতা। নাহলে তিনি সিবিআই দফতর থেকে বেরোবেন না মমতা।

কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, সকালে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিধায়ক মদন মিত্রকে তুলে আনা হয় সিবিআই দফতর নিজাম প্যালেসে। এ ছাড়াও তুলে আনা হয় শোভন চট্টোপাধ্যায়কেও। কোনো নোটিশ ছাড়া মাত্র দেড় ঘণ্টার ব্যবধানে চার জনকে তুলে আনা হয়। পরে গ্রেফতার দেখানো হয় তাদের।

আমাকেও গ্রেফতার করুন: মমতা

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
১৭ মে ২০২১, ০১:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারদা কেলেঙ্কারি ইস্যুতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পরিবহন মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা ফিরহাদ হাকিমসহ তৃণমূল নেতাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। 

সোমবার সকালে তাদের তুলে নিয়ে যায় সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই)।  

ঘটনার পর পরই সিবিআই দফতরে গিয়ে হাজির হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাকেও গ্রেফতারের কথা বলেন তিনি।

ভারতের সংবাদমাধ্যম জি নিউজে প্রকাশ, সকালে নিরাপত্তারক্ষীদের নিয়ে মমতা সোজা উঠে যান সিবিআই দফতরের নিজাম প্যালেসের ১৪ তলায়। পৌঁছে যান সিবিআইয়ের ডিআইজির ঘরের সামনে। সেখানেই তিনি চেয়ার নিয়ে বসেই তিনি বলেন, আমাকেও গ্রেফতার করুণ।

মমতার দাবি, রাজ্য সরকারকে না জানিয়ে যখন তৃণমূলের তিন নেতাকে গ্রেফতার বেআইনি। এটা যখন করা হয়েছে, তখন তৃণমূল প্রধান বাদ যাবেন কেন। তাকেও গ্রেফতার করতে হবে। 

হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, সোমবার সকালে নবান্নে যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন মমতা। তবে তিন নেতার গ্রেফতারের খবরে বাড়ি থেকে সোজা চলে আসেন নিজাম প্যালেসে। 

তৃণমূল নেতা আইনজীবী অনিন্দ্য রাউত ভারতীয় গণমাধ্যমকে জানান, ‘বেআইনিভাবে’ গ্রেফতারের প্রতিবাদে তাকেও গ্রেফতার করতে হবে বলে দাবি তুলেছেন মমতা। নাহলে তিনি সিবিআই দফতর থেকে বেরোবেন না মমতা।

কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, সকালে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিধায়ক মদন মিত্রকে তুলে আনা হয় সিবিআই দফতর নিজাম প্যালেসে। এ ছাড়াও তুলে আনা হয় শোভন চট্টোপাধ্যায়কেও। কোনো নোটিশ ছাড়া মাত্র দেড় ঘণ্টার ব্যবধানে চার জনকে তুলে আনা হয়। পরে গ্রেফতার দেখানো হয় তাদের।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন