প্রতিদিন গোমূত্র পান করি, এজন্য আমার করোনা হবে না: বিজেপির এমপি
jugantor
প্রতিদিন গোমূত্র পান করি, এজন্য আমার করোনা হবে না: বিজেপির এমপি

  অনলাইন ডেস্ক  

১৭ মে ২০২১, ২২:২৪:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজেপি নেত্রী প্রজ্ঞা ঠাকুর। ফাইল ছবি

প্রতিদিন গোমূত্র পান করার কারণে তার করোনা হবে না বলে দাবি করেছেন বিজেপির সংসদ সদস্য প্রজ্ঞা ঠাকুর।

তিনি বলেন, ‌‌এখন আমি রোজ গোমূত্র পান করি, সেই কারণে করোনার জন্য আর কোনও ওষুধ আমাকে খেতে হয় না। আমার কোনওদিন করোনাও হবে না।

সোমবার একটি দলীয় সভায় তিনি এ বিতর্কিত মন্তব্য করেন। খবর জিনিউজের।

বিতর্কিত মন্তব্য করা সেই প্রজ্ঞা ঠাকুর ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভোপাল আসন থেকে বিজেপির মনোনিত নির্বাচিত সংসদ সদস্য।

বিজেপির এমপি প্রজ্ঞা ঠাকুর আরও বলেন, ‘আমি যদি রোজ দেশি গরুর মূত্র পান করি তাহলে কোভিডে আক্রান্ত ফুসফুসের স্বাস্থ্যও এতে ভাল হয়ে যাবে। আমারও ফুসফুসে সংক্রমণ ঘটেছিল। অনেক যন্ত্রণায় কাটিয়েছি। সেখান থেকে রক্ষা পেয়েছি গো মূত্র খেয়ে। গোমূত্র হল জীবনদায়ী ওষুধ।'

এর আগেইন্ডিয়া টুডে টিভিতে এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, গোমূত্রের সঙ্গে গরু থেকে প্রাপ্ত অন্যান্য উপাদান খেলে ক্যানসার থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ২০০৬ সালে মহারাষ্ট্রের মালেগাও সিরিজ বোমা হামলায় অভিযুক্ত কট্টরপন্থী এ হিন্দু নারীলোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন।

এর আগেবিজেপির এনেত্রী এক সাক্ষাৎকারে ইন্ডিয়া টুডেকে জানান, গো-মূত্র খেয়ে তিনি ব্রেস্ট ক্যান্সার থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

মধ্যপ্রদেশের ভোপাল আসনের প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা বলেন, আমি স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলাম। গো-মূত্র পান করে আমি সুস্থ হয়ে গিয়েছি। এক্ষেত্রে গরুর গোবর, মূত্র, দুধসহ পাঁচটি জিনিস দিয়ে উৎপাদিত পণ্যও ক্যান্সার নিরাময়ে কাজ দিয়েছে।

ভারতের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার ওই বক্তব্যগুলোর কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই।

তবে ওই বিজেপি এমপির দাবি, ‘এটি পুরোপুরিভাবে বৈজ্ঞানিক,আমিই এর জীবন্ত এক উদাহরণ।’

তিনি আরওবলেন, প্রতিদিন গরুর পেছনের অংশ থেকে ঘাড় পর্যন্ত মালিশ করলে আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

তার ওই বক্তব্য নিয়ে ওই সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ট্রোলড হয়।

প্রতিদিন গোমূত্র পান করি, এজন্য আমার করোনা হবে না: বিজেপির এমপি

 অনলাইন ডেস্ক 
১৭ মে ২০২১, ১০:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিজেপি নেত্রী প্রজ্ঞা ঠাকুর। ফাইল ছবি
বিজেপি নেত্রী প্রজ্ঞা ঠাকুর। ফাইল ছবি

প্রতিদিন গোমূত্র পান করার কারণে তার করোনা হবে না বলে দাবি করেছেন বিজেপির সংসদ সদস্য প্রজ্ঞা ঠাকুর। 

তিনি বলেন, ‌‌এখন আমি রোজ গোমূত্র পান করি, সেই কারণে করোনার জন্য আর কোনও ওষুধ আমাকে খেতে হয় না। আমার কোনওদিন করোনাও হবে না।  

সোমবার একটি দলীয় সভায় তিনি এ বিতর্কিত মন্তব্য করেন। খবর জিনিউজের।

বিতর্কিত মন্তব্য করা সেই প্রজ্ঞা ঠাকুর ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভোপাল আসন থেকে বিজেপির মনোনিত নির্বাচিত সংসদ সদস্য। 

বিজেপির এমপি প্রজ্ঞা ঠাকুর আরও বলেন, ‘আমি যদি রোজ দেশি গরুর মূত্র পান করি তাহলে কোভিডে আক্রান্ত ফুসফুসের স্বাস্থ্যও এতে ভাল হয়ে যাবে। আমারও ফুসফুসে সংক্রমণ ঘটেছিল। অনেক যন্ত্রণায় কাটিয়েছি। সেখান থেকে রক্ষা পেয়েছি গো মূত্র খেয়ে। গোমূত্র হল জীবনদায়ী ওষুধ।' 

এর আগে ইন্ডিয়া টুডে টিভিতে এক সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, গোমূত্রের সঙ্গে গরু থেকে প্রাপ্ত অন্যান্য উপাদান খেলে ক্যানসার থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়। 

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ২০০৬ সালে মহারাষ্ট্রের মালেগাও সিরিজ বোমা হামলায় অভিযুক্ত কট্টরপন্থী এ হিন্দু নারী লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হন। 

এর আগে বিজেপির এ নেত্রী এক সাক্ষাৎকারে ইন্ডিয়া টুডেকে জানান, গো-মূত্র খেয়ে তিনি ব্রেস্ট ক্যান্সার থেকে মুক্তি পেয়েছেন।

মধ্যপ্রদেশের ভোপাল আসনের প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা বলেন, আমি স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলাম। গো-মূত্র পান করে আমি সুস্থ হয়ে গিয়েছি। এক্ষেত্রে গরুর গোবর, মূত্র, দুধসহ পাঁচটি জিনিস দিয়ে উৎপাদিত পণ্যও ক্যান্সার নিরাময়ে কাজ দিয়েছে। 

ভারতের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার ওই বক্তব্যগুলোর কোনো বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। 

তবে ওই বিজেপি এমপির দাবি, ‘এটি পুরোপুরিভাবে বৈজ্ঞানিক, আমিই এর জীবন্ত এক উদাহরণ।’

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন গরুর পেছনের অংশ থেকে ঘাড় পর্যন্ত মালিশ করলে আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

তার ওই বক্তব্য নিয়ে ওই সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ট্রোলড হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও খবর