জেলেই থাকতে হবে পশ্চিমবঙ্গের সেই ৪ নেতাকে 
jugantor
জেলেই থাকতে হবে পশ্চিমবঙ্গের সেই ৪ নেতাকে 

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ মে ২০২১, ০০:০৬:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়

নারদ মামলায় গ্রেফতার হওয়া রাজ্যের সাবেক ও বর্তমান ৪ মন্ত্রীকে আদালতের জামিনের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। তাই বুধবার পর্যন্ত জেল হেফাজতেই থাকতে হবে তাদের।

আদালত সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রতিদিন জানায়, ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জামিনের নির্দেশের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে গিয়েছিল সিবিআই। আদালত জানিয়ে দিয়েছেন, এই চার নেতাকে বুধবার পর্যন্ত জেল হেফাজতেই থাকতে হবে। বুধবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

খবরে বলা হয়, সোমবার সকালে তাদের গ্রেফতারের পর দুপুরে ভার্চুয়াল মাধ্যমে চারজনকে আদালতে পেশ করেন তদন্তকারীরা। এরপর গ্রেফতারদের জেল হেফাজতে পাঠানোর আবেদন জানান তারা। তখনই আদালত সিবিআইকে কঠিন প্রশ্নের মুখোমুখি করে। আদালতের প্রশ্ন- তদন্ত শেষ হয়ে গেলে কেন অভিযুক্তদের জেল হেফাজতে পাঠানোর দরকার?

এর সদুত্তর দিতে পারেনি সিবিআই। যার ফলে বিকালে বর্তমান দুই মন্ত্রী ও সাবেক দুই মন্ত্রীর জামিন মঞ্জুর করে আদালত।

এরপর কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন করে সিবিআই। সিবিআইয়ের আবেদন গ্রহণ করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের এজলাসে ভারচুয়াল শুনানি হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে আদালত নিম্ন আদালতের রায়ের উপর স্থগিতাদেশ জারি করে হাইকোর্ট। ফলে বুধবার পর্যন্ত চারজনকে জেল হেফাজতে থাকতে হবে। প্রেসিডেন্সি জেলের একটি ওয়ার্ডে তাদের রাখার ব্যবস্থা করা হয়।

জেলেই থাকতে হবে পশ্চিমবঙ্গের সেই ৪ নেতাকে 

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ মে ২০২১, ১২:০৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়
ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

নারদ মামলায় গ্রেফতার হওয়া রাজ্যের সাবেক ও বর্তমান ৪ মন্ত্রীকে আদালতের জামিনের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। তাই বুধবার পর্যন্ত জেল হেফাজতেই থাকতে হবে তাদের। 

আদালত সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রতিদিন জানায়, ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জামিনের নির্দেশের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে গিয়েছিল সিবিআই। আদালত জানিয়ে দিয়েছেন, এই চার নেতাকে বুধবার পর্যন্ত জেল হেফাজতেই থাকতে হবে। বুধবার এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

খবরে বলা হয়, সোমবার সকালে তাদের গ্রেফতারের পর দুপুরে ভার্চুয়াল মাধ্যমে চারজনকে আদালতে পেশ করেন তদন্তকারীরা। এরপর গ্রেফতারদের জেল হেফাজতে পাঠানোর আবেদন জানান তারা। তখনই আদালত সিবিআইকে কঠিন প্রশ্নের মুখোমুখি করে। আদালতের প্রশ্ন- তদন্ত শেষ হয়ে গেলে কেন অভিযুক্তদের জেল হেফাজতে পাঠানোর দরকার?

এর সদুত্তর দিতে পারেনি সিবিআই। যার ফলে বিকালে বর্তমান দুই মন্ত্রী ও সাবেক দুই মন্ত্রীর জামিন মঞ্জুর করে আদালত। 

এরপর কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন করে সিবিআই। সিবিআইয়ের আবেদন গ্রহণ করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দালের এজলাসে ভারচুয়াল শুনানি হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে আদালত নিম্ন আদালতের রায়ের উপর স্থগিতাদেশ জারি করে হাইকোর্ট। ফলে বুধবার পর্যন্ত চারজনকে জেল হেফাজতে থাকতে হবে। প্রেসিডেন্সি জেলের একটি ওয়ার্ডে  তাদের রাখার ব্যবস্থা করা হয়। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন