৬০ বিমান নিয়ে হামাসের সুড়ঙ্গপথে হামলা ইসরাইলের
jugantor
৬০ বিমান নিয়ে হামাসের সুড়ঙ্গপথে হামলা ইসরাইলের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

১৯ মে ২০২১, ০১:৩৮:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

হামাসের ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গ থেকে রকেট হামলায় বিপাকে পড়েছিল গোটা ইসরাইল। সোমবার থেকে দেশটির বিভিন্ন শহরে গাজা থেকে বৃষ্টির মতো রকেট হামলা চালানো হয়।

হামাসের সেই ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গ ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করেছেন ইসরাইল।

এ বিষয়ে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র হিদাই জিলম্যান এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, মাত্র আধা ঘণ্টায় আমরা ৬৫টি স্থানে আঘাত হেনেছি। ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ সুড়ঙ্গ ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে ইসরাইলের বিমান বাহিনী।

তবে তার এই দাবির সত্যতা নিশ্চিত করে কোনো বার্তা দেয়নি হামাস।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর, মঙ্গলবার সকাল থেকে গাজার অন্তত ৬৫টি স্থানে বিমান হামলা হয়েছে। গাজার পশ্চিমের আর-রামাল এলাকায় সবচেয়ে বেশি হামলা হয়েছে।

পার্সটুডের খবরে বলা হয়েছে, এ হামলায় ৬০টি জঙ্গিবিমান অংশ নিয়েছে।

এদিকে পশ্চিম তীরের রামাল্লায় ফিলিস্তিনি ও ইসরাইলের সংঘর্ষে দুই ইসরাইলি সেনাবাহিনী আহত হয়েছেন। অপরদিকে ইসরাইলি হামলায় ১৪ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় এক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এছাড়া বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। পাশাপাশি ফিলিস্তিনি প্রতিবাদকারীদের ছোড়া গুলিতে দুই ইসরাইলি সেনা আহত হয়েছেন।

এদিকে ফিলিস্তিনে হামলা নিয়ে ইসরাইলের অভ্যন্তরেই বিবাদের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ইহুদিবাদীদের সঙ্গে আরব মুসলমানদের সংঘর্ষ চলছে। লোদ শহরে ৪৮ ঘণ্টার জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

উগ্র ইহুদিবাদীরা গত রাতেও দখলদার ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বাড়ির সামনে সমবেত হয়ে গাজায় হামলা অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছে। এদের অনেকেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ইহুদিবাদী।

৬০ বিমান নিয়ে হামাসের সুড়ঙ্গপথে হামলা ইসরাইলের

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
১৯ মে ২০২১, ০১:৩৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হামাসের ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গ থেকে রকেট হামলায় বিপাকে পড়েছিল গোটা ইসরাইল। সোমবার থেকে দেশটির বিভিন্ন শহরে গাজা থেকে বৃষ্টির মতো রকেট হামলা চালানো হয়।  

হামাসের সেই ভূগর্ভস্থ সুড়ঙ্গ ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে বলে দাবি করেছেন ইসরাইল।

এ বিষয়ে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র হিদাই জিলম্যান এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, মাত্র আধা ঘণ্টায় আমরা ৬৫টি স্থানে আঘাত হেনেছি। ফিলিস্তিনি সংগ্রামীদের কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ সুড়ঙ্গ ধ্বংস করতে সক্ষম হয়েছে ইসরাইলের বিমান বাহিনী। 

তবে তার এই দাবির সত্যতা নিশ্চিত করে কোনো বার্তা দেয়নি হামাস।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর, মঙ্গলবার সকাল থেকে গাজার অন্তত ৬৫টি স্থানে বিমান হামলা হয়েছে। গাজার পশ্চিমের আর-রামাল এলাকায় সবচেয়ে বেশি হামলা হয়েছে। 

পার্সটুডের খবরে বলা হয়েছে, এ হামলায় ৬০টি জঙ্গিবিমান অংশ নিয়েছে। 

এদিকে পশ্চিম তীরের রামাল্লায় ফিলিস্তিনি ও ইসরাইলের সংঘর্ষে দুই ইসরাইলি সেনাবাহিনী আহত হয়েছেন। অপরদিকে ইসরাইলি হামলায় ১৪ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।  

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা জানিয়েছে, ইসরাইলি বাহিনীর হামলায় এক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এছাড়া বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।  পাশাপাশি ফিলিস্তিনি প্রতিবাদকারীদের ছোড়া গুলিতে দুই ইসরাইলি সেনা আহত হয়েছেন। 
    
এদিকে ফিলিস্তিনে হামলা নিয়ে ইসরাইলের অভ্যন্তরেই বিবাদের সৃষ্টি হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ইহুদিবাদীদের সঙ্গে আরব মুসলমানদের সংঘর্ষ চলছে। লোদ শহরে ৪৮ ঘণ্টার জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। 

উগ্র ইহুদিবাদীরা গত রাতেও দখলদার ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বাড়ির সামনে সমবেত হয়ে গাজায় হামলা অব্যাহত রাখার দাবি জানিয়েছে। এদের অনেকেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা ইহুদিবাদী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ