ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরোধিতায় ইউরোপের প্রথম দেশ
jugantor
ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরোধিতায় ইউরোপের প্রথম দেশ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ মে ২০২১, ২১:২২:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরোধিতায় ইউরোপের প্রথম দেশ

ইসরাইলের ওপর অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের একটি সংসদীয় প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছে আয়ারল্যান্ড। এতে দেশটিতে নিযুক্ত ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের কথাও রয়েছে।

আল জাজিরা জানিয়েছে, মঙ্গলবার আইরিশ আইনপ্রণেতাদের অনেকেই ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে ফিলিস্তিনের পতাকা বা চেকার্ড কেফায়া নকশার মাস্ক পরে সংসদে গিয়েছিলেন।

এদিন আইরিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইমন কোভেনি বলেছেন, বিরোধী দল সিন ফেইনের আনা প্রস্তাবটি আয়ারল্যান্ড-জুড়ে অনুভূতির গভীরতার সুস্পষ্ট সংকেত।

এ প্রস্তাব পাসের মাধ্যমে আয়ারল্যান্ডই হবে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রথম দেশ, যারা ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে।

ফিলিস্তিনি ভূমিতে ইসরাইলিদের বসতি স্থাপন প্রসঙ্গেও স্পষ্ট মন্তব্য করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
তার মতে, ‘এটি কার্যত আত্মসাৎ’। ফিলিস্তিনি ভূমিতে ইসরাইলের দখলদারিত্ব নিয়ে ইউরোপীয় নেতাদের মুখে ‘আত্মসাৎ’ শব্দের উচ্চারণ এটিই প্রথম বলে মনে করা হচ্ছে।

বর্তমানে দখলদার ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চলছে। এবারের যুদ্ধ চলাকালে বিশ্বের অনেক শহরের মতো আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনেও ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ করেছেন হাজারো মানুষ।


ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরোধিতায় ইউরোপের প্রথম দেশ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ মে ২০২১, ০৯:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরোধিতায় ইউরোপের প্রথম দেশ
ছবি: সংগৃহীত

ইসরাইলের ওপর অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের একটি সংসদীয় প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছে আয়ারল্যান্ড। এতে দেশটিতে নিযুক্ত ইসরাইলি রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের কথাও রয়েছে। 

আল জাজিরা জানিয়েছে, মঙ্গলবার আইরিশ আইনপ্রণেতাদের অনেকেই ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে ফিলিস্তিনের পতাকা বা চেকার্ড কেফায়া নকশার মাস্ক পরে সংসদে গিয়েছিলেন।

এদিন আইরিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইমন কোভেনি বলেছেন, বিরোধী দল সিন ফেইনের আনা প্রস্তাবটি আয়ারল্যান্ড-জুড়ে অনুভূতির গভীরতার সুস্পষ্ট সংকেত।

এ প্রস্তাব পাসের মাধ্যমে আয়ারল্যান্ডই হবে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রথম দেশ, যারা ইসরাইলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে। 

ফিলিস্তিনি ভূমিতে ইসরাইলিদের বসতি স্থাপন প্রসঙ্গেও স্পষ্ট মন্তব্য করেছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 
তার মতে, ‘এটি কার্যত আত্মসাৎ’। ফিলিস্তিনি ভূমিতে ইসরাইলের দখলদারিত্ব নিয়ে ইউরোপীয় নেতাদের মুখে ‘আত্মসাৎ’ শব্দের উচ্চারণ এটিই প্রথম বলে মনে করা হচ্ছে।

বর্তমানে দখলদার ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি চলছে। এবারের যুদ্ধ চলাকালে বিশ্বের অনেক শহরের মতো আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনেও ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভ করেছেন হাজারো মানুষ।


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফিলিস্তিনিদের ঘরে ফেরার বিক্ষোভ