প্রায় চার মাস পর মুক্ত হল ইরানের তেলবাহী জাহাজ
jugantor
প্রায় চার মাস পর মুক্ত হল ইরানের তেলবাহী জাহাজ

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৯ মে ২০২১, ১৯:৫৬:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রায় চার মাস পর মুক্ত হল ইরানের তেলবাহী জাহাজ

আটকের পর প্রায় চার মাস পর ইরানের পতাকাবাহী একটি তেলের ট্যাংকারকে ছেড়ে দিয়েছে ইন্দোনেশিয়া।

দেশটির পানিসীমায় ১২৫ দিন আটক থাকার পর শুক্রবার ট্যাংকারটি ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ইন্দোনেশীয় এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন।

জাকার্তার অভিযোগ, আটক করা এমটি হর্স ইন্দোনেশিয়ার জলসীমায় অবৈধভাবে তেল পরিবহন করছিল। তবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ট্যাংকার আটকের ঘটনাটিকে টেকনিক্যাল ইস্যু এবং নৌপরিবহনে এমনটি ঘটে থাকে বলে উল্লেখ করেছে।

ইরনা জানিয়েছে, মুক্ত হওয়ার পর ট্যাংকারটি পূর্ব নির্ধারিত গন্তব্যের দিকে রওনা হয়েছে। পূর্ব নির্ধারিত গন্তব্যে পৌঁছার পর এটি ইরানের দিকে রওনা হবে।

ইন্দোনেশিয়ার কোস্ট গার্ডের এক মুখপাত্র উইসনু প্রামান্দিতা জানান, এমটি হর্স নামের ইরানের পতাকাধারী ট্যাংকারটিকে শুক্রবার ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। আদালতের রায়ের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিকে এমটি হর্সের ক্রুরা তাদের আত্মত্যাগ ও দায়িত্ব পালনের দৃঢ়তার মাধ্যমে ইরানের জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করেছে বলে ইরানের তেল মন্ত্রণালয়ের এক বার্তায় বলা হয়েছে।


প্রায় চার মাস পর মুক্ত হল ইরানের তেলবাহী জাহাজ

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৯ মে ২০২১, ০৭:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রায় চার মাস পর মুক্ত হল ইরানের তেলবাহী জাহাজ
ছবি: আল জাজিরা

আটকের পর প্রায় চার মাস পর ইরানের পতাকাবাহী একটি তেলের ট্যাংকারকে ছেড়ে দিয়েছে ইন্দোনেশিয়া।  

দেশটির পানিসীমায় ১২৫ দিন আটক থাকার পর শুক্রবার ট্যাংকারটি ছেড়ে দেওয়া হয় বলে ইন্দোনেশীয় এক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। 

জাকার্তার অভিযোগ, আটক করা এমটি হর্স ইন্দোনেশিয়ার জলসীমায় অবৈধভাবে তেল পরিবহন করছিল। তবে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ট্যাংকার আটকের ঘটনাটিকে টেকনিক্যাল ইস্যু এবং নৌপরিবহনে এমনটি ঘটে থাকে বলে উল্লেখ করেছে।

ইরনা জানিয়েছে, মুক্ত হওয়ার পর ট্যাংকারটি পূর্ব নির্ধারিত গন্তব্যের দিকে রওনা হয়েছে। পূর্ব নির্ধারিত গন্তব্যে পৌঁছার পর এটি ইরানের দিকে রওনা হবে।

ইন্দোনেশিয়ার কোস্ট গার্ডের এক মুখপাত্র উইসনু প্রামান্দিতা জানান, এমটি হর্স নামের ইরানের পতাকাধারী ট্যাংকারটিকে শুক্রবার ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। আদালতের রায়ের পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এদিকে এমটি হর্সের ক্রুরা তাদের আত্মত্যাগ ও দায়িত্ব পালনের দৃঢ়তার মাধ্যমে ইরানের জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করেছে বলে ইরানের তেল মন্ত্রণালয়ের এক বার্তায় বলা হয়েছে। 


 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন