আর্মেনিয়ার ড্রোন নামিয়ে আনল আজারবাইজান
jugantor
আর্মেনিয়ার ড্রোন নামিয়ে আনল আজারবাইজান

  অনলাইন ডেস্ক  

০২ জুন ২০২১, ১০:১৩:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

আজারবাইজানের সেনাবাহিনী আর্মেনিয়ার একটি ড্রোনকে ভূমিতে নামিয়ে আনার দাবি করেছে।

আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, তাদের সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞরা আর্মেনিয়ার ‘গ্রিফোন-১২’ মডেলের একটি ড্রোনের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের পর তা ভূমিতে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। খবর রুশ বার্তা সংস্থা তাসের।

এ ড্রোনের সাহায্যে গোয়েন্দা তৎপরতা চালানোর পাশাপাশি হামলাও পরিচালনা করা যায়। আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে যুদ্ধবিরতি হলেও এখনও মাঝেমধ্যেই উত্তেজনা দেখা দেয়। সম্প্রতি সীমান্ত থেকে ছয় জন আর্মেনীয় সেনাকে আটকের দাবি করেছে আজারবাইজান।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত এ দুই দেশের মধ্যে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। ১৯৯১ সালে আজারবাইজানের বিশাল অঞ্চল দখল করে নেয় আর্মেনিয়া।

সর্বশেষ গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর আবারও দুই দেশ যুদ্ধে জড়ায়। আর্মেনিয়া গত বছরের ১০ নভেম্বর রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজানের সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয়।

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজানের সঙ্গে আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান ওই চুক্তিতে সই করেন। এই চুক্তির ভিত্তিতে সেখানে যুদ্ধ বন্ধ হয় এবং আর্মেনিয়া দখলীকৃত এলাকা আজারবাইজানকে ফেরত দিতে রাজি হয়।

আর্মেনিয়ার ড্রোন নামিয়ে আনল আজারবাইজান

 অনলাইন ডেস্ক 
০২ জুন ২০২১, ১০:১৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আজারবাইজানের সেনাবাহিনী আর্মেনিয়ার একটি ড্রোনকে ভূমিতে নামিয়ে আনার দাবি করেছে।

আজারবাইজানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, তাদের সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞরা আর্মেনিয়ার ‘গ্রিফোন-১২’ মডেলের একটি ড্রোনের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের পর তা ভূমিতে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। খবর রুশ বার্তা সংস্থা তাসের।

এ ড্রোনের সাহায্যে গোয়েন্দা তৎপরতা চালানোর পাশাপাশি হামলাও পরিচালনা করা যায়। আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে যুদ্ধবিরতি হলেও এখনও মাঝেমধ্যেই উত্তেজনা দেখা দেয়। সম্প্রতি সীমান্ত থেকে ছয় জন আর্মেনীয় সেনাকে আটকের দাবি করেছে আজারবাইজান।

সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নভুক্ত এ দুই দেশের মধ্যে নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে বিরোধ দীর্ঘদিনের। ১৯৯১ সালে আজারবাইজানের বিশাল অঞ্চল দখল করে নেয় আর্মেনিয়া।

সর্বশেষ গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর আবারও দুই দেশ যুদ্ধে জড়ায়। আর্মেনিয়া গত বছরের ১০ নভেম্বর রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজানের সঙ্গে চুক্তি করতে বাধ্য হয়।

নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে আজারবাইজানের সঙ্গে আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ান ওই চুক্তিতে সই করেন। এই চুক্তির ভিত্তিতে সেখানে যুদ্ধ বন্ধ হয় এবং আর্মেনিয়া দখলীকৃত এলাকা আজারবাইজানকে ফেরত দিতে রাজি হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আর্মেনিয়া-আজারবাইজান সংঘাত